logo
রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৫ আশ্বিন ১৪২৭

  বিনোদন রিপোর্ট   ০৮ আগস্ট ২০২০, ০০:০০  

মহামারির গল্পে অর্ধশতাধিক নাটক

মহামারির গল্পে অর্ধশতাধিক নাটক
'ভুল এই শহরে মধ্যবিত্তদেরই ছিল' নাটকের দৃশ্যে তানজিন তিশা ও আফরান নিশো
করোনা মহামারিতে যাপিত জীবনের আমূল পরিবর্তন হয়েছে। বদলে গেছে কাজ-কর্ম। কমে গেছে আয়-রোজগার, চাকরি হারিয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। অনেকটা বাধ্য হয়েই ঘর-সংসার গুটিয়ে শহর ছাড়ছেন তারা। কেউ আবার এরই মধ্যে খুইয়েছেন সহায়-সম্বলও। মহামারিকালীন এমন সব জীবন ঘনিষ্ঠ গল্প নিয়ে এবারের ঈদে প্রচার হয়েছে অর্ধশতাধিক নাটক।

'ভুল এই শহরে মধ্যবিত্তদেরই ছিল' তেমনই একটি নাটক। মধ্যবিত্তদের শহর ছাড়ার বাস্তব ঘটনা নিয়েই নাটকটি নির্মাণ করেছেন মাহমুদুর রহমান হিমি। সিএমভির ব্যানারে নির্মিত এর প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো ও তানজিন তিশা। আবেগী আর করুণ একটা সংসারের গল্পে সাজানো এই নাটকটি রচনা ও নির্মাণ করেছেন হিমি। এ সম্পর্কে এর নির্মাতা মাহমুদুর রহমান হিমি বলেন, 'ঈদের কয়েকদিন আগে দেশের একটি শীর্ষ দৈনিকের ব্যাকপেজে বড় একটি ছবি চোখে পড়ে আমার। যেখানে দেখা গেছে, একটি ছোট পিকআপের পেছনে কিছু আসবাবপত্র নিয়ে বসে আছে ছোট্ট একটা বাচ্চা ও তার বাবা-মা। খবরটা হলো, এই ছোট পরিবারটি শহরে টিকতে না পেরে ফিরে যাচ্ছে গ্রামে। ঘটনাটি আমাকে নাড়া দেয়। এরপর দ্রম্নত সময়ের মধ্যে সেই ছবি আর খবরের সূত্র ধরে একটি গল্প দাঁড় করাই। এমনকি নাটকের দৃশ্যে ঠিক একই ছবির মতো দৃশ্য তৈরির চেষ্টা করি।'

শহর ছেড়ে এক গার্মেন্টকর্মীর গ্রামে ফেরা এবং গ্রামীণ রাজনীতির কবলে পড়ে কোয়ারেন্টিনবাসের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে 'পতঙ্গশিকারি ফুল'। এতে অভিনয়ের পাশাপাশি যুগ্ম পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন মনোজ প্রামাণিক। আরও অভিনয় করেছেন বর্ণা পোদ্দার, হুমায়রা স্নিগ্ধা, ইয়ামিন, জিত প্রমুখ।

এ বিষয় মনোজ প্রামাণিক বলেন, 'আমি তো দুই বছর ধরে অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সঙ্গে সহকারী হিসেবে কাজ করছি। সেটা শখের বশে বলা যেতে পারে। তবে নূরুল আলম আতিকের সঙ্গে পরিচালক হওয়াটা একেবারেই সময়ের দাবিতে, প্রয়োজনে।'

দাপুটে স্বভাবের আরিফের স্ত্রী রোদেলা। স্বামী আরিফ ব্যবসার কাজ শেষ করে ঢাকা থেকে ফিরেই পড়ে স্ত্রীর সামনে। শুরু হয় শাসন। করোনায় সচেতন থাকার উপদেশ দেয় তাকে। রোদেলা আরিফকে জানিয়ে দেয় আগামী ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। যেমন কথা তেমন কাজ। ঘরবন্দি হয় আরিফ, বাড়ি যেন হাসপাতাল। রোদেলাও কাছে আসে না। দরজার বাইরে থেকে কথা হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সবকিছু। ঘরবন্দি থেকে আরিফ পাগলের মতো হয়ে যায়। রোদেলা কাজে ব্যস্ত থাকলে চুরি করে বাইরে বের হয়ে কাজের লোকদের সঙ্গে কথা বলে আরিফ। বারবার রোদেলার কাছে ধরা পড়ে। এমনই গল্পে নির্মিত হয়েছে নাটক 'কথা শুনতে হবে'। এস এ হক অলিকের রচনা ও পরিচালনায় নির্মিত নাটকটিতে অভিনয় করেছেন তৌকীর আহমেদ, তারিন, ম আ সালাম, আকাশ আহমেদ, স্মরণ সাহা, লুবনা প্রমুখ। নাটকটিতে আরিফের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তৌকীর আহমেদ ও রোদেলার চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারিন। দীর্ঘদিন পর তৌকীর আহমেদ ও তারিন জুটির এই নাটকটি ঈদ আয়োজনে বেশ আলোচিত হয়েছে।

ঈদুল আজহায় প্রচারিত আরেকটি বিশেষ নাটক ছিল 'মাস্ক'। নাটকটি পরিচালনা করেছেন কাজল আরেফিন অমি এবং প্রযোজনা করেছেন মাসুদুল হাসান। প্রচারের পর থেকেই নেটিজেনদের মধ্যে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয় 'মাস্ক'। মাত্র ২৪ ঘণ্টায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষ দেখে নাটকটি। যা এখন পর্যন্ত ঈদে প্রকাশিত নাটকগুলোর মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছে ভিউয়ের তালিকায়। এতে অভিনয় করেছেন মারজুক রাসেল, তাসনিয়া ফারিন, চাষী আলম, মুকিত জাকারিয়া, জিয়াউল হক পলাশ, মুসাফির প্রমুখ। এ বিষয় নির্মাতা কাজল আরেফিন অমি বলেন, আমি সব সময় দর্শকদের বিনোদন দিতে চাই কাজের মাধ্যমে। সারাদিনের শত ব্যস্ততা শেষে কেউ যদি আমার নাটক দেখে একটু বিনোদিত হয়, একজন নির্মাতা হিসেবে এতটুকুই আমার স্বার্থকতা। 'মাস্ক' নাটকের গল্পটা একটু ডার্ক কমেডি ধাঁচের, নাটকটি প্রকাশের পর দর্শকদের কাছ থেকে অনেক সাড়া পাচ্ছি।

করোনা মহামারিতে সাধারণ মানুষ সবচেয়ে বেশি বিকিকিনি করেছে অনলাইন থেকে। আর সেই কাহিনিই উঠে এসেছে তরুণ নির্মাতা সাখাওয়াৎ মানিকের 'অনলাইন শপিং' নাটকে। পরিচালক জানান, 'নাটকের গল্পে দেখা যাবে লাকির প্রেমিকা অহনা হলো শপিং পাগল। আগে লাকির সঙ্গে ঘুরে ঘুরে সে শপিং করতো। কিন্তু এখন অনলাইন শপিংয়ের বিভিন্ন অফারে অহনা সারাদিন বাসাতেই বিজি থাকে। ফলে লাকির প্রেমের জীবন হয়ে ওঠে অসহ্য। একদিন অহনার কাছে ভুল করে ডেলিভারি আসে একটি বন্দুক। এরপর এই বন্দুকটি নিয়ে শুরু হয় লাকি আর অহনার মজার অ্যাডভেঞ্চার।

'অনলাইন শপিং' নামের এই নাটকটি রচনা করেছেন মুনতাহা বৃত্তা। এতে মূল দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিশু সাব্বির ও হিমি। এছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মাসুম বাসার, হোসেন সাইদ, আলম সোহাগ, মিম, দুর্জয় এবং আরও অনেকে। পরিচালক সাখাওয়াৎ মানিক নাটকটি প্রসঙ্গে বলেন, থিম নির্ভর এই নাটকটি অনেক যত্ন সহকারে নির্মাণ করেছেন তিনি। মূলত নাটকটি কমেডি নির্ভর হলেও, শেষে কী হবে জানার জন্য দর্শক সব সময় একটা রোমাঞ্চ অনুভব করবেন। এছাড়াও এবার ঈদে তাহসান খান ও সাফা কবির, তৌসিফ মাহবুব ও তাসনিয়া ফারিন, জোভান ও সাবিলা নুরকে দেখা গেছে করোনা সংকট নিয়ে নির্মিত নাটকগুলোতে অভিনয় করতে। দর্শকও এসব নাটক ইতিবাচকভাবেই গ্রহণ করেছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে