সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭

ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তরে জাতিসংঘের সম্পৃক্ততা নেই

ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তরে জাতিসংঘের সম্পৃক্ততা নেই

কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের একটি অংশকে ভাসানচরে স্থানান্তরের বিষয়ে তারা (রোহিঙ্গা) যেন সব তথ্য জেনে স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারে তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

বুধবার এক বিবৃতিতে এ বিশ্ব সংস্থা বলেছে, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে নেওয়ার যে পরিকল্পনা সরকার চূড়ান্ত করেছে, তার সঙ্গে জাতিসংঘের কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা নেই।

এ স্থানান্তর প্রক্রিয়ার প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রমে অথবা শরণার্থীদের শনাক্ত করার প্রক্রিয়ায় জাতিসংঘকে সম্পৃক্ত করা হয়নি। স্থানান্তরের সার্বিক কর্মকান্ড সম্পর্কে জাতিসংঘের কাছে পর্যাপ্ত তথ্য নেই।

কক্সবাজারের শরণার্থী শিবির ও তার বাইরে অবস্থান নিয়ে থাকা প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে নিয়ে নানা সামাজিক সমস্যা সৃষ্টির প্রেক্ষাপটে দুই বছর আগে তাদের একটি অংশকে হাতিয়ার কাছে মেঘনা-মোহনার দ্বীপ ভাসানচরে স্থানান্তরের পরিকল্পনা নেয় সরকার।

তবে সাগরের ভেতরে জনমানবহীন ওই চরে আশ্রয় নিতে রোহিঙ্গাদের অনাগ্রহের কারণে এতদিন তাদের সেখানে স্থানান্তর সম্ভব হয়নি।

আগামী সপ্তাহে রোহিঙ্গাদের প্রথম দলকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়ার কথা ইতোমধ্যে জানিয়েছে সরকারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কার্যালয়।

দিনক্ষণ চূড়ান্ত না হওয়ার কথা জানিয়ে প্রত্যাবাসন কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ সামছুদ্দৌজা গত সোমবার বলেছিলেন, 'আগামী ৭-১০ দিনের মধ্যে রোহিঙ্গাদের একটি দলের ভাসানচরে স্থানান্তরের যাবতীয় প্রস্তুতি চলছে।'

রোহিঙ্গাদের প্রথম দলকে সেখানে নেওয়ার প্রস্তুতির মধ্যে বুধবার জাতিসংঘের বিবৃতিতে বলা হয়, স্থানান্তরের বিষয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা যেন 'প্রাসঙ্গিক, নির্ভুল এবং হালনাগাদ' তথ্যের ওপর ভিত্তি করে স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন, তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ বরাবরই আহ্বান জানিয়ে এসেছে এবং বর্তমান পরিস্থিতিতেও জাতিসংঘ এ বিষয়টির ওপর গুরুত্ব আরোপ করছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, 'ইতোপূর্বে বাংলাদেশ সরকার জানিয়েছে যে ওই দ্বীপে শরণার্থীদের স্থানান্তর হবে স্বেচ্ছামূলক। জাতিসংঘ এই গুরুত্বপূর্ণ প্রতিশ্রম্নতির প্রতি সম্মান প্রদর্শনের জন্য সরকারকে আহ্বান জানাচ্ছে।'

ভাসানচরে স্থানান্তরিত রোহিঙ্গাদের শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা এবং জীবিকার নিশ্চয়তা বিধানের পাশাপাশি দ্বীপ থেকে মূল ভূখন্ডে চলাচলের স্বাধীনতা দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে বিবৃতিতে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে