নেইমার নৈপুণ্যে উরুগুয়েকে বিধ্বস্ত করলো ব্রাজিল

নেইমার নৈপুণ্যে উরুগুয়েকে বিধ্বস্ত করলো ব্রাজিল

গোল করলেন, করালেন আর অসংখ্য সুযোগ তৈরি করলেন নেইমার। এই তারকা ফরোয়ার্ডের হাত ধরে ছন্দে ফিরল ব্রাজিল। উরুগুয়েকে উড়িয়ে দিয়ে কাতার বিশ্বকাপের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল তিতের দল।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার সকালে ৪-১ গোলে জিতেছে ব্রাজিল। নেইমার দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর জোড়া গোল করেন তরুণ উইঙ্গার রাফিনিয়া। শেষ দিকে জালের দেখা পান গাব্রিয়েল বারবোসা। উরুগুয়ের একমাত্র গোলটি করেন লুইস সুয়ারেস।

কলম্বিয়ার বিপক্ষে আগের ম্যাচে পয়েন্ট হারানো ব্রাজিলের আগুনে যেন পুড়ল উরুগুয়ে। গত রাউন্ডে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরে আসা দলটি প্রায় পুরো ম্যাচেই ব্যস্ত ছিল রক্ষণ সামলাতে। ৫৫ শতাংশ সময় বল দখলে রাখা ব্রাজিল গোলের জন্য শট নেয় ২২টি, এর ১৩টি ছিল লক্ষ্যে। উরুগুয়ের পাঁচ শটের কেবল তিনটি ছিল লক্ষ্যে।

ঘরের মাঠে নেইমারের নৈপুণ্যে দশম মিনিটে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। ফ্রেদের বাড়ানো বল সঙ্গে লেগে থাকা দুই খেলোয়াড়কে এড়িয়ে ডি বক্সে নিয়ন্ত্রণে নেন এই পিএসজি ফরোয়ার্ড। বাধা দিতে ছুটে আসা উরুগুয়ে গোলরক্ষক ফের্নান্দো মুসলেরাকে এড়িয়ে আরেকটু এগিয়ে যান। বিপদ দেখে সফরকারীদের দুই খেলোয়াড় দাঁড়ান গোললাইনে। তবুও জাল খুঁজে নিতে কোনো সমস্যা হয়নি নেইমারের।

আট মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে ব্রাজিল। আবার ডি-বক্সে বল পেয়ে যান নেইমার। তার বাঁকানো শট কোনোমতে ঠেকান মুসলেরা, কিন্তু তাতে বিপদ কাটেনি। দূরের পোস্টে ছুটে গিয়ে বল জালে পাঠান রাফিনিয়া। ২-০ গোলে এগিয়ে গিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ হাতে নেয় ব্রাজিল। তাদের আক্রমণের ঝাপটা সামলে গোলের তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না উরুগুয়ে। ৩৬তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে ব্যবধান কমানোর চেষ্টা করেন রদ্রিগো বেন্তানকুর। বল একটুর জন্য লক্ষ্যে থাকেনি।

তিন মিনিট পর ব্যবধান বাড়তে দেননি মুসলেরা। পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে নেইমারের হাফ ভলি ঠেকিয়ে দেন তিনি। পরের মিনিটে কাছের পোস্টে থামান ফাবিনিয়োর শট।

৪৪তম মিনিটে মাতিয়াস ভেসিনোর দুর্বল হেড যায় সরাসরি এদেরসনের হাতে। প্রথমার্ধে গোলের এই একটি চেষ্টাই কেবল লক্ষ্যে রাখতে পারে উরুগুয়ে। যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে ডি-বক্সের মাথা থেকে গাব্রিয়েল জেসুসের বাঁকানো শট পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধে প্রথম সুযোগটা পায় উরুগুয়ে। ফেদেরিকো ভালভেরদের শট ঝাঁপিয়ে ফেরান এদেরসন। ৫১তম মিনিটে মুসলেরার দৃঢ়তায় ব্যবধান বাড়াতে পারেনি ব্রাজিল। জেসুসের পর রাফিনিয়ার শটও ঠেকান সফরকারী গোলরক্ষক।

তবে বেশিক্ষণ ঠেকিয়ে রাখতে পারেননি তিনি। ৫৮তম মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে তৃতীয় গোলটি পেয়ে যায় ব্রাজিল। নেইমারের বাড়ানো বল ধরে দুটি স্পর্শে কোনাকুনি শট নেন রাফিনিয়া। কিছুই করার ছিল না মুসলেরার। পোস্টে লেগে বল যায় জালে। সাত মিনিট পর পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে গাবিয়েল বারবোসার শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান মুসলেরা। ৭৪তম মিনিটে আবার তিনি হতাশ করেন বারবোসাকে।

৭৭তম মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে ব্যবধান কমান সুয়ারেস। চমৎকার ফ্রি কিকে জাল খুঁজে নেন এই আতলেতিকো মাদ্রিদ স্ট্রাইকার। চলতি আসরে এই প্রথম ঘরের মাঠে গোল হজম করল ব্রাজিল।

৮২তম মিনিটে বারবোসার গোলে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা প্রায় শেষ হয়ে যায় উরুগুয়ের। নেইমারের উঁচু করে বাড়ানো বল জালে পাঠান এই স্ট্রাইকার। অনেকটা মুসলেরা বরাবরই হেড করেন তিনি। কিন্তু তবুও ফেরাতে পারেননি গোলরক্ষক। শুরুতে অফসাইড দেওয়া হলেও ভিএআরের সাহায্য গোলের বাঁশি বাজান রেফারি।

১১ ম্যাচে ১০ জয় ও এক ড্রয়ে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে ব্রাজিল। সব পক্ষে থাকলে পরের ম্যাচেই নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের কাতারের টিকেট। সাত জয় ও চার ড্রয়ে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দুইয়ে আছে আর্জেন্টিনা।এক ম্যাচ বেশি খেলা একুয়েডর ১৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে। তাদের সমান ১২ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে কলম্বিয়া। সমান পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে উরুগুয়ে।

যাযাদি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে