শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭

মহামারিতে দারিদ্র্য বেড়েছে ৪০ শতাংশ অভিমত জাতিসংঘের

মহামারিতে দারিদ্র্য বেড়েছে ৪০ শতাংশ অভিমত জাতিসংঘের

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে দরিদ্র মানুষের সংখ্যা ৪০ শতাংশ বেড়ে গেছে। এসব মানুষের মানবিক সহায়তার প্রয়োজন হবে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। আগামী বছরের শুরু থেকেই বিভিন্ন দেশের হতদরিদ্র মানুষের মানবিক সহায়তার প্রয়োজন হবে। আর এসব সহায়তামূলক বিভিন্ন কার্যক্রমে জাতিসংঘের ৩ হাজার ৫০০ কোটি মার্কিন ডলার প্রয়োজন। সংবাদসূত্র : বিবিসি, রয়টার্স জাতিসংঘের ত্রাণবিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা মার্ক লোকক বলেন, 'আগামী বছর যাদের মানবিক সাহায্যের প্রয়োজন পড়বে তারা সবাই যদি একটি দেশে বাস করতেন তাহলে সেটি বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম জনগোষ্ঠীর দেশ হতো। এই মহামারি বিশ্বের সবচেয়ে ভঙ্গুর ও সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অর্থনীতির দেশগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছে বলে উলেস্নখ করেন তিনি। জাতিসংঘ ২০২১ সালে ৫৬টি দেশে মানবিক ত্রাণ পৌঁছে দিতে ৩৪টি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। সংস্থাটি এর মাধ্যমে ১৬ কোটি মানুষের কাছে মানবিক সহায়তা পৌঁছে দিতে চায়। তার বাইরেও আরও অনেক মানুষের সহায়তা প্রয়োজন। জাতিসংঘের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিশ্বে প্রায় সাড়ে ২৩ কোটি মানুষকে ক্ষুধা, যুদ্ধ, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব এবং করোনাভাইরাস মহামারির প্রভাব মোকাবিলা করতে হচ্ছে। হ লোকক বলেন, 'আমরা সব সময়ই হতদরিদ্র ওইসব মানুষের দুই-তৃতীয়াংশের কাছে পৌঁছাতে চাই। বাকি যারা থেকে যাচ্ছে তাদের রেড ক্রসের মতো অন্যান্য দাতব্য সংস্থা সহায়তার চেষ্টা করবে, যাতে সেই শূন্যতা পূরণ করা যায়। তিনি বলেন, 'এ বছর দাতা দেশগুলো রেকর্ড ১ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার দান করেছে। যা দিয়ে নির্ধারিত লক্ষ্যের প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষের কাছে ত্রাণ সহায়তা পৌঁছানো সম্ভব হয়েছে।' তবে ২০২১ সালের জন্য ৩ হাজার ৫০০ কোটি (৩৫ বিলিয়ন) ডলার প্রয়োজন, যা একটি বিশাল অংকের অর্থ বলে উলেস্নখ করেছেন তিনি। কিন্তু ধনী দেশগুলো তাদের জনগণকে মহামারি থেকে সুরক্ষা দিতে যে পরিমাণ ব্যয় করছে তার তুলনায় এই অর্থ খুবই সামান্য বলে মনে করেন লোকক।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে