বরিশালে অভিযানে ৬ ডাকাত গ্রেপ্তার

বরিশালে অভিযানে ৬ ডাকাত গ্রেপ্তার

বরিশালে অভিযানে ছয় ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদিকে পাঁচ জেলায় ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যশোর, বগুড়া, কুমিলস্না, নাটোর ও সুনামগঞ্জ থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আমাদের বরিশাল অফিস জানায়, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে দেশীয় তৈরি পিস্তল, গুলি ও ডাকাতির সরঞ্জামসহ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সরদারসহ ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে গৌরনদী থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম-বিপিএম। গ্রেপ্তাররা হলো- বরগুনা জেলার আমতলী থানার কলাগাছিয়া গ্রামের মৃত আমজেদ হাওলাদারের ছেলে ডাকাত সরদার মো. দেলোয়ার হোসেন, গৌরনদী উপজেলার চররমজানপুর গ্রামের মো. সেলিম সরদারের ছেলে রবিউল ইসলাম, পটুয়াখালী জেলার পসারবুনিয়া গ্রামের মৃত আনোয়ার মীরার ছেলে মোতালেব মীরা, বরগুনার আমতলী উপজেলার ছোটবগি গ্রামের মো. আ. কাদের প্যাদার ছেলে হারুন, বরগুনার বেতাগী উপজেলার মো. সৈয়দ ফকিরের ছেলে মো. আমিনুল ফকির ও পটুয়াখালী সদরের মো. সোহরাব সিকদারের ছেলে মো. ছগির সিকদার।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বলেন, চলতি বছরের ১১ জুন বরিশালের গৌরনদী উপজেলার কেফায়েতনগর এলাকার তানিয়া বেগমের বাসার ঘরের গ্রিল কেটে ডাকাত দল পরিবারের সব সদস্যের হাত, পা, মুখ বেঁধে স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা লুট করে। ওই ঘটনায় গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করেন গৃহকর্তী তানিয়া বেগম। পরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মো. হেলাল উদ্দিনসহ একটি টিম দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে আন্তঃজেলা ডাকাত সরদার মো. দেলোয়ার হোসেনসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেন।

নাটোর প্রতিনিধি জানান, নাটোরের সিংড়া থানার ধর্ষণ মামলায় একমাত্র পলাতক আসামি নওশাদ আলীকে গ্রেপ্তার করেছের্ যাব-৫। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়র্ যাব-১৩, রংপুর এর সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে রংপুর মহানগরীর সিও বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।র্ যাব-৫ সিপিসি-২, নাটোর ক্যাম্প থেকে শুক্রবার এক প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। গ্রেপ্তারকৃত নওশাদ আলী নাটোরের সিংড়া থানার শৈলমারী গ্রামের মৃত ঝড়ু মোলস্নার ছেলে।

বেনাপোল প্রতিনিধি জানান, শার্শায় ইউপি সদস্য হত্যা সহ একাধিক মামলার ৩ জন আসামি আগ্নেয়াস্ত্র, গুলিসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার যশোর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) তাদের উপজেলার মহিষাকুড় গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তাররা হলেন- শার্শার মহিষাকুড় গ্রামের নুর আলী মন্ডলের ছেলে শাহবাজ (৬০) আবেদ মোল্যার ছেলে জসিম উদ্দিন (৩৩) ও আমির আলী মন্ডলের ছেলে সাহেব আলী (৪০)।

দাউদকান্দি (কুমিলস্না) প্রতিনিধি জানান, ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিআরটিসি বাস কাউন্টারের সামনে ঢাকাগামী একটি পিকআপ তলস্নাশি চালিয়ে ২০০ বোতল ফেনসিডিলসহ রাসেল মিয়া নামে একজনকে আটক করে দাউদকান্দি মডেল থানা পুলিশ।

আটক রাসেল কুমিলস্না জেলার তিতাস উপজেলার চাঁদপুর গ্রামের মো. আব্দুল খালেক মিয়ার ছেলে।

দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) প্রতিনিধি জানান, বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় আলোচিত অটোভ্যান চালক হারুন হত্যা মামলার পলাতক দুইজন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে দুপচাঁচিয়া থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- দুপচাঁচিয়া সদর ইউনিয়নের ভাটাহার গ্রামের রেজাউল করিম ওরফে রাজ্জাকের ছেলে আয়নুল হক (৩৮) ও একই ইউনিয়নের কুশ্বহর গ্রামের হেলাল ওরফে চান্দুর ছেলে সেলিম ওরফে পল্টু (৪৫)। বৃহস্পতিবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি জানান, বগুড়া ধুনটে ৫০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ রাকিব শেখ (১৯) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে মথুরাপুর বাজারের তিনমাথা মোড়ে মাদকদ্রব্য বিক্রিকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ী রাকিব শেখ ধুনট উপজেলার মথুরাপুর দক্ষিণপাড়া এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে।

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি জানান, আদমদীঘির সান্তাহারে তাসের মাধ্যমে জুয়া খেলার সময় নগদ টাকা সরঞ্জামসহ পাঁচ জুয়াড়িকে গ্রেপ্তার করেছে ফাঁড়ি পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সান্তাহার মালগুদাম চামড়াপট্টি এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- সান্তাহার নতুন বাজার হঠাৎপাড়ার খলিলের ছেলে ফিরোজ হোসেন (৩০), ফজলুর রহমানের ছেলে হেলাল উদ্দিন (৩৫), উপর পোওতায় মন্টুর ছেলে রবিন (৩৩), ইয়ার্ড কলোনির হারান মহন্তের ছেলে রবীনাথ (২৭) ও সান্তাহার আমবাগান এলাকার মতিউর রহমানের ছেলে জনি (২৫)। এ সময় তাদের নিকট থেকে জুয়া খেলার নগদ ১ হাজার ৯৪০ টাকা, এক বান্ডিল তাস ও পস্নাস্টিকের চট উদ্ধার করা হয়।

আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে থানায় জুয়া আইনে মামলা রুজু করে শুক্রবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মধ্যনগর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, সুনামগঞ্জের মধ্যনগরে বিপুল মিয়া (২২) ও মাইফুল বেগম (২৫) নামের দুই মাদক ব্যবসায়ীকে ২৬ বোতল ভারতীয় মদসহ গ্রেপ্তার করেছে মধ্যনগর থানা পুলিশ। শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার চামরদানী ইউনিয়নের দুগনই গ্রাম থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার বিপুল মিয়া ও মাইফুল বেগম উপজেলার চামরদানী ইউনিয়নের দুগনই গ্রামের শফিক মিয়া ছেলে ও ওয়াসিম মিয়া স্ত্রী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে