ঈদের আগে মুক্তি পাচ্ছে না নতুন সিনেমা

ঈদের আগে মুক্তি পাচ্ছে না নতুন সিনেমা
'যৈবতী কন্যার মন' সিনেমার দৃশ্য

এমনিতেই বেশ কয়েক বছর ধরে সিনেমার ব্যবসা মন্দা। তাছাড়া রোজার সময় নতুন ছবির বদলে পুরনো সিনেমা প্রদর্শনের চল দীর্ঘদিনের। কিন্তু গত বছর করোনা প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ থাকার দরুন রোজার আগে ও পরে কোনো নতুন সিনেমা মুক্তি না পাওয়ায় অনেক সিনেমাই জমা পড়েছিল। গত বছরের শেষের দিকে সেসব জমা পড়া সিনেমার এক এক করে মুক্তির দিনক্ষণ ঘোষণা করেন নির্মাতাপক্ষ। সেই শিউিউল অনুযায়ীই চলছিল সবকিছু। এরইমধ্যে বেশকিছু সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। রোজার আগেই মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল আরও কয়েকটি সিনেমা। কিন্তু হঠাৎ করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ফের লকডাউনে গোটা দেশ। এই পরিস্থিতিতে অনেক কিছু বন্ধ হয়ে গেলেও সরকারি নির্দেশনা না আসায় এখনো খোলা রাখা হয়েছে দেশের সিনেমা হল। তবে সিনেমা হল খোলা থাকলেও দর্শকের অভাবে 'অঘোষিতভাবে' বন্ধ রয়েছে দেশের প্রায় সব প্রেক্ষাগৃহ। এই পরিস্থিতিতে প্রেক্ষাগৃহে নেই কোনো নতুন সিনেমা। মুক্তির তালিকায় থাকা ছবিগুলোও স্থগিত হয়ে গেছে। বৈশ্বিক পরিবেশ বিবেচনায় ও রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় আপাতত ঈদের আগে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে না নতুন সিনেমা। যদিও প্রতি বছরই রমজান মাসে নতুন কোনো ছবি মুক্তি দেওয়া হয় না। কেবলমাত্র সিনেমা হল সচল রাখতে পুরনো সিনেমা দিয়েই চলে সিনেমা হলে। তবে দর্শক শূন্যতায় পার হয় রমজানের একটি মাস। কিন্তু এবার রমজান শুরু হওয়ার দুই সপ্তাহ আগে থেকেই নতুন সিনেমা ও দর্শক সংকটে পড়েছে দেশের সিনেমা হলগুলো। মার্চ মাসে ৫টি নতুন সিনেমা মুক্তি পেলেও এপ্রিলের দুই শুক্রবারে মুক্তি পেয়েছে মাত্র একটি নতুন সিনেমা। চলতি মাসের প্রথম দুই সপ্তাহে মুক্তির তালিকায় থাকা সিনেমাগুলোও স্থগিত হয়েছে করোনার কারণে। সরকারি অনুদানে নির্মিত পরিচালক নার্গিস আক্তারের চলচ্চিত্র 'যৈবতী কন্যার মন' প্রথমে মুক্তির কথা ছিল ১৯ মার্চ। ওইদিন মুক্তি না পেয়ে পিছিয়ে যায় এ সিনেমা মুক্তি। এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে সিনেমাটির মুক্তির দিন ঠিক হয়। এ নিয়ে প্রচারণাও চলে বেশ। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে পরবর্তী আকর্ষণ যৈবতী কন্যার মন' বলে পোস্টারও সাটানো হয়। কিন্তু করোনার কারণে স্থগিত হয়ে যায় ছবিটির মুক্তি। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে মুক্তি পায় দীঘি ও শান্ত খান জুটির 'টুঙ্গি পাড়ার মিয়া ভাই'।

শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত এ ছবিটি দেশের ৫৪টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলেও করোনার কারনে দর্শক টানেনি। প্রযোজক সেলিম খান জানান করোনার কারণে দেশের ৫ জেলার সিনেমা হল বন্ধ থাকায় ছবিটির হল সংখ্যা কমেছে। রাজধানীর ফার্মগেটে দ্বিতীয় সপ্তাহেও চলছে 'টুঙ্গি পাড়ার মিয়া ভাই'। অথচ দ্বিতীয় সপ্তাহে এ হলে মুক্তির কথা ছিল 'যৈবতী কন্যার মন'। চলতি মাসের তৃতীয় শুক্রবার পড়ে যাচ্ছে রমজানে। কিন্তু এদিন মুক্তি পাবে না কোনো নতুন ছবি।

চলচ্চিত্র পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, 'রমজান মাস সিয়াম সাধনার মাস। রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় প্রতি বছর এই সময়ে নতুন কোনো সিনেমা মুক্তি দেওয়া হয় না। এই সময়ে দর্শক হলে আসেন না। তাই পুরানো সিনেমা দিয়ে হলগুলো সচল রাখা হয়। তবে রমজান আসার আগ পর্যন্ত নতুন ছবি মুক্তি পায়। ঈদ উপলক্ষে একাধিক নতুন সিনেমা মুক্তি পায় প্রেক্ষাগৃহে। সিনেমা ব্যবসায়ীদের জন্য ঈদের সময়টা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এই সময়টাই মূলত চলচ্চিত্রের ব্যবসার সময়। দর্শক এই সময়ে হলে আসেন। মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোও ভালো ব্যবসা করে।'

এবার ঈদে তারকা বহুল ও বিগবাজেটের একাধিক সিনেমা মুক্তির তালিকায় থাকলেও তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। করোনা বর্তমান পরিবেশে সিনেমা হল বন্ধের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। সিনেমা হল বন্ধ না হলেও দর্শক সঙ্কটের আশংকায় প্রযোজকরা তাদের ছবিগুলো নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে। কারণ বর্তমানে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ ও মৃতু্যর সংখ্যা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই পরিস্থিতি খুব সহজেই নিয়ন্ত্রণে আসবে না। ফলে অবস্থা পর্যবেক্ষণ করা ছাড়া উপায় নেই। আর তার উপরই দেশের অন্যান্য ক্ষেত্রগুলোর মতো সিনেমা হল ও চলচ্চিত্রের ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে।

সিনেমা হল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন উজ্জ্বল বলেন, '৫০টির বেশি সিনেমা হল খোলা ছিল। কিন্তু তার বেশিরভাগই বন্ধ। প্রত্যেক সিনেমা হলের মালিকরা নিজেদের সিদ্ধান্তে বন্ধ রেখেছেন। তবে হল মালিকদের মধ্যে অধিকাংশই আশায় আছেন ঈদের ছবির জন্য। ঈদে মুক্তির অপেক্ষায় আছে বেশকিছু বিগ বাজেটের সিনেমা।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে