২২ মে থেকে চালু হবে ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন

২২ মে থেকে চালু হবে ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন

রাজশাহী থেকে ঢাকায় আম পরিবহণের জন্য এবারও চালু হচ্ছে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন। আগামী ২২ মে থেকে চালু হচ্ছে এই ট্রেন। এক জোড়া ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন রহনপুর-চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী হয়ে ঢাকায় যাবে। আবার ঢাকা থেকে রাজশাহী হয়ে রহনপুর আসবে। পশ্চিম রেলের এই বিশেষ ট্রেন শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফলমূল ঢাকায় নিয়ে যাবে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও কম খরচে আম পরিবহণের জন্য ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু করা হবে। আগামী ২২ থেকে ২৫ মের মধ্যে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু করার কথা রয়েছে। তবে এর আগে অনুষ্ঠেয় সভায় চাষিদের চাহিদা বিষয়ে আলোচনা হবে।

তিনি বলেন, গুটি জাতের আম যেহেতু ঢাকায় তেমন চাহিদা নেই তাই ২০ তারিখের পর গোপালভোগসহ মিষ্টি জাতের আম পাড়া শুরু হলে তখন ট্রেন চালু হবে। আনুমানিক ২২ থেকে ২৫ তারিখের মধ্যে সময়টা হবে।

প্রতি কেজি আমে ভাড়া কী পরিমাণ হবে তা জানতে চাইলে জিএম বলেন, গতবারে যা ছিল এবারও ভাড়া তাই হবে। তবে এ নিয়ে সভা করা হবে।

\হট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ছেড়ে যাবে এবং ঢাকায় রাত ২টার দিকে পৌঁছবে। এ ক্ষেত্রে খুব অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকার বাজারগুলোতে তরতাজা সতেজ আম পৌঁছানো সম্ভব হবে। যানজট ও উঁচু-নিচু জায়গা না থাকায় আমেরও কোনো প্রকার ক্ষতির সম্ভাবনা নেই।

গতবার প্রতিদিন দুপুর ২টায় রহনপুর থেকে ছেড়ে রাত ১টায় আমবাহী ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছেছে। আবার রাত ২টা ১৫ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে রহনপুরে পৌঁছেছে বেলা ১১টায়। রাজশাহী অঞ্চল থেকে ঢাকায় স্বল্প সময়ে আম পৌঁছাতে গত বছর ২৫ মে 'ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন' চালু হয়। পাঁচটি ওয়াগনে ঢাকায় যায় রাজশাহী অঞ্চলের আম।

প্রতি বগির ক্যারিং ক্যাপাসিটি ৪৩ মেট্রিক টন হলেও আম বহন করা হয় ৩০ মেট্রিক টন। শুধু আম নয়, আমের সঙ্গে শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফলমূলও ট্রেনে পরিবহণ হয়েছে সেবার।

পশ্চিমাঞ্চল রেল সূত্রে জানা যায়, ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেনটি রহনপুর-চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী হয়ে ঢাকা এলেও ফেরার পথে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থামবে না। রহনপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও আমনুরা থেকে ঢাকা পর্যন্ত প্রায় ৪০০ কিলোমিটার পথের জন্য প্রতি কেজি আম পরিবহণের ভাড়া প্রস্তাব করা হয়েছে এক টাকা ৩০ পয়সা।

আর রাজশাহী থেকে ঢাকা পর্যন্ত ৩৪৩ কিলোমিটার পথের জন্য প্রতি কেজি আমে ভাড়া দিতে হবে এক টাকা ১৭ পয়সা। এই ট্রেনে মোট পাঁচটি বগি থাকে। প্রতিটি বগির ৪৩ টন ধারণক্ষমতা রয়েছে। তবে আম ভালো থাকার দিক বিবেচনা করে ১৫০ টনের মতো আম পরিবহণ করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে