এবার গ্যাসের দাম বৃদ্ধি মানা হবে না -ডক্টর খন্দকার মোশাররফ

এবার গ্যাসের দাম বৃদ্ধি মানা হবে না -ডক্টর খন্দকার মোশাররফ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ডক্টর খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, সরকার ফের গ্যাসের দাম বৃদ্ধির 'পায়তারা' করছে। কিন্তু এবার গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করা যাবে না, কোনো রকমের বৃদ্ধি মেনে নেওয়া হবে না।

শুক্রবার সকালে এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলে ঢাকা মহানগর বিএনপি উত্তর-দক্ষিণের যৌথ উদ্যোগে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮৬তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়।

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের বিরোধিতা করে খন্দকার মোশাররফ বলেন, এ সরকার অর্থনৈতিকভাবে, রাজনৈতিকভাবে শোষণ করছে। তারা ইতিমধ্যে তেল-বিদু্যতের দাম বাড়িয়েছে। এ সরকার জনগণের সরকার নয়, তাদের কোনো ম্যান্ডেট নেই। অতএব এসব অনাচার থেকে রক্ষা পেতে হলে এ সরকারকে বিদায় করতে হবে। খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সরকার নির্যাতন করে, সংবাদ মাধ্যমের কণ্ঠ রোধ করে গুম-খুন-বিচারবহির্ভূত হত্যা-মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলো চাপা দিতে চেয়েছিল। কিন্তু ধামাচাপা দেওয়া সম্ভব হয়নি। আজ সারা দুনিয়া জেনেছে, এ দেশে মানবাধিকার নেই, গণতন্ত্র নেই।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ মনে করেছিল, নির্যাতন করে, নিষ্পেষণ করে, মুখ বন্ধ করে রেখে বোধ হয় পার পেয়ে যাচ্ছি। পার পায়নি। যুক্তরাষ্ট্রে আয়োজিত গণতন্ত্র সম্মেলনে বাংলাদেশ আমন্ত্রণ পায়নি। তাহলে এটা স্বীকৃত যে- বাংলাদেশে গণতন্ত্র নেই। এখন বিএনপির বলার দরকার হয় না যে বাংলাদেশে মানবাধিকার নেই। যে দেশে গণতন্ত্র নেই, সে দেশে মানবাধিকার থাকতে পারে না। বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে, এটা বারবার বলা হয়েছে, গুম-বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডের কত হিসাব দেওয়া হয়েছে। বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ১ লাখের বেশি মামলা, ৩৫ থেকে ৩৬ লাখের মতো আসামি। একটা গণতান্ত্রিক দেশে এটা হতে পারে না।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, একটি সংস্থার ওপরে নিষেধাজ্ঞা এসেছে। কতগুলো হাই অফিশিয়ালের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা এসেছে। এটা গৌরবের বিষয় নয়, জাতি হিসেবে এটা লজ্জার বিষয়। ১২টি মানবাধিকার সংস্থা জাতিসংঘকে চিঠি দিয়ে বলেছে, জাতিসংঘের শান্তি মিশনে যেন র?্যাবের সদস্যরা যেতে না পারেন। শুধু গায়ের জোরে ক্ষমতায় থাকার জন্য আন্তর্জাতিকভাবে বাংলাদেশকে হেয়প্রতিপন্ন করছে সরকার।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে বিএনপিকে দায়িত্ব নিতে হবে। গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। জনগণের সরকার ফিরিয়ে আনতে হবে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালামের সভাপতিত্বে সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু ও উত্তরের আমিনুল হকের সঞ্চালনায় সভায় মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমান উলস্নাহ আমান, কেন্দ্রীয় নেতা নাজিম উদ্দিন আলম, আবদুস সালাম আজাদ, যুবদলের সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, কৃষক দলের শহিদুল ইসলাম বাবুল, ওলামা দলের শাহ নেসারুল হক, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাইফুল ইসলাম ফিরোজ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে