পাকিস্তানের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় মুমিনুল আত্মবিশ্বাসী

পাকিস্তানের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় মুমিনুল আত্মবিশ্বাসী

রঙিন পোশাকে হারের বৃত্তে থাকা বাংলাদেশ এবার মিশন পাকিস্তানের বিপক্ষে সাদা পোশাকে। সাম্প্রতিক সময়ের ব্যর্থতাকে পেছনে ফেলে পাকিস্তানের বিপক্ষে কঠিন লড়াইয়ে শামিল হতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এমন লক্ষ্য নিয়ে আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজ শুরু করছে টাইগাররা। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্ভুক্ত সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। সাগরিকায় জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে খেলা শুরু হবে সকাল ১০টায়। বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক বলেছেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ জেতার জন্যই মাঠে নামবে তারা। টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের রেকর্ড সমৃদ্ধ না হলেও মাঠের লড়াইয়ে কোনো ছাড় না দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ বাংলাদেশ। বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক জানিয়েছেন, 'কোনো সন্দেহ নেই যে, সিরিজটি চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে আমাদের দক্ষতায় আমরা ভালো করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।' ব্যাটিং দিয়ে পাকিস্তানকে চ্যালেঞ্জে ফেলার আশায় বাংলাদেশ অধিনায়ক ?মুমিনুল হক। পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের শক্তির জায়গা ব্যাটিং, মনে করেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। ব্যাটিংয়ে পার্থক্য গড়ে টিম টাইগার্স চ্যালেঞ্জে ফেলতে সফরকারীদের অধিনায়ক মনে করে, \হব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন বিভাগেই জ্বলে উঠতে হবে দলকে। তিন বিভাগের মধ্যে ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানকে চ্যালেঞ্জ জানানোর সম্ভাবনা দেখছেন তিনি। একদমই তরুণ দল নিয়ে এবার পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ। প্রথমবারের মতো টেস্ট দলে ডাক পেয়ে উচ্ছ্বসিত দুই নতুন মুখ মাহমুদুল হাসান জয় ও রেজাউর রহমান রাজা। বিশেষভাবে নিজেদের পছন্দের ভার্সনেই সুযোগ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তারা। তারা জানেন, যদিও বাংলাদেশের হয়ে অভিষেকের খুব কম সুযোগই রয়েছে। কারণ, বাংলাদেশ সদ্য টি২০তে খারাপ খেলার বদনাম মুছাতে অভিজ্ঞদের ওপর নির্ভর করবে। বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিপক্ষে হোম সিরিজে ধরাশায়ী বাংলাদেশ টেস্টেও চাপে থাকবে নাকি- এমন প্রশ্নে অধিনায়ক জানান, টেস্ট আর টি২০ সম্পূর্ণ আলাদা ফরম্যাট। বিশ্বকাপ আর ঘরের মাঠে কি হয়েছে, সেটা এখন ভাবনাতে নেই। মুমিনুল বলেন, 'আমরা জেতার জন্যই মাঠে নামব। দলের সবাই জেতার জন্যই খেলবে। এ ছাড়া টি২০ দলের দুইজন ছাড়া (লিটন, মুশফিক) এখানে সবাই নিয়মিত লংগার ভার্সন ক্রিকেটই খেলছে বেশ অনেকদিন যাবত।' ইনজুরির কারণে দলে নেই দুই তারকা ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। আর বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে টেস্ট থেকে অবসর নিয়েছেন মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদ। মুশফিকুর রহিমও নেই চেনা ছন্দে। তাই মাঠ চালানোটা বেশ চ্যালেঞ্জিং হবে বলে মনে করেন টেস্ট অধিনায়ক। বলেন, 'মাঠে সিনিয়র ক্রিকেটারদের উপস্থিতি সব সময় বাড়তি একটা অনুপ্রেরণা দেয়। আর তামিম ভাই ও সাকিব ভাই দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। তাদের অভাব পূরণ করার মতো না।' এ ছাড়া প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ দলে ডাক পেয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য নতুন যারা দলে মাহমুদুল হাসান জয় ও পেসার রেজাউর রহমান রাজা। নতুনদের এই সিরিজে নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ রয়েছে বলে জানান মুমিনুল হক। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শেষ দুই টেস্টে হৃদয় ভেঙেছে বাংলাদেশের। সাদা পোশাকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারের লজ্জার পর বাংলাদেশ পরাজিত ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় সারির দলের কাছে। দুই টেস্টে ম্যাচ হারের পেছনে জহুর আহমেদের ২২ গজ রেখেছিল বড় ভূমিকা। আফগানিস্তানকে যেমন স্পিনে বধ করতে স্পিনিং উইকেট তৈরি করেছিল। ঠিক তেমনি ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আটকাতে ফ্ল্যাট উইকেট বানিয়েছিল। কিন্তু নিজেদের ফাঁদে আটকে যায় বাংলাদেশ। দুটি ম্যাচই বাংলাদেশ হারে পঞ্চম দিনে। এবার সাগরপারে বাংলাদেশের সামনে প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। দুই দলের ম্যাচের আগে আবারও আলোচনায় সাগরিকার ২২ গজ। গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে দুই দলের অধিনায়ক উইকেট নিয়ে নিজেদের ভাবনা জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ। সাত-সকালেই উইকেট দেখে তৃপ্তির ঢেকুর তুলেছেন মুমিনুল। বাংলাদেশ অধিনায়কের মতে, ব্যাটসম্যানদের জন্য সহায়ক হচ্ছে চট্টগ্রামের ২২ গজ। তার ভাষ্য, 'আমার কাছে মনে হয় খুব ভালো ব্যাটিং উইকেট হবে। ভালো উইকেট হবে। ব্যাটিংয়ের জন্য সহায়ক হবে। আপনারা তো দেখেছেন চট্টগ্রামে যে কয়েকটি সিরিজ হয়েছে, আপনারা তো আরও ভালো জানেন, বাইরে থেকে যারা দেখে তারাও ভালোই বোঝে। চট্টগ্রামের উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো হয়।' মুমিনুলের থেকে চট্টগ্রামের ২২ গজ আর কে ভালো চেনেন! ক্যারিয়ারে ১১ সেঞ্চুরির সাতটিই পেয়েছেন নিজের ঘরের মাঠে। এবারও যে জহুর আহমেদ তার জন্য রানের পসরা সাজিয়ে অপেক্ষা করছে বলাই যায়। মুমিনুলের আগে সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন বাবর। দুপুরে অনুশীলনের আগে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পাকিস্তানের অধিনায়ক বললেন, 'টিপিক্যাল বাংলাদেশি উইকেট। ঘাস আছে। গতকাল এমনটাই দেখেছিলাম। আজ গিয়ে শেষবার দেখব। চিরাচরিত দেখে এসেছি, এখানে স্পিনাররা সাহায্য পায়। শুরুতে পেসাররাও কিছুটা সাহায্য পায়। আমি মনে করি, উইকেট ও কন্ডিশন আমরা যতটা কাজে লাগাতে পারব, আমাদের ততটা ভালো হবে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে