ঝিনাইদহে হামলায় ২০ বাড়ি ভাঙচুর

মান্দায় জমি বিরোধের সংঘর্ষে নারীসহ ৮ জন আহত
ঝিনাইদহে হামলায় ২০ বাড়ি ভাঙচুর

ঝিনাইদহের সদর উপজেলার বাগডাঙ্গা ও রতনহাট গ্রামে একপক্ষের হামলায় অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ২০টি বাড়ি ভাঙচুর করা হয়। মঙ্গলবার সদর উপজেলার সুরাট ইউনিয়নের রতনহাট ও বাগডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলার সুরাট ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম ও সাবেক চেয়ারম্যান কবির হোসেন জোয়ার্দ্দারের সমর্থকদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। ঘটনার দিন রাতে কবির হোসেনের এক সমর্থককে মারধর করে আশরাফুলের সমর্থকরা। এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। ওই রাতেই রতনহাট ও বাগডাঙ্গা গ্রামে কবির হোসেনের সমর্থকদের ২০ বাড়ি ভাঙচুর করে আশরাফুলের লোকজন। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি জানান, নওগাঁর মান্দায় একটি বিবাদমান জমির বেশকিছু ইউক্যালিপ্টাসের গাছ তুলে ফেলাকে কেন্দ্র করে উভয়পক্ষের মারপিটে ৩ নারীসহ সর্বমোট ৮ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের চকরামাকান্ত গ্রামে মারপিটের ঘটনাটি ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, চকরামাকান্ত গ্রামের নবির উদ্দিন মোলস্নার ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা পলাশ (৩৬) এবং আব্দুর রহিম বক্সের ছেলে জুয়েল রানা (২৫) গত মঙ্গলবার বিবাদমান জমির বেশকিছু ইউক্যালিপ্টাসের গাছ তুলে ফেলাকে কেন্দ্র করে উভয়ই কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হন। এরই এক পর্যায়ে উভয় পরিবারের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয়পক্ষের ৩ নারীসহ মোট ৮ জন আহত হন।

মান্দা থানার ওসি শাহিনুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে উভয়পক্ষই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে