নিলামে উঠছে প্রিন্সেস ডায়ানা ও চার্লসের বিয়ের কেক

নিলামে উঠছে প্রিন্সেস ডায়ানা ও চার্লসের বিয়ের কেক
বিয়ের কেক (ইনসেটে), বিয়ের দিন প্রিন্সেস ডায়ানা ও প্রিন্স চার্লস -ফাইল ছবি

বিভিন্ন ইসু্যতে বারবার আলোচনায় এসেছে ব্রিটিশ রাজপরিবার। এবার খবর পাওয়া গেল, প্রিন্সেস ডায়ানা ও যুবরাজ চার্লসের বিয়ের এক টুকরা কেক এবার নিলাম উঠছে। ৪০ বছরের পুরনো সেই কেকের টুকরা আগামী ১১ আগস্ট নিলাম হবে। সংবাদসূত্র :সিএনএন, বিবিসি

১৯৮১ সালে প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন ডায়ানা। প্রায় ৪০ বছর আগে তাদের বিয়ে উপলক্ষে রাজপ্রাসাদে আনা হয়েছিল মোট ২৩টি কেক। কেক কাটার পর এক টুকরা যত্ন করে রেখে দিয়েছিলেন রানীর কর্মচারী মোয়রা স্মিথ। সেই টুকরাটিই নিলামে তুলতে যাচ্ছে নিলাম সংস্থা 'ডমিনিক উইন্টার'। কেকের এই টুকরা ৩০০ থেকে ৫০০ পাউন্ডে বিক্রির আশা করছে সংস্থাটি।

কেকের টুকরাটি তখন যেভাবে স্স্নাইস করে কাটা হয়েছিল, ঠিক সে রকমই আছে বলে জানা গেছে। মোয়রা স্মিথ ওই টুকরাটি অতি যত্নে নিজের কাছে রেখে দেন ২০০৮ সাল পর্যন্ত। পরে একজন স্স্নাইসটি তার থেকে চেয়ে নিজের বাড়িতে রাখেন। পরবর্তী সময়ে নিলাম প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে যোগাযোগ হয় তাদের।

ডমিনিক উইন্টার সংস্থাটি বলছে, 'আমরা ধারণা করছি, এটি এখনো ভালো আছে, তবে খাওয়ার ব্যাপারে আমরা মানুষকে সতর্ক করছি।'

এর আগে প্রয়াত ব্রিটিশ রাজবধূ প্রিন্সেস ডায়ানার ব্যবহার করা একটি গাড়ি নিলামে বিক্রি হয়। গাড়িটি ৫২ হাজার পাউন্ডে কিনে নেয় দক্ষিণ আমেরিকার একটি জাদুঘর। সিলভার রঙের গাড়িটি প্রিন্সেস ডায়ানাকে 'এনগেজমেন্ট' উপহার হিসেবে দিয়েছিলেন প্রিন্স চার্লস।

উলেস্নখ্য, ১৯৬১ সালের ১ জুলাই জন্ম নেওয়া লেডি ডায়ানা 'ফ্রান্সেস স্পেন্সার' (বিবাহ পরবর্তী নাম ডায়ানা ফ্রান্সেস মাউন্টব্যাটেন-উইন্ডসর) যুবরাজ চার্লসের প্রথম স্ত্রী এবং ১৯৮১ থেকে ১৯৯৭ পর্যন্ত ছিলেন যুক্তরাজ্যের যুবরাজ্ঞী। তার ছেলে রাজপুত্র উইলিয়াম ও হ্যারি, ব্রিটিশ মসনদের উত্তরাধিকারীদের তালিকায় যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয়।

১৯৯৬ সালে বিবাহ বিচ্ছেদ পর্যন্ত তাকে 'হার রয়্যাল হাইনেস দ্য প্রিন্সেস অফ ওয়েল্‌স' বলে সম্বোধন করা হতো। এর পরে রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের আদেশক্রমে তাকে শুধু 'প্রিন্সেস অফ ওয়েল্‌স' বলে সম্বোধনের অনুমতি দেওয়া হয়।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ডায়ানার পরিচিতি ব্যাপক। দানশীলতার জন্য তিনি বিখ্যাত ছিলেন। কিন্তু তার এই দাতব্য কার্যক্রম ঢাকা পড়ে যায় বিভিন্ন কেলেঙ্কারির গুজবে। যার মধ্যে ছিল তার বিয়ে সংক্রান্ত নানা কাহিনী। চার্লসের সঙ্গে ডায়ানার বিয়ে সুখের হয়নি। ১৯৯০-এর দশকে ডায়ানার পরকীয়া প্রেমের কাহিনী সারা বিশ্বের পত্র-পত্রিকায় ছড়িয়ে পড়ে। নানা কারণে অবশেষে ১৯৯৬ সালে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।

চার্লসের সঙ্গে বাগদানের পর থেকে ১৯৯৭ সালে মৃতু্যর পূর্ব পর্যন্ত ডায়ানাকে বলা হতো পৃথিবীর সবচেয়ে খ্যাতিমান মহিলা। ফ্যাশন, সৌন্দর্য, এইডস রোগ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে তার অবদান এবং ভূমি মাইনের বিরুদ্ধে তার আন্দোলন তাকে বিখ্যাত করেছে। তার জীবদ্দশায় ডায়ানাকে বলা হতো বিশ্বের সর্বাধিক আলোকচিত্রিত নারী। অবশ্য সমালোচকদের মতে, এই খ্যাতির জন্য প্রচেষ্টাই ডায়ানার জীবনে কাল হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

১৯৯৭ সালে ফ্রান্সের প্যারিস শহরে ডায়ানা ও তার তখনকার প্রেমিক দোদি আল-ফায়েদ এক গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে