সরকারের ভুলের কারণে মানুষ মরছে :ডা. জাফরুলস্নাহ

সরকারের ভুলের কারণে মানুষ মরছে :ডা. জাফরুলস্নাহ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুলস্নাহ চৌধুরী বলেছেন, সরকারের ভুল নীতির কারণে চিকিৎসাব্যবস্থা পর্যুদস্ত হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের ভুলের কারণে মানুষ মরছে। সরকারের ভুলের কারণে শিক্ষা ধ্বংস হচ্ছে। সরকার ভুল পথ হাঁটছে, সংশোধন করছে না। জনসাধারণকে তার প্রজা মনে করেন। প্রজার কাছে এ ধরনের সরকারের কোনো জবাবদিহি থাকে না।

রোববার রাজধানীর ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের বীর-উত্তম মেজর এ টি এম হায়দার মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। 'করোনা মোকাবিলা, শ্রমিকদের হয়রানি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধসহ সার্বিক পরিস্থিতি' বিষয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সরকার 'ডিপেন্ডেন্সি সিনড্রোমে' ভুগছে মন্তব্য করে জাফরুলস্নাহ চৌধুরী বলেন, দেশে ক্যাপাসিটি আমরা বাড়াতে চাই না। আমরা আমদানি করতে চাই। ভারতপ্রীতি, ভারত ডিপেন্ডেন্সি বাড়াতে চাই। এটাকে ডিপেন্ডেন্সি সিনড্রোম বলে। এটা দেশপ্রেম নয়।

তিনি বলেন, টিকার বিষয়ে সরকার সত্য প্রকাশ করছে না। কত টিকা আছে, কত ডলার দিয়ে করোনার টিকা কিনেছে, সরকার বলছে না। রাশিয়ার সরকার আট ডলারে টিকা দিতে চেয়েছে। স্বাস্থ্যব্যবস্থা একেবারেই ভেঙে পড়েছে। সরকারের উচিত সত্য কথা বলা শেখা। আর কত দিন পালাগান গাইবে? অন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে ছোট করা ছাড়া সরকারের আর কোনো কাজ আছে বলে মনে হয় না। সরকার আজ যা বলছে, কাল তা মানছে না। সরকার লকডাউন দিয়েছে, নিজেই তা মানছে না।

কলকারখানা খোলার ব্যাপারে দ্বিমত নেই উলেস্নখ করে ডা. জাফরুলস্নাহ চৌধুরী বলেন, কলকারখানা খোলার ব্যাপারে কতগুলো নিয়ম আছে। শ্রমিকদের টিকা দিতে হবে। টিকা দেওয়া কঠিন কোনো কাজ না। গার্মেন্ট মালিকদেরও দায়িত্ব আছে। টিকার টাকা তারাই জোগাড় করে দিতে পারেন।

অনুষ্ঠানে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সংবাদ সম্মেলন থেকে বলা হয়, ৬ আগস্ট বেলা ৩টায় রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক নাগরিক সমাবেশ ও পদযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। এ কর্মসূচি থেকে সবার কাছে খাদ্য পৌঁছানো, শ্রমিকদের-শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া, স্বাস্থ্যব্যবস্থায় ঘাটতি পূরণ করা, স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, আদালত ও গণপরিবহণ খুলে দেওয়ার দাবি জানানো হবে।

গণস্বাস্থ্যের মিডিয়া উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টুর পরিচালনায় আরও বক্তব্য রাখেন, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু। উপস্থিত ছিলেন জেএসডির কার্যকরী সভাপতি সা কা ম আনিছুর রহমান খান, বিকল্প ধারা বাংলাদেশের মহাসচিব অ্যাডভোকেট শাহ আহমেদ বাদল, গণফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, ইশতিয়াক আজিজ উলফাত প্রমুখ। অনুষ্ঠানে লিখিত বক্তব্য পাঠান গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে