অবশেষে চূড়ান্ত প্রস্তুতি বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের

অবশেষে চূড়ান্ত প্রস্তুতি বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বহু প্রতীক্ষা, অনেক নাটকীয়তা ও নানা প্রতিকূলতার পর অবশেষে আলোর মুখ দেখতে চলেছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক। 'বঙ্গবন্ধু' শিরোনামের এই বহুল আলোচিত চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করছেন ভারতের কিংবদন্তি নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। গত বছরের প্রথমদিকে এ বায়োপিকের শুটিং শুরু হওয়ার কথা থাকলেও শিল্পী নির্বাচন ও করোনা পরিস্থিতির কারণে সম্ভব হয়নি। দীর্ঘ প্রায় এক বছর পর আগামী ২৫ জানুয়ারি থেকে ভারতের মুম্বাইয়ে শুরু হবে এ চলচ্চিত্রের প্রথম লটের শুটিং। ১০ এপ্রিল পর্যন্ত টানা দৃশ্যায়নের পর কিছুদিনের বিরতি নিয়ে শুরু হবে দ্বিতীয় লটের শুটিং। এ চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন দেশের একঝাঁক তারকা। এর মধ্যে বঙ্গবন্ধু চরিত্রে অভিনয় করবেন আরিফিন শুভ, শেখ হাসিনার ছোটবেলার চরিত্রে নুসরাত ফারিয়া, বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের চরিত্রে অভিনয় করবেন নুসরাত ইমরোজ তিশা, তাজউদ্দীন আহমদের চরিত্রে ফেরদৌস আহমেদ। বিভিন্ন চরিত্রে আরও দেখা যাবে তৌকীর আহমেদ, ফজলুর রহমান বাবু, তুষার খান, দিলারা জামান, সিয়াম আহমেদসহ শতাধিক শিল্পীকে।

শুটিংয়ে অংশ নিতে গতকাল মঙ্গলবার ভারতের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়েন এ চলচ্চিত্রের শিল্পীদের একটি অংশ। ২০-২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত সেখানে তাদের কর্মশালা করা হবে বলে জানা গেছে। এ চলচ্চিত্রে অংশ নিতে ফেব্রম্নয়ারিতে যাবেন আরও কয়েকজন শিল্পী। ভারতে যাওয়ার আগে ৯ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন এ চলচ্চিত্রের কয়েকজন তারকা। প্রধানমন্ত্রীই তাদের আমন্ত্রণ করেছিলেন। দিয়েছেন পরামর্শ। সেখানে ছিলেন আরিফিন, নুসরাত ইমরোজ তিশা, নুসরাত ফারিয়া, দিঘী, দিব্য জ্যোতি, হিমিসহ আরও অনেকেই। আরিফিন শুভ বলেন, 'ছবিটির শুটিং শুরুর আগে বঙ্গবন্ধুকন্যা আমাদের ডেকেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নয়, বঙ্গবন্ধুকন্যা হিসেবে শেখ হাসিনা আমাদের সঙ্গে দেখা করেছেন, কথা বলেছেন। তার বাবা সম্পর্কে বলেছেন। আমরা বেশ কয়েক ঘণ্টা সেখানে ছিলাম। শেখ রেহানা আপাও ছিলেন।'

বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের শুটিংয়ের জন্য বিভিন্ন চরিত্রের তারকারা যখন প্রস্তুতি নিচ্ছেন ঠিক তখনই নির্বাচিত একাধিক অভিনয়শিল্পী এই চলচ্চিত্র থেকে বাদ পড়েছেন। অডিশন দিয়ে নির্বাচিত হওয়ার পরেও কোনো কারণ ছাড়া এই প্রজেক্টে যুক্ত হতে না পারায় ক্ষোভ ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাদ পড়া শিল্পীরা। অডিশনের পর জান্নাতুল সুমাইয়া হিমিকে শেখ হাসিনা চরিত্রের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কখন তাকে বাদ দেওয়া হয়েছে তিনি নিজেই জানতে পারেননি। যার কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করে ১৭ জানুয়ারি দিবাগত রাতে ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এ তথ্য নিশ্চিত করে হিমি লিখেছেন, 'খুবই দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি যে, আমি আর বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক প্রজেক্টের সঙ্গে সংযুক্ত নেই। অডিশন দেয়ার পরে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বড় বেলার চরিত্রে অভিনয় করার জন্য নির্বাচিত হয়েছিলাম। এত বড় একটি চরিত্রে অভিনয় করা সব অভিনেত্রীরই স্বপ্ন। স্বপ্ন যে এক মুহূর্তের মধ্যে ধুলিস্যাৎ হয়ে যাবে সেটা অকল্পনীয় ছিল।' হিমির পরিবর্তে এ চরিত্রে কাকে নেওয়া হচ্ছে সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ বিষয়ে 'বঙ্গবন্ধু' চলচ্চিত্রের বাংলাদেশ অংশের লাইন প্রডিউসার মোহাম্মদ হোসেন জেমী বলেন, 'আমি ২০২০ সালের নভেম্বর থেকে এ সিনেমার সঙ্গে যুক্ত হয়েছি। তখন থেকে এখন পর্যন্ত আমি হিমির নামটা দেখিনি। তাই তাকে বাদ দেওয়া হয়েছে বলাটা কতটুকু যৌক্তিক হবে আমি জানি না। এ বিষয়ে আমি কিছু বলতেও পারছি না।' এর আগে বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামালের চরিত্র থেকে বাদ পড়েন অভিনেতা রওনক হাসান। তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে তার নামও ঘোষণা করা হয়েছিল। নেওয়া হয়েছিল তার চরিত্রের প্রয়োজনে পোশাকের মাপও। প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত এ অভিনেতাকে আনুষ্ঠানিক চুক্তির আগেই চলচ্চিত্রটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। রওনকের পরিবর্তে শেখ কামাল চরিত্রের জন্য বাছাই করা হয়েছে ভারতীয় অভিনেতা সোমনাথ চ্যাটার্জিকে। ১৮ জানুয়ারি গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করে মোহাম্মদ হোসেন জেমী বলেন, 'বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামালের চরিত্রটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এ সিনেমায়। এ চরিত্রে আমাদের প্রথম পছন্দ ছিলেন রওনক হাসান। চমৎকার একজন অভিনেতা। কিন্তু ছবিটির পরিচালক শ্যাম বেনেগাল চরিত্রটিতে রওনকের ব্যাপারে কিছু ত্রম্নটি পেয়েছেন। সেজন্য তার পরিবর্তে সোমনাথ চ্যাটার্জি নামের একজন ভারতীয় অভিনেতাকে নেওয়া হলো।'

১২ জানুয়ারি ফেসবুকে রওনক লিখেছেন, 'প্রতিদিনই কেউ না কেউ বঙ্গবন্ধু পুত্র শেখ কামাল ও আমার ছবি যোগ করে আমাকে ট্যাগ করছেন। সবার অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, আমি বায়োপিক 'বঙ্গবন্ধু'-তে শেখ কামাল চরিত্রে অভিনয় করছি না। একাধিক অডিশন, অতঃপর নির্বাচিত হবার ঘোষণা, পোশাকের মাপ দেওয়া, শিল্পী সম্মানী নির্ধারণ করা, শুটিং শিডিউল নির্ধারণ করার পর চুক্তি স্বাক্ষরের দিন আমি যখন মাঝপথে রাস্তায় তখন কর্তৃপক্ষ আমার চেয়ে বেটার অপশন খুঁজে পেয়েছেন।'

১৮০ মিনিটের চলচ্চিত্রে উঠে আসবে বঙ্গবন্ধুর জীবনসংগ্রাম। ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনার এ চলচ্চিত্রটির মূল বাজেট ধরা হয়েছে ৩৫ কোটি রুপি। বাংলাদেশের হিসাবে প্রায় ৪০ কোটি টাকা। আর এই ব্যয়ের ৬০ ভাগ বহন করবে বাংলাদেশ বাকি ৪০ ভাগ দেবে ভারত।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে