করোনা মহামারি

সারা বিশ্বে ডেল্টার ঢেউ ফিরছে বিধিনিষেধ

সারা বিশ্বে ডেল্টার ঢেউ ফিরছে বিধিনিষেধ

প্রতিনিয়ত রূপ বদলাচ্ছে করোনাভাইরাস। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি শুরু হয়েছিল এর যে ধরন (ভ্যারিয়েন্ট) দিয়ে, আজ এর চেয়েও বেশি ভয়ঙ্কর ধরন তান্ডব চালাচ্ছে বিশ্বজুড়ে। এর নাম 'ডেল্টা'। করোনার এই ধরনের হানায় নতুন করে সংক্রমণ বাড়ছে দেশে দেশে। ফলে দেশগুলোতে আবারও কঠোর বিধিনিষেধ জারি করতে হচ্ছে। এশিয়া থেকে আমেরিকা, ইউরোপ সর্বত্রই হানা দিচ্ছে ডেল্টা। সংবাদসূত্র : রয়টার্স

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বলছে, জাপানের টোকিওর পাশাপাশি থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়াতে শনিবার রেকর্ডসংখ্যক করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে, যার বেশিরভাগই ডেল্টায় আক্রান্ত।

করোনা রোগী বাড়ছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতেও। স্থানীয় সরকার শহরটিতে ২১০ জন নতুন রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছে। সেখানে সংক্রমণের গতি কমাতে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে আগস্টের শেষ পর্যন্ত। তবে এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন অনেকেই। শহরটিতে লকডাউন-বিরোধী বিক্ষোভ ঠেকাতে রাস্তায় বাড়তি পুলিশ নামানো হয়েছে। মোড়ে মোড়ে বসানো হয়েছে চেকপোস্ট, বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ট্রেন ও ট্যাক্সি চলাচল।

জাপানের টোকিও মেট্রোপলিটন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সেখানে প্রথমবারের মতো একদিনে পাওয়া নতুন রোগীর সংখ্যা চার হাজার পার হয়েছে। শুক্রবার শহরটিতে রেকর্ড চার হাজার ৫৮ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। রেকর্ড সংক্রমণের মাত্র একদিন আগেই টোকিওতে জরুরি অবস্থার মেয়াদ আগস্টের শেষ পর্যন্ত বাড়িয়েছে জাপান সরকার।

বিশ্বে এখন করোনা মহামারির অন্যতম 'হটস্পট' মালয়েশিয়া। দেশটিতে শনিবার রেকর্ড ১৭ হাজার ৭৮৬ জন নতুন করোনা রোগী পাওয়া গেছে। এদিন শতাধিক লোক রাজধানী কুয়ালালামপুরের কেন্দ্রে জড়ো হয়ে মহামারি নিয়ন্ত্রণে সরকারি উদ্যোগে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন এবং মালয়েশীয় প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

রেকর্ড রোগী শনাক্ত হয়েছে থাইল্যান্ডেও। এদিন দেশটিতে নতুন করে ১৮ হাজার ৯১২ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সেখানে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৯৭ হাজার ২৮৭ জন। এ ছাড়া মারা গেছেন আরও ১৭৮ জন, ফলে থাইল্যান্ডে করোনায় মৃতের মোট সংখ্যা চার হাজার ৮৫৭ জনে পৌঁছেছে।

থাই সরকার জানিয়েছে, দেশজুড়ে নতুন করোনা রোগীদের ৬০ শতাংশ এবং রাজধানী ব্যাংককের ৮০ শতাংশ রোগীর অসুস্থতার জন্য ডেল্টা ধরন দায়ী। ডেল্টার বিরুদ্ধে লড়তে হচ্ছে চীনকেও। দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় নানজিং শহরে এক বিমানবন্দর কর্মীর মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে অতিসংক্রামক ধরনটি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা শুক্রবার বলেছে, গত চার সপ্তাহে বিশ্বের বেশিরভাগ অঞ্চলে করোনা সংক্রমণের হার ৮০ শতাংশ বেড়েছে। সংস্থাটির মতে, 'আমাদের কষ্টার্জিত অজর্নগুলো ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বা হারিয়ে যাচ্ছে। অনেক দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা ভেঙে পড়তে বসেছে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে