লকডাউনের ১২তম দিন

গাড়ি বাড়ায় পুলিশের ত্রাহি অবস্থা

গাড়ি বাড়ায় পুলিশের ত্রাহি অবস্থা

বিধিনিষেধের (লকডাউন) ১২তম দিন মঙ্গলবার রাজধানীতে ব্যক্তিগত মোটর বাইক এবং সিএনজিচালিত অটোরিকশায় যাত্রী পরিবহণ বেড়েছে। একইভাবে বেড়েছে ব্যক্তিগত গাড়ি, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি অফিসের গাড়ি, পণ্যবাহী গাড়ির চাপ। এতে ট্রাফিক পুলিশদের হিমশিম খেতে হয়েছে। চেকপোস্টগুলোতেও গাড়ির দীর্ঘ লাইনও দেখা গিয়েছিল।

পুলিশ বলছে, রাস্তায় গাড়ির চাপ বাড়ার কারণে তাদের দায়িত্ব পালন করতে হিমশিম খাচ্ছেন তারা। এই চাপ অন্যান্য দিনের তুলনায় অনেক বেশি, যা বুধবারের তুলনায় মঙ্গলবার ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ বেশি ছিল। ফলে ঘর থেকে বের হওয়া অধিকাংশ মানুষকেই

তারা জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেননি। বিধিনিষেধ মানতে অনেকেই অপারগতা দেখাচ্ছেন। তবে সকালের তুলনায় বিকালে চাপ কিছুটা কম ছিল।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় গত ১ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ দেওয়া হয়। তবে ঈদুল আজহা উপলক্ষে গত ১৫ থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত বিধিনিষেধ শিথিল করে সরকার। পরে ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ থাকার কথা থাকলেও তা ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। বিধিনিষেধে সব ধরনের গণপরিবহণ, সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ আছে। খাদ্যপণ্য উৎপাদন-প্রক্রিয়াকরণ, চামড়া পরিবহণ-সংরক্ষণ, ওষুধ খাত ও রপ্তানিমুখী সব শিল্পকারখানা ছাড়া অন্য সব বন্ধ রয়েছে।

রাজধানীর বনানী, মহাখালী, তেজগাঁও, মগবাজার, ফার্মগেট, বিজয় সরণি এবং জাহাঙ্গীর গেট এলাকার রাস্তায় মানুষ অন্যান্য দিনের তুলনায় বেশি বের হলেও তলস্নাশি কার্যক্রম ছিল ঢিলেঢালা। মিরপুরে রাস্তায় পাশাপাশি দোকানপাট ও বাজারেও মানুষের চলাচল বেশি ছিল। স্বাস্থ্যবিধিতে ঢিলেমি রয়েছে আগের মতোই। ছিল না আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো তৎপরতা। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে ধানমন্ডি ২৭ নম্বর পর্যন্ত সকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো চেকপোস্ট দেখা যায়নি। তবে পুলিশ ও বিজিবির টহল ছিল।

সকাল থেকেই রাজধানীর রামপুরা, মালিবাগ, মৌচাক, শান্তিনগর, বেইলি রোড, বিজয়নগর, কাকরাইল, নয়া পল্টন, ধানমন্ডি, মিরপুর, গুলিস্তান, ফার্মগেট, বিমানবন্দর, যাত্রাবাড়ী, কমলাপুর, মতিঝিলসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার সড়কে রিকশা, মোটর বাইক, ব্যক্তিগত গাড়ির উপস্থিতি ছিল অনেক বেশি।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম ও জনসংযোগ বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) ইফতেখারুল ইসলাম জানিয়েছেন, ঈদের পর নতুন করে শুরু হওয়া বিধিনিষেধের ১২তম দিনে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে রাস্তায় বের হওয়ার অভিযোগে ৩৫৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। আর ভ্রাম্যমাণ আদালত ১২০ জনকে জরিমানা করেছেন ১ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। আর সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় ৫৩২টি গাড়িকে ১১ লাখ ২৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ট্রাফিক বিভাগ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে