logo
রবিবার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৬

  বিনোদন ডেস্ক   ০২ জুন ২০২০, ০০:০০  

লাইকের বন্যায় টেইলরের ট্রাম্পবিরোধী পোস্ট

লাইকের বন্যায় টেইলরের ট্রাম্পবিরোধী পোস্ট
টেইলর সুইফট
পুলিশি নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃতু্যর কারণে মিনেপোলিসে যে বিক্ষোভ সংঘটিত হচ্ছে, তার প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি একটি টুইট পোস্ট করেছেন। অসংবেদনশীল এ টুইটে তিনি লিখেছেন 'এ গুন্ডাগুলো জর্জ ফ্লয়েডের স্মৃতিকে অসম্মান করছে এবং আমি তা হতে দেব না। গভর্নর টিম ওয়ালজের সঙ্গে কথা বলেছি এবং তাকে বলেছি যে সামরিক বাহিনী তার সঙ্গে রয়েছে। কোনো সমস্যা হলে এবং আমরা তা নিয়ন্ত্রণ করব। কিন্তু যখন লুটপাট শুরু হয়, তখন শুটিংও শুরু হবে। ধন্যবাদ!'

ট্রাম্পের এই টুইট অনেকেই হজম করতে পারেননি। যারা প্রেসিডেন্টের এ মন্ত্যব্যের নিন্দা জানিয়েছেন তাদের মধ্যে গায়িকা টেইলর সুইফটও একজন। ৩০ বছর বয়সী এ গায়িকা ট্রাম্পের করা টুইটের জবাবে লিখেছেন 'আপনার শাসনামলের পুরো সময়জুড়ে শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদ ও বর্ণবাদের আগুন ছড়ানোর পরে এখনো নৈতিকভাবে উন্নত বলার সাহস আছে আপনার! লুটপাট শুরু হলে, শুটিং শুরু হবে? আমরা নভেম্বরে আপনাকে ভোট দিয়ে পদচু্যত করব।'

পোস্ট করার মাত্র ৫ ঘণ্টার মধ্যেই টেইলর সুইফটের টুইটটিতে ১০ লাখের বেশি লাইক পড়েছে এবং এখনো লাইকের সংখ্যা বাড়ছে। এটি টেইলর সুইফটের সবচেয়ে বেশি লাইক পাওয়া টুইট। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সুইফটের দেওয়া পোস্টের প্রশংসা করছেন নেটিজেনরা। সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি এ গায়িকা করেছেন বলেও মত দিয়েছেন তারা। সুইফট এর আগেও ট্রাম্পের বিভিন্ন সিদ্ধান্তের বিপরীতে তার অবস্থানের কথা জানান দিয়েছেন।

\হপ্রেসিডেন্টের টুইট শুক্রবার সকালে নতুন করে পোস্ট করা হয়েছিল হোয়াইট হাউসের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে। সেখানেও একই বার্তা সেঁটেছে টুইটার। বিতর্কিত টুইটটি যাতে বেশি সংখ্যায় মানুষের কাছে পৌঁছতে না পারে, সেই ব্যবস্থাও নিচ্ছে টুইটার। কোনও দেশের রাষ্ট্রপ্রধানের ক্ষেত্রে সম্ভবত এমন নজির নেই। এদিকে, হিংসার খবর সংগ্রহে গেলে গ্রেপ্তার করা হয় সিএনএন-এর কৃষ্ণাঙ্গ সাংবাদিককে। তাতে মানুষের ক্ষোভ আরও বেড়ে গেছে। প্রেসিডেন্ট এবং প্রশাসনের এমন আচরণের বিরুদ্ধে সরব প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের ডেমোক্র্যাট প্রতিপক্ষ জো বাইডেন। যে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারের হাঁটুর চাপে প্রাণ গেল কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির, তিনি বাইরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। অথচ কাজ করতে গিয়ে কৃষ্ণাঙ্গ সাংবাদিক কেন গ্রেপ্তার হলেন, প্রশ্ন বাইডেনের। এদিকে প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেছেন, বর্ণবিদ্বেষ ২০২০-র আমেরিকায় স্বাভাবিক ঘটনা হতে পারে না।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে