এই ঢাকা এই কলকাতা

এই ঢাকা এই কলকাতা
মিথিলা

দেশের আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী ও উপস্থাপক মিথিলা। এক সময় গানেও ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন তিনি। সংগীতশিল্পী তাহসানের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের পর বর্তমানে তিনি কলকাতার জনপ্রিয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জির সঙ্গে ঘর করছেন। বিয়ের এক বছর কেটে গেলেও এখনও আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে সৃজিত-মিথলা দম্পতি। কদিন পরপরই তারা দেশ ও দেশের বাইরে বেড়াতে গিয়ে সেখানকার বিভিন্ন ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে নেটিজেনদের মাতিয়ে রাখছেন। কিন্তু ঘোরাফেরা করলেও বিয়ের পর দুই বাংলায় কাজের পরিধিও বেশ মিথিলার। কাজ ও সংসারের সুবাধে মাঝে মাঝেই ঢাকা আসতে হচ্ছে তাকে। ফলে এই ঢাকা এই কলকাতা- বর্তমানে এভাবেই সময় কাটছে মিথিলার।

তবে এখন ঢাকাতেই বেশি সময় কাটবে তার- এমনটাই জানালেন তিনি। কারণ আগামী ঈদকে ঘিরে বেশকিছু নাটক/টেলিফিল্মে কাজ করবেন তিনি। আবু হায়াত মাহমুদের কয়েকটি নাটক, গৌতম কৈরীসহ আরও বেশ কয়েকজন পরিচালকের সঙ্গে কথা হয়েছে মিথিলার। তাদের ঈদ নাটকে অভিনয় করবেন মিথিলা। এরই মধ্যে মিথিলা একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, একটি ওয়েব সিরিজ এবং একটি খন্ডনাটকের কাজ শেষ করেছেন। তানিম রহমান অংশুর পরিচালনায় মিথিলা শেষ করেছেন 'মিয়াও' নামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের কাজ। তার আগে তিনি শেষ করেছেন তানিম নূর ও কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায়ের পরিচালনায় ওয়েব সিরিজ 'কন্ট্রাক্ট'র কাজ। গত দু'দিনে তিনি শেষ করেছেন প্রীতি দত্তের পরিচালনায় 'লাভার্স' নামের একটি খন্ডনাটকের কাজ। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে প্রীতি দত্তেরই পরিচালনায় মিথিলার আরও একটি নাটকে কাজ করার কথা রয়েছে বলে জানান প্রীতি দত্ত। মিথিলা জানান, এর আগে তানিম নূরের পরিচালনায় হৈচৈ'র জন্য 'একাত্তর' নামের একটি ওয়েব সিরিজে তিনি অভিনয় করেছিলেন। চলচ্চিত্র, ওয়েব সিরিজ এবং নাটকে কাজ করা প্রসঙ্গে মিথিলা বলেন, 'এখন আমাকে নিয়মিতই ঢাকাতে থাকতে হবে। কারণ সামনে ঈদের জন্য বেশকিছু কাজ করার চূড়ান্ত কথা হয়েছে। সেসব কাজ করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। কন্ট্রাক্ট-এ আমাকে একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে দেখা যাবে। এর আগে এই ধরনের চরিত্রে আমার কাজ করা হয়ে উঠেনি। তানিম নূর এবং কৃষ্ণেন্দু অনেক যত্ন করে কাজটি করেছে। আবার অংশুর নির্দেশনায় যে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করেছি সেখানে আমি একজন গর্ভবতী মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। যাকে ঘিরে অদ্ভুত সব ঘটনা ঘটতে থাকে। অংশুর কাজ সব সময়ই আমার ভীষণ ভালো লাগে। প্রীতি দত্তের সঙ্গে আমার কখনোই কাজ করা হয়ে ওঠেনি। যেহেতু আমাদের দেশে নারী নির্মাতার সংখ্যা একেবারেই কম, তাই আমারও ইচ্ছে হলো প্রীতির নির্দেশনায় কাজ করার। কারণ ইউটিউবে তার সঙ্গে কাজ করার আগে তার নির্মিত কয়েকটি কাজ দেখে আমার ভালো লেগেছে। প্রীতি অনেক যত্ন নিয়ে কাজ করে। আমার বিশ্বাস আগামীতেও প্রীতি অনেক ভালো করবে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে