সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭

ঋদ্ধিমানের তুলনীয় কেউ নেই : পার্থিব

ঋদ্ধিমানের তুলনীয় কেউ নেই : পার্থিব

পার্থিব প্যাটেল নিজেও একটা সময় ছিলেন ভারতের প্রথম পছন্দের উইকেটরক্ষক। দেশের হয়ে খেলেছেন ২৫ টেস্ট, ৩৮ ওয়ানডে ও ২ টি২০। তবে আপাতত তিনি জাতীয় দলের ধারে কাছে নেই। লড়াইটা এখন ঋদ্ধিমান, রাহুল, ্্্ঋষভ পান্তদের। আর তাইতো টেস্টে ভারতের উইকেটরক্ষক হিসেবে ঋদ্ধিমান সাহার সঙ্গে তুলনায় আসার মতো কাউকে দেখেন না পার্থিব প্যাটেল। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অবশ্য লোকেশ রাহুলকেই উপযুক্ত মানছেন পার্থিব।

অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারতের টেস্ট স্কোয়াডে আছেন তিনজনই। রাহুলকে অবশ্য টেস্টে কিপার নয়, স্রেফ ব্যাটসম্যান হিসেবেই বিবেচনা করা হয়। সাদা পোশাকে সাধারণত দেশের মাটিতে ভারতের প্রথম পছন্দ ঋদ্ধিমান, তার কিপিং দক্ষতার জন্য। যেহেতু টার্নিং ট্র্যাকে কিপিং অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং। দেশের বাইরে দলের প্রথম পছন্দ পান্ত, মূলত উইকেটকিপিংয়ের চেয়ে বেশি আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের কারণেই। অস্ট্রেলিয়ায় সবশেষ সফরে দেড়শ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছেন তিনি, সেঞ্চুরি করেছেন ইংল্যান্ডেও।

দেশে হোক বা বাইরে, টেস্টে উইকেটের পেছনে তিনি দেখতে চান ঋদ্ধিমানকে। আর তাই একটি ক্রিকেট ওয়েবসাইটের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে পার্থিব বললেন, ‘আমি সবসময়ই বলে আসছি, টেস্ট ক্রিকেটে সাহা (ঋদ্ধিমান) আমাদের সেরা উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। তার সঙ্গে কারও তুলনাই হয় না। যতদিন সে আছে, টেস্টে ভারতের হয়ে কিপিং করা উচিত তারই। সেটা দেশে হোক বা দেশের বাইরে, ফিট থাকলে সাহাকেই বেছে নেওয়া উচিত।’

ব্যাটিং সামর্থ্যে এই তিন জনের মধ্যে এগিয়ে রাহুল। ধোনির অবসরের পর সীমিত ওভারে রাহুলকেই বেশি দেখা যাচ্ছে উইকেটের পেছনে। তবে টেস্টে ৩৬ ম্যাচ খেললেও কখনো কিপিং করেননি তিনি। টেস্টেও তাকে কিপিং করানো যায় কিনা, এই আলোচনা এসেছে নানা সময়ে।

তবে পার্থিবের ঠিক মনে ধরছে না এই ভাবনা, ‘এটা কঠিন সিদ্ধান্ত। রাহুলের কিপিংও দারুণ, কোনো সন্দেহ নেই। তবে টেস্ট ক্রিকেট পুরোপুরি আলাদা। আগে তাকে চার দিনের ম্যাচে (প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে) কিপিং করা শুরু করতে হবে। কাজটি খুব সহজ নয়। রাহুলকে সব সংস্করণেই দায়িত্ব দেওয়ার আগে অনেক ভাবতে হবে। আপাতত ওয়ানডে, টি২০তে অবশ্যই রাহুল ঠিক আছে।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে