ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর নির্বাচন

বিদ্রোহী নিয়ে অস্বস্তিতে আওয়ামী লীগ, নীরব প্রচারে বিএনপি

বিদ্রোহী নিয়ে অস্বস্তিতে আওয়ামী লীগ, নীরব প্রচারে বিএনপি

আগামী ২৮ ফেব্রম্নয়ারি অনুষ্ঠেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬ জন প্রার্থী। গত ১২ ফেব্রম্নয়ারি প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই শুরু হওয়া প্রচার-প্রচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে পুরো এলাকা। প্রতিটি এলাকাতেই শোভা পাচ্ছে পোস্টার। চলছে প্রার্থীদের পক্ষে মাইকিং। প্রতিদিনই হচ্ছে ছোট-খাটো মিছিল ও মোটরসাইকেলর্ যালি।

এ পৌরসভায় মেয়র পদে ৬ জন, ১১টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৫৬ জন এবং ৪টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ১৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইতোমধ্যেই পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর ওমর ফারুক জীবন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

কাগজে কলমে মেয়র পদে ৬ জন প্রার্থী থাকলেও মূল আলোচনায় আছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নায়ার কবির, বিএনপি মনোনীত জহিরুল হক খোকন ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাহমুদুল হক ভূইয়া। অপর ৩ মেয়রপ্রার্থী হলেন- বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি মনোনীত নজরুল ইসলাম (হাতুড়ি), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত আবদুল মালেক (হাতপাখা) ও স্বতন্ত্রপ্রার্থী আবদুল কারীম (নারকেল গাছ)।

তবে আওয়ামী লীগে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় অস্বস্তিতে আছেন দলের শীর্ষ নেতারা। বিদ্রোহী মেয়রপ্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাহমুদুল হক ভূইয়া (মোবাইল ফোন) তার সমর্থিত নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। ইতোমধ্যেই দল মনোনীত মেয়রপ্রার্থীর বিরোধিতাসহ বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেওয়ার অভিযোগে এবং দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য ও শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় বিদ্রোহী প্রার্থী মাহমদুল হক ভূইয়াসহ তার সমর্থিত জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ২০ নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বিএনপি ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়রপ্রার্থী এবং একজন কাউন্সিলর প্রার্থীকে জরিমানা করেছেন। প্রচার-প্রচারণায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত ও বর্তমান মেয়র নায়ার কবির এগিয়ে থাকলেও বিএনপি মনোনীতপ্রার্থী জহিরুল হক খোকন নীরবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

নৌকা প্রার্থী নায়ার কবির জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। তিনি সাবেক উপমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত অ্যাডভোকেট হুমায়ূন কবিরের সহধর্মিণী। অ্যাডভোকেট হুমায়ূন কবির ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার দুইবার চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আসন থেকে দুইবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। নায়ার কবির প্রচারণায় প্রয়াত স্বামীর জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগাচ্ছেন।

গত ৫ বছর মেয়র থাকা অবস্থায় নায়ার কবির চোখে পড়ার মতো কোনো উন্নয়ন কর্মকান্ড করতে না পারলেও তার আমলে পৌরসভায় কোনো টেন্ডারবাজি হয়নি। এছাড়াও তিনি ভূমিদসু্যদের বিরুদ্ধে ছিলেন স্বোচ্চার। অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ থেকে কোরবানির পশুর হাট শহরের বাইরে সরিয়ে পৌরবাসীর প্রশংসা কুড়িয়েছেন। পৌরসভায় বঙ্গবন্ধু স্কোয়ার স্থাপন করেছেন। দলীয় রাজনীতিতে কোনো ধরনের বলয় সৃষ্টি না করায় নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রশংসিত হয়েছেন।

বিএনপি মনোনীতপ্রার্থী জহিরুল হক খোকন (ধানের শীষ) ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ ছাত্রসংসদের ভিপি ছিলেন। জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি, জেলা বিএনপির সাবেক প্রচার সম্পাদক ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে তার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তার পক্ষে বিএনপির নেতাকর্মীরাও ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমেছেন।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাহমুদুল হক ভূইয়ার জন্মস্থান পৌরসভার সবচেয়ে বড় গ্রাম ভাদুঘরে। বর্তমানে তার পরিবার বসবাস করেন শহরের কাজীপাড়ায়। তাই ভাদুঘর ও কাজীপাড়ার ভোট নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় আওয়ামী লীগ। মূলত ওই দুটি এলাকাতেই আওয়ামী লীগের ভোটব্যাংক। কিন্তু এলাকার ছেলে হওয়ায় ওই দুই এলাকায় মাহমুদ সহানুভূতি পাবেন বলে ধারণা করছেন নেতাকর্মীরা। এছাড়া মাহমুদুল হক ভূইয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হওয়ায় পৌর এলাকায় রয়েছে তার নিজস্ব বলয়। যে কারণে বিদ্রোহী প্রার্থী নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছে আওয়ামী লীগ।

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার জানান, প্রত্যেক পৌরসভাতেই একবার ব্যাপক উন্নয়ন হলে পরের পাঁচ বছর হয় না। যে কারণে বর্তমান মেয়রের আমলে হয়তো বড় ধরনের উন্নয়ন দৃশ্যমান হয়নি। তবে একেবারে উন্নয়ন হয়নি সেটা বলা যাবে না। উন্নয়নের জন্য তিনি সাধ্যমতো চেষ্টা করেছেন। তিনি মেয়র থাকাকালে পৌর এলাকার মানুষ অনেক শান্তিতে ছিল। দলীয় কিংবা ব্যক্তিগত প্রভাব খাটিয়ে তিনি কিছু করেছেন সেটা কেউ বলতে পারবে না। এবার নির্বাচিত হলে স্বাভাবিক প্রক্রিয়াতেই তিনি অনেক উন্নয়ন কাজ করতে পারবেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে