টাঙ্গাইলে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃতু্যদন্ড বাগেরহাটে যুবকের যাবজ্জীবন

প্রকাশ | ১৮ মে ২০২২, ০০:০০

ম স্টাফ রিপোর্টার, টাঙ্গাইল
টাঙ্গাইলে স্ত্রী হত্যার দায়ে মো. রিয়াজ উদ্দিন(৩৫) নামে এক ব্যক্তিকে মৃতু্যদন্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবু্যনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন ওই রায় দেন। এ সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। দন্ডপ্রাপ্ত রিয়াজ উদ্দিন ঘাটাইল উপজেলার গারো বাজার এলাকার বশির উদ্দিনের ছেলে। তিনি জামিনে মুক্ত হওয়ার পর থেকে পলাতক রয়েছেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবু্যনালের বিশেষ সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আলী আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ১০ হাজার টাকা যৌতুকের জন্য রিয়াজ উদ্দিন ২০০৯ সালের ১০ আগস্ট তার স্ত্রী লিজা আক্তারকে (২০) মারধর করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। এ অবস্থায় লিজাকে প্রথমে ফুলবাড়িয়া উপজেলার স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৭ আগস্ট লিজা মারা যান। লিজা ফুলবাড়িয়া উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের মেয়ে। ঘটনার পর লিজার ভাই আজাহার আলী বাদী হয়ে ২০০৯ সালের ১৯ আগস্ট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। এদিকে, বাগেরহাট সদর প্রতিনিধি জানান, বাগেরহাটের চিতলামরীতে জাকিয়া (১২) নামের এক কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যার অপরাধে কালিম শেখ (৩০) নামের এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার বিকালে বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবু্যনাল-১ এর বিচারক এসএম সাইফুল ইসলাম আসামির উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আদালত আসামিকে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর সশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন। দন্ডাদেশ প্রাপ্ত কালিম শেখ চিতলমারী উপজেলার বড়বাড়িয়া মধ্যপাড়া গ্রামের ঠান্ডা শেখের ছেলে।