নতুন রূপে দীপান্বিতা মার্টিন

নতুন রূপে দীপান্বিতা মার্টিন

মঞ্চ ও টিভি নাটক- দুই মাধ্যমে অভিনয়ের ক্যারিয়ার কম নয় অভিনেত্রী দীপান্বিতা মার্টিনের। অভিনয়ে বেশ ভালোই বুনিয়াদি শিক্ষা আছে তার। স্কুলে প্রাথমিকের গন্ডি পেরিয়েই অভিনয়ে আসেন দীপান্বিতা। অষ্টম শ্রেণিতেই নাম লেখান থিয়েটারে। কিন্তু থিয়েটার দিয়ে আসা এই অভিনেত্রীর কোথায় যেন একটা খামতি ছিল। ঠিকভাবে নিজেকে মেলে ধরতে পারছিলেন না। অবশেষে বড় পর্দাতেই নিজেকে ভালোমতো মেলে ধরার জায়গাটি পেয়ে গেলেন। গাজী রাকায়েত হোসেনের 'গোর' চলচ্চিত্রটিই যেন তাকে প্রথম সেই জায়গাটি পেতে সুযোগ করে দিল। ২০২০ সালে এনে দিয়েছিল জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। চমকে গিয়েছিল দেশের চলচ্চিত্র অঙ্গন। কে এই রোজালিন দীপান্বিতা মার্টিন? এবার দীপান্বিতা মার্টিনকে দর্শক আরও নতুন করে চিনল ওটিটি পস্ন্যাটফর্মে- কাইজার দিয়ে। দর্শক সাড়ার কথা বিবেচনা করলে দীপান্বিতার অতীতের সব কাজকেই ছাপিয়ে গেছে কাইজার। এর আগের সিরিজ 'একাত্তর' ও 'নিখোঁজ' সিরিজে যা চেনা যায়নি সেটাই চিনতে সাহায্য করল এই কাইজার।

কাইজারের পরিচালনায় আছেন তানিম নূর। এতে নামভূমিকায় আছেন আফরান নিশো। আরও আছেন মোস্তাফিজুর নূর ইমরান, আহমেদ রেজা রুবেল, নাদের চৌধুরী, রিকিতা নন্দিনী শিমু, শাহেদ আলী, শতাব্দী ওয়াদুদ, সুমন আনোয়ার, ইমতিয়াজ বর্ষণ, শঙ্খ জামান, জিনাত সানু স্বাগতা প্রমুখ।

ওয়েব সিরিজ 'কাইজার' ওটিটি পস্ন্যাটফর্ম হইচইয়ে মুক্তি পেতে না পেতেই দীপান্বিতা মার্টিনকে দর্শক চিনল সম্পূর্ণ ভিন্ন পরিচয়ে। সিরিজটিতে মুনিরা চরিত্রে দীপান্বিতা যেমন পারফর্ম করলেন তা এক কথায় অনবদ্য। গোটা সিরিজের আলোটা তার দিকেই টেনে নিয়েছেন দীপান্বিতা। একটি গল্পে চরিত্রগুলো যেভাবে সাজানো হয় সেই অনুযায়ী দীপান্বিতার চরিত্রটি তবে কী? সহাস্যে দীপান্বিতা বললেন, 'মানুষের জীবনাচারেই হোক আর গল্পে হোক, প্রতিটি চরিত্রেরই যার যে কাজ, তার পেছনে একটা যোগসূত্র থাকে। তা যেমনই হোক চরিত্রটি জানে সে যা করছে তা ঠিক কাজটাই করছে। সেই চরিত্রগুলোরই কোনোটা আমাদের বিচারে কোনোটা নায়ক-নায়িকা কিংবা কোনোটা ভিলেন। এখন বিশ্বব্যাপী যে কাজগুলো ফোকাস করা হচ্ছে, সেগুলো চরিত্রভিত্তিক। আমাদের দেশেও এটার প্রচলন শুরু হয়েছে। এখানে গল্পে একটি চরিত্র কতটা গুরুত্ব বহন করছে সেটা নির্ভর করছে কে নায়ক বা নায়িকা, কে নায়ক বা নায়িকা না।'

কিন্তু এখানে (কাইজারে) সব প্রশংসাই যেন দীপান্বিতার জন্যই- এ প্রসঙ্গে দীপান্বিতা সহাস্যে বলেন, 'যারা কাইজার দেখেছেন, তারা জানেন, আমার চরিত্রটি না থাকলে গল্প যে যায়গায় এখন দাঁড়িয়েছে, সে জায়গায় দাঁড়াবে না। সে অর্থে বলতে পারি, খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা চরিত্র মুনিরা।' কিন্তু এই চরিত্রকে কোন ভূমিকায় গুরুত্বপূর্ণ? এমন প্রশ্নে দীপান্বিতা মার্টিন বলেন, 'সে চরিত্র কোন ভূমিকায়- নায়িকা না ভিলেন সেটা বিচারের ভার দর্শকের। দর্শকই ভালো করে বুঝেশুনে কেউ বলতে পারেন নায়িকা, কেউ বলতে পারেন ভিলেন। দর্শক যেটাই বলবেন আমি সেটাই মেনে নেব। এখন দর্শকই ঠিক করুক চরিত্রটি কী।'

এমন চরিত্রের জন্যই কি এতকাল অপেক্ষায় ছিলেন? এটা স্বীকার করেই এই অভিনেত্রী বলেন, 'আসলে সেই ছোটবেলা থেকেই তো এই অভিনয়টা করে আসছি। তারপরও চরিত্রের নাম ধরে সাধারণ মানুষ আমাকে খুব কম ডেকেছে। আমি তো জাতীয় পর্যায়ে অতটা পরিচিত না। এখন ভালো লাগছে এটা ভেবে যে, দর্শক যখন আমাকে দূর থেকে মুনিরা নামে ডাকে। তখন প্রাণটা ভরে যায়। এতদিনে মনে হয় আমার অভিনয় জীবনটাও স্বার্থক হয়েছে। এর পেছনে দীর্ঘদিনের ট্রাভেল আছে, জার্নি আছে। অনেক হতাশা ছিল, কঠোর পরিশ্রম ছিল। সেগুলোকে এখন স্বার্থক মনে হচ্ছে।'

কিন্তু দর্শকের কাছ থেকে এর বিপরীত প্রতিক্রিয়াও জুটেনি? 'তাতো জুটেছেই'- বলেন দীপান্বিতা, 'অনেক দর্শকই সিরিজটা দেখে আমার উপর ভীষণ চটেছেন। একজন লিখেছেন, 'আপনারে পাইলে থাপড়ায়া দাঁত-দুত ভাইঙ্গা দিতাম'। সব মিলিয়ে অদ্ভুত সুন্দর প্রতিক্রিয়া পেয়েছি কাইজার থেকে। অনেক নতুন ভক্ত তৈরি হয়েছে কাজটা দিয়ে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে