আফগানিস্তানে সহিংসতা ক্রমশ বাড়ছে

আফগানিস্তানে সহিংসতা ক্রমশ বাড়ছে

দীর্ঘ দুই দশকের যুদ্ধ শেষে আফগানিস্তান থেকে সেনা সরাতে শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও সামরিক জোট ন্যাটো বাহিনী। অন্যদিকে, ওয়াশিংটনের এমন খবর প্রকাশের পর থেকেই দেশটিতে সহিংসতা ক্রমশ তীব্রতর হচ্ছে। এতে হতাহতদের অধিকাংশই আফগান সুরক্ষা বাহিনী ও বেসামরিক লোকজন। সর্বশেষ রাস্তার পাশে পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে একটি বাস উড়ে গিয়ে অন্তত ১৩ জন নিহত ও বহু আহত হয়েছেন। রোববার রাতে দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ জাবুলে ঘটনাটি ঘটেছে। এর আগে গত শনিবার দেশটির রাজধানী কাবুলে মেয়েদের একটি স্কুলে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৫ জন। এই হামলায় আরও ১৮৭ জন আহত হয়েছেন। সংবাদসূত্র : সিএনএন, বিবিসি, রয়টার্স, ইয়াহু নিউজ

সহিংসতা নিয়ে শনিবার আফগান সুরক্ষা বাহিনীর কর্মকর্তারা জানান, গত সপ্তাহে কমপক্ষে ছয়টি প্রদেশের কয়েকটি কৌশলগত অঞ্চল দখল করার চেষ্টা করেছিল তালেবান। তবে তাদের এই চেষ্টা রোধ করে দিয়েছে আফগান বাহিনী।

আফগান সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল ইয়াসিন জিয়া বলেন, গত চার মাসে কান্দাহার, হেলমান্দ, ফারাহ, হেরাত এবং বাগলান প্রদেশে আফগান সুরক্ষা বাহিনীর সঙ্গে বিভিন্ন বন্দুকযুদ্ধে এক হাজারের বেশি তালেবান জঙ্গি নিহত এবং অসংখ্য আহত হয়েছে। এছাড়া বিগত দিনে গজনি শহর, খাজা ওমারি, জাগাটো, ওয়াঘাজ এবং খোগিয়ানী জেলায়ও ব্যাপক সহিংসতা হয়েছে। এদিকে, বগলুনের স্থানীয় কর্মকর্তারা জানান, তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই করতে অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছে শতাধিক মানুষ।

আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তালেবান নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে তাদের সরাতে অভিযান চালানো হচ্ছে। মোট সাতটি প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ২৫০ তালেবান জঙ্গি নিহত হয়েছে। বিগত চার মাসে এ সংখ্যাটা হাজারের বেশি। অবশ্য এ প্রতিবেদনকে অস্বীকার করেছে তালেবান।

ক্রমবর্ধমান সহিংসতার মধ্যেই গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত জালময় খলিলজাদ বলেন, যদি শান্তি প্রক্রিয়ায় তালেবান রাজি না হয়, তাহলে আফগান বাহিনীর প্রতি মার্কিনিদের সমর্থন অব্যাহত থাকবে।

তবে সহিংসতা যে কমছে না, তা দুই দিনের হামলা থেকেই স্পষ্ট। শনিবার মেয়েদের স্কুলে যে হামলা হয়েছে, এর পেছনে তালেবানকে দায়ী করে সমালোচনা করেছেন আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। যদিও তালেবান মুখপাত্র জবিউলস্নাহ মুজাহিদ তাদের জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করে এই ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে