টানা দ্বিতীয় দিন পুঁজিবাজারে পতন

টানা দ্বিতীয় দিন পুঁজিবাজারে পতন

ঈদুল আজহা পরবর্তী তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবারও (২৭ জুলাই) সূচক ও বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমার মধ্য দিয়ে দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে। এর ফলে রোববার (২৫ জুলাই) সূচক বৃদ্ধির পর সোম ও মঙ্গলবার টানা দুদিন উভয় বাজারে পতন হলো।

আগের কার্যদিবসের মতো এদিন সকাল ১০টায় কিছুটা শেয়ার বিক্রির চাপের মধ্য দিয়ে দিনের লেনদেন শুরু হয়। যা অব্যাহত ছিল বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। এরপর ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ওষুধ ও রসায়ন এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়ায় দিনের বাকি সময় লেনদেন হয় সূচকের নিন্মমুখী প্রবণতায়।

দিন শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ২৪ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমেছে ৮৪ পয়েন্ট। সূচকের পাশাপাশি বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দামও কমেছে।

তবে বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পুঁজিবাজারে এখনো প্রফিট টেকিং হচ্ছে। এটা দরপতন না। কারণ সোমবার দাম কমার পর মঙ্গলবার বস্ত্র ও বিমা খাতের প্রায় সব কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। আর তাতে বড় দরপতন থেকে রক্ষা পেয়েছে পুঁজিবাজার।

এদিন বস্ত্র খাতের ৫৮টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৪০টির, কমেছে ১১টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ৭টির। একইভাবে বিমা খাতের ৫১টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৩৮টির, কমেছে ১২টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে একটি কোম্পানির শেয়ারের। ফলে এই দুই খাত আজ সূচকের বৃদ্ধিতে বড় অবদান রেখেছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, মঙ্গলবার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২৪ দশমিক ৩৫ পয়েন্ট কমে ছয় হাজার ৩৭৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি শরিয়াহ্ সূচক দুই পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৩ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট কমেছে।

এদিন ডিএসইতে মোট ৩৭৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের মোট এক হাজার ৪৬২ কোটি ৮১ লাখ ৯ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ৩৫৪ কোটি ৭০ লাখ ২ টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৫৩টির, কমেছে ১৯৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির। বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমায় এদিন ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে শীর্ষে ছিল সাইফ পাওয়ার লিমিটেড। এরপর ক্রমান্বয়ে ছিল বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার, বেক্সিমকো লিমিটেড, জিপিএইচ ইস্পাত, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো, এনআরবিসি ব্যাংক, ফুয়াং ফুড, অ্যাকটিভ ফাইন, জেনারেশন নেক্সট এবং ওরিয়ন ফার্মাসিটিউক্যালস লিমিটেড।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৮৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৫৩২ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে ৩০৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ১৬৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টি। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪৬ কোটি ৪৯ লাখ ১ হাজার ৭৩৫ টাকা।

যাযাদি/এসআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে