টিআই'র প্রতিবেদন গতানুগতিক ও একপেশে : তথ্যমন্ত্রী

টিআই'র প্রতিবেদন গতানুগতিক ও একপেশে : তথ্যমন্ত্রী

দুর্নীতির ধারণা সূচক নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের (টিআই) প্রকাশিত প্রতিবেদন গতানুগতিক ও একপেশে বলে মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ডক্টর হাছান মাহমুদ বলেছেন, 'দুর্নীতির সূচক নিয়ে টিআই যে তথ্য প্রকাশ করেছে এটি গতানুগতিক ছাড়া অন্য কোনো কিছু নয়। টিআইবি একটি এনজিও, বিভিন্ন জায়গা থেকে তারা ফান্ড সংগ্রহ করে চলে। জাতিসংঘের অ্যাফিলিয়েটেড কোনো সংস্থা নয়। এটিকে আমাদের দেশে অনেক গুরুত্ব দেওয়া হলেও ভারতসহ অনেক দেশে গুরুত্ব দেওয়া হয় না।'

টিআইবি ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে বুধবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে

এসব কথা বলেন তিনি।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, 'আমরা মনে করি এ ধরনের সংগঠন থাকা ভালো। কিন্তু সেই সংগঠনের কোনো প্রতিবেদন যদি ভুল তথ্য-উপাত্তে হয় কিংবা ফরমায়েসি, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বা গতানুগতিক হয় সেই সংস্থাটির মর্যাদা ক্ষুণ্ন হয়।

ডক্টর হাছান মাহমুদ বলেন, নির্বাচন কমিশন গঠন আইন নিয়ে টিআইবি বিবৃতি দিয়েছে। তারা তো দুর্নীতি নিয়ে কাজ করে। নির্বাচন কমিশন আইন কিংবা নির্বাচন কমিশন গঠন পুরো বিষয়টি রাজনৈতিক। রাজনৈতিক ইসু্যতে বিবৃতি দিয়ে টিআইবি প্রমাণ করেছে তারা রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহৃত হয়।

তবে টিআইর প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করছেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাব দেননি তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, টিআইবি দুর্নীতিগ্রস্ত অনেক সংস্থার কাছ থেকেও ফান্ড গ্রহণ করে। তাদেরই একজন কর্মকর্তা, যাকে তাদের ইন্টেগ্রিটি নিয়ে প্রশ্ন তোলার কারণে চাকরিচু্যত করা হলে জনসম্মুখে তিনি সেটি প্রকাশ করেছিলেন।

বিএনপি দেশের বিরুদ্ধে, দেশের মানুষের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে বলে মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, 'বিএনপি দেশের ভালোর জন্য লবিস্ট নিয়োগ করে বলে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল স্বীকার করে নিয়েছেন। তারা যে এতদিন বলে আসছিলেন তারা লবিস্ট নিয়োগ করেননি সেটি সত্য নয়। ফখরুল সাহেব অকপটে স্বীকার করেছেন, তারা লবিস্ট নিয়োগ করেছেন। আমরা এতদিন যেটি বলে আসছিলাম, সেটি তিনি স্বীকার করে নিয়েছেন। কিন্তু তিনি সম্ভবত তার সহকর্মীদের চাপের মুখে পাঁচ মিনিট পর এসে বললেন, কোনো লবিস্ট নিয়োগ করিনি। আসলে প্রথমটাই সত্য ভাষণ ছিল।'

তিনি আরও বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধের জন্য বিএনপি এবং জামায়াত যৌথভাবে লবিস্ট নিয়োগ করেছিল। বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে হত্যার জন্য এফবিআইয়ের এজেন্ট ভাড়া করেছিল। সে এজেন্টকে পরে বিচারের মুখোমুখি দাঁড়াতে হয়েছে, সেই অপরাধে। সুতরাং বিএনপির শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করে কোনো লাভ নেই।

নির্বাচন কমিশন আইন নিয়ে বিএনপির মন্তব্য প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান বলেন, বিএনপির কথা শুনে মনে হচ্ছে স্বয়ং জিব্রাইলকে (আ.) যদি দায়িত্ব দেওয়া হয় এবং উনি এসে যতক্ষণ বিএনপিকে না বলবেন যে, একটি কমিশন গঠন করে দেব যেটি বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে, সেটার আগ পর্যন্ত তারা সন্তুষ্ট হবেন না।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে