আঘাত এলে পাল্টা প্রতিরোধ :গয়েশ্বর

আঘাত এলে পাল্টা প্রতিরোধ :গয়েশ্বর

খালেদা জিয়াকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উক্তিকে হত্যার শামিল অভিহিত করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, 'এটা ক্রিমিনাল কোর্টে অ্যাটেম টু মার্ডার। তাই এখনো সময় আছে, খালেদা জিয়ার বাসভবনে গিয়ে ক্ষমা চান, ক্ষমা পাবেন।'

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও নোবেল বিজয়ী ডক্টর মুহাম্মদ ইউনূসকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রত্যাহার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম কমানোর দাবিতে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, 'খালেদা জিয়াকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কটূক্তি আর হত্যার হুমকিতে সরকারের পোষ্য আদালত মামলা নেবে না। কোনো থানাও এই মামলা নেবে না। কিন্তু জনগণের আদালতে মামলাটা অবশ্যই গ্রহণ হবে,

সেই বিচারটা জনগণের আদালতে হবে যদি আপনি দেশে থাকেন।'

ক্ষমতাসীনদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, 'এখন থেকে যেখানে আঘাত আসবে সেখানে পাল্টা প্রতিরোধ এবং আঘাত করতে হবে। এই আঘাত করার জন্য সব সময় প্রস্তুত থাকতে হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদল মার খেয়েছে। তার জন্য মর্মাহত। কিন্তু ধন্যবাদ ও সংগ্রামী অভিনন্দন জানাই যে, তারা পাল্টা প্রতিরোধ করেছে। সুতরাং এখন থেকে যেখানে আঘাত আসবে সেখানে পাল্টা প্রতিরোধ এবং আঘাত করতে হবে।'

নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্য গয়েশ্বর বলেন, 'এই সরকারের অধীন কোনো নির্বাচনে যাব না। আর নির্বাচনও হবে না। সুতরাং চুপচাপ বসে থাকেন। কারও ইচ্ছা বাস্তবায়ন করার সুযোগ আপনাদের দেওয়া হবে না।'

জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খানের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য জয়নুল আবদিন ফারুক, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক জয়নাল আবেদিনসহ মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে