ব্যাংক-বীমার দাপট, দুই হাজার কোটি ছাড়াল লেনদেন

ব্যাংক-বীমার দাপট, দুই হাজার কোটি ছাড়াল লেনদেন

মূল্যসূচকের বড় উত্থানের পাশাপাশি দেশের শেয়ারবাজারে লেনদেনের গতিও বেশ বেড়েছে। নিয়মিত হাজার কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হচ্ছে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)। মঙ্গলবার (২৫ মে) বাজারটিতে লেনদেনের পরিমাণ দুই হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে।

এর আগে গত ১৯ মে বাজারটিতে দুই হাজার কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হয়েছিল। সেই হিসেবে চলতি মাসে দুই কার্যদিবস ডিএসইতে দুই হাজার কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হয়েছে। তার আগে চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি দুই হাজার কোটি টাকার ওপরে লেননেদ হয়েছিল।

লেনদেনের পাশাপাশি ডিএসইতে প্রধান মূল্যসূচকের বড় উত্থান হয়েছে। সেইসঙ্গে অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচকের বড় উত্থান হয়েছে। মূল্যসূচকের এই উত্থানে প্রধান ভূমিকা রেখেছে ব্যাংক ও বীমা খাতের কোম্পানিগুলো। দুই বাজারেই সিংহভাগ ব্যাংক ও বীমা কোম্পানির শেয়ার দাম বেড়েছে।

এদিন প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। এতে লেনদেন শুরু হতেই ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ২০ পয়েন্টের ওপরে বেড়ে যায়। সময়ের সঙ্গে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতাও বাড়ে।

এতে দিনের লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৪১ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৮৮৪ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরিয়াহ্ সূচক দশমিক ৬ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৭০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

তবে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক আগের দিনের তুলনায় ২ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ১৭০ পয়েন্টে নেমে গেছে।

বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত সূচকের পতন হলেও প্রধান মূল্যসূচকের বড় উত্থানের পিছনে মুখ্য ভূমিকা রেখেছে ব্যাংক ও বীমা খাতের কোম্পানিগুলো। ডিএসইতে তালিকাভুক্ত ৩১টি ব্যাংকের মধ্যে ২৮টির শেয়ার দাম বেড়েছে।

বিপরীতে দু’টির শেয়ার দাম কমেছে। আর একটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। অপরদিকে বীমা খাতে তালিকাভুক্ত ৫০টি কোম্পানির মধ্যে ৪২টির শেয়ার দাম বেড়েছ। বিপরীতে দাম কমেছে ৬টির। আর দু’টির শেয়ার দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

ব্যাংক ও বীমা কোম্পানিগুলোর এই দাপটের মধ্যে ডিএসইতে সব খাত মিলে দিনভর লেনদেনে অংশ নেয়া ১৬৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৫০টির এবং ৪৬টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এদিকে দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ৮২০ কোটি ৭ লাখ টাকা। সেই হিসেবে লেনেদেন বেড়েছে ১৮৮ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৪১ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৫৩ কোটি ৮ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৪৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এনআরবিসি ব্যাংক।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- প্রাইম ব্যাংক, গ্রীণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস, সাইফ পাওয়ার, কনফিডেন্স সিমেন্ট, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স এবং ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ১৩৪ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৪৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৯৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৪৬টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১১৯টির এবং ২৯টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

যাযাদি/এসআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে