টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ শিশু আয়শার

টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ শিশু আয়শার

ছয় বছর বয়সি শিশু আয়শা মণি। হঠাৎ করে তার দুই কিডনি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। চিকিৎসকরা জরুরি ভিত্তিতে কিডনি ডায়ালাইসিস করার পরামর্শ দিয়েছেন। তার বাবা শাহীন হাওলাদার পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। সামান্য রুটির দোকান দিয়ে কোনো রকম চলে সংসার। মেয়ের ব্যয়বহুল চিকিৎসার ব্যয় মেটানো সম্ভব হচ্ছে না।

আয়শার মা তানিয়া বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, গত ফেব্রম্নয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময় হঠাৎ হাত-পা, পেট মুখমন্ডলসহ সব শরীর ফুলে ওঠে এবং অসুস্থ হয়ে পড়ে আয়শা। এরপর বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সের চিকিৎসক ডা. আকতারুজ্জামানের শরণাপন্ন হলে তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আয়শা কিডনি রোগে আক্রান্ত বলে জানান। তিনি আয়শাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানেও সুস্থ না হওয়ায় গত ১৭ এপ্রিল ঢাকা স্যার সলিমুলস্নাহ মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড মিডফোর্ট হাসপাতালের কিডনি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. নয়ন রঞ্জন সরকারের শরণাপন্ন হলে তিনি অতি দ্রম্নত আয়শার কিডনি ডায়ালাইসিস করার পরামর্শ দেন। এতে সব মিলিয়ে প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। ইতোমধ্যে আয়শার চিকিৎসা খরচ চালাতে গিয়ে তাদের সর্বস্ব হারিয়ে ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এখন টাকার অভাবে শিশু সন্তানকে বুকে চেপে ধরে উন্নত চিকিসার জন্য কোথায় যাবেন, কার কাছে যাবেন ভেবে কূল পাচ্ছেন না তারা। টাকার অভাবে আড়াই মাস ধরে আয়শার চিকিৎসা বন্ধ রয়েছে। ফলে দিন দিন আয়শা মৃতু্যর দিকে ঝুঁকে যাচ্ছে। এমতাবস্থায় মেয়ের চিকিৎসার জন্য তিনি সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। স্বজনদের আশা বিত্তবানরা পাশে দাঁড়ালে আয়শা মণির চিকিৎসা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে