রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ৯ মাঘ ১৪২৭

করোনার বিস্তার

মৃতু্যপুরী স্পেনে এক দিনেই ঝরল ৯৫০ প্রাণ

ইতালিতে লকডাউনের সময় বেড়েছে
মৃতু্যপুরী স্পেনে এক দিনেই ঝরল ৯৫০ প্রাণ
স্পেনে একজনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে

প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক বিধিনিষেধ আরোপ করা হলেও স্পেনে লাগামহীন হয়ে উঠেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় স্পেনে নতুন করে আরও ৯৫০ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা। এছাড়া নতুন আক্রান্ত হয়েছে আরও ৮ হাজারের বেশি মানুষ। সংবাদসূত্র : এএফপি নতুন করে ৯৫০ জনের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটায় দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে ইতালির পর করোনার ভয়াবহ প্রকোপের মুখোমুখি হয়েছে স্পেন। দেশটিতে করোনার বিস্তার ঠেকাতে বিভিন্ন ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হলেও তা সফল হচ্ছে না। করোনায় আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ায় দেশটির স্বাস্থ্যসেবা খাত প্রায় ভেঙে পড়েছে। হাসপাতালে আইসিইউ সংকটের কারণে অনেক রোগী যথাযথ চিকিৎসা ছাড়াই এই ভাইরাসের কাছে হার মানছে। বুধবার দেশটিতে সাত হাজার ৭১৯ জন করোনায় আক্রান্ত হলেও গত ২৪ ঘণ্টায় সেই সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে; নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৮ হাজার ১০২ জন। এ নিয়ে ইউরোপের এই দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১০ হাজার ২৩৮ জনে। ইউরোপের আরেক দেশ ইতালিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। স্পেনের সরকার করোনা পরিস্থিতি শিগগিরই নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে যে আশার বাণী শুনিয়েছিল, বৃহস্পতিবারের সংক্রমণ এবং প্রাণহানির তথ্য সেই আশায় চিড় ধরিয়েছে। এক দিন আগেই দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সালভাদর ইলা বলেছিলেন, 'পরিস্থিতি স্থিতিশীলতার দিকে যাচ্ছে এবং আমরা করোনার একটি ধীরগতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।' করোনার বিস্তার ঠেকাতে স্পেনে গত ১৪ মার্চ জরুরি অবস্থা জারির পাশাপাশি নিত্যপ্রয়োজনীয় খাবার ও ওষুধের দোকান ছাড়া অন্য সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয় বলছে, করোনা পরিস্থিতির কারণে শুধু মার্চেই দেশটিতে তিন লাখের বেশি মানুষ বেকার হয়ে পড়েছে। ইতালিতে লকডাউনের সময় বেড়েছে এদিকে, করোনার বিপর্যয়ে ইতালিতে লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। ৩ এপ্রিল থেকে বাড়িয়ে আগামী ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত ঘোষণা দেওয়া হয়। বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ কন্তে জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে এই সময়সীমা বাড়ানো হয়। এর আগে ৩ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। অবস্থা অবনতির দিকে যাওয়ায় সরকার এ সিদ্ধান্ত নিলেন। এতে বলা হয়, ৩ এপ্রিল পর্যন্ত সকল স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয়সহ অত্যাবশকীয় প্রতিষ্ঠান ছাড়া সবই বন্ধ রাখার নির্দেশ ছিল। তবে করোনাভাইরাসের তান্ডবের ফলে আরও ১০ দিনের লকডাউনে বাড়ানো হলো দেশটিতে। অন্যদিকে, সময় বৃদ্ধির ফলে ইতালি অর্থনৈতিক সমস্যায় পড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে শিশুদের জন্য নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হয়। শিশুরা বাসার বাইরে যেতে চাইলে পরিবারের যেকোনো একজন বাবা নয়তো মা বাসা থেকে শিশুকে নিয়ে বাইরে যেতে পারবে। তবে শর্ত, পার্কে যাওয়াসহ ও অন্য কারও সঙ্গে মিশতে পারবে না। বুধবার দেশটিতে ৭২৭ জনের প্রাণ কেড়ে নেয় কোভিড-১৯। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ১৩ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখের বেশি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে