সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭

'নবাবের নাতি'র প্রতারণার চক্র চার ভাই মিলে

'নবাবের নাতি'র প্রতারণার চক্র চার ভাই মিলে

নিজেকে 'নবাবের নাতি' পরিচয় দিয়ে প্রতারণার জাল বিস্তারকারী আলী হাসান আসকারীর সঙ্গে তার পাঁচ সহযোগীকেও গ্রেপ্তার করে পুলিশ; কিন্তু এর মধ্যে তিনজন যে আসকারীরই ভাই, তা পুলিশও জানত না। তাদের গ্রেপ্তার করার ২০ দিন পর তা জানতে পেরে পুলিশ কর্মকর্তারাও অবাক হয়েছেন।

কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, 'সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে, কামরুলের সঙ্গে গ্রেপ্তার হওয়া বাকি পাঁচজনের মধ্যে তিনজনই যে কামরুলের ভাই, তা বোঝা যায়নি। তাদের কাছে জানতে চাইলেও কেউ মুখ খুলেনি। পরে তদন্তে বেরিয়ে আসে, গ্রেপ্তার হওয়াদের মধ্যে রাজা, রানা ও আহম্মদ তার ভাই।'

এলাকাবাসীও জানত না আসকারীর ভাইদের সম্পর্কে। তারা ওই তিন ভাইকে কামরুলের দেহরক্ষী, ব্যক্তিগত সচিব, ম্যানেজার হিসেবে চিনত। আর তারাও প্রকাশ্যে আসকারীকে 'স্যার' বলত। গত ২৮ অক্টোবর আলী হাসান আসকারীর (৪৮) সঙ্গে গ্রেপ্তার হন রাশেদ ওরফে রহমত আলী ওরফে রাজা (৩৪), মীর রাকিব আফসার (২০), মো. সজীব ওরফে মীর ?রুবেল (৩৩), মো. আহম্মদ আলী (৩৮) ও মো. বরকত আলী ওরফে রানা (৩২)। এর মধ্যে রাজা, আহম্মদ আলী ও রানা আসকারীর ভাই বলে পুলিশ শনাক্ত করেছে।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, তারা চার ভাই মিলে গড়ে তুলেছিল প্রতারণা চক্র, আর সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে কোটি কোটি টাকা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে