ব্রহ্মপুত্রে দুই সেতু নির্মাণে চরাঞ্চল এখন উপশহর

ব্রহ্মপুত্রে দুই সেতু নির্মাণে চরাঞ্চল এখন উপশহর

জামালপুরের বুক চিরে বয়ে যাওয়া ব্রহ্মপুত্র নদ জেলাটিকে দ্বিখন্ডিত করেছে। অনুন্নত একটি অংশ পূর্বচর, উন্নয়নের ক্ষেত্রে পিছিয়ে ছিল। ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর দুটি সেতু নির্মাণে চরাঞ্চল এখন উপশহরে পরিণত হয়েছে। পাল্টেছে স্থানীয় মানুষের জীবনচিত্র।

জানা গেছে, ২০১৩ সালে ইসলামপুর উপজেলার পাইলিং ঘাট হতে গোয়ালেরচর সড়কে 'বীর উত্তম শহীদ খালেদ মোশারফ সেতু' ও মেলান্দহের ডেফলা ঘাট হতে ইসলামপুরের ডিগ্রিরচর আমডাঙ্গা সড়ক পর্যন্ত 'শহীদ লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল সেতু' নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করেন বর্তমান সরকার। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে প্রায় সোয়া ২শ' কোটি টাকা ব্যয়ে ৫৬০ মিটার দৈর্ঘের সেতু দুটি ২০১৮ সালের ১১ অক্টোবর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাত্র ৫ বছরেই ইসলামপুরের চারটি ইউনিয়ন ও মেলান্দহের একটি ইউনিয়ন চরাঞ্চল থেকে উপশহরে পরিণত হয়েছে। বকশিগঞ্জ ও পার্শ্ববর্তী শেরপুর জেলার লোকজন সেতু দুটি দিয়ে যাতায়াতের ফলে এ অঞ্চলের মানুষের সঙ্গে গড়ে উঠেছে গভীর মিতালি। গাইবান্ধা ইউনিয়নের সুবহান

আলী, মিঠুন মিয়া, হারুন আলীসহ একাধিক কৃষক বলেন, অনেক পরিশ্রম করে ফসল ফলিয়ে ন্যায্যদামে বিক্রি করতে পারিনি। সার কীটনাশক অনেক কষ্টে ঘাড়ে বহন করে আনতে হতো। এখন সার, কীটনাশক ও শস্যের গাড়ি বাড়িতেই আসে।

গ্রামগুলো প্রায় শহরে পরিণত হওয়ায় চরপুটিমারী ইউনিয়নের পলস্নী চিকিৎসক বর্তমানে ঢাকায় বসবাসকারী আলালউদ্দিন সেতু দুটি নির্মাণে ভূমিকা রাখার জন্য ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

শেরপুর জেলার কামারের চরের বাসিন্দা পথচারী মনিরুজ্জামান ও তার স্ত্রী বলেন, আগে ইসলামপুর আসতে জামালপুর হয়ে যেতে হতো। সেতু হওয়াতে এখন অল্প সময়ে স্বল্প খরচে ইসলামপুর যেতে পারি। এক সময়ের চরাঞ্চল এখন তো আর চর মনে হয় না, যেন শহর!

পোড়ারচর টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আজাদ বারী বলেন, ছেলেমেয়েদের লেখাপড়ার জন্য অনেক কষ্ট করে খেয়া নৌকায় পার হয়ে পৌরশহরের স্কুল-কলেজে যেতে হতো। সেতু নির্মাণের পর অসংখ্য স্কুল ও কলেজ এ অঞ্চলে হওয়ায় লেখাপড়ার হার বৃদ্ধি হয়েছে।

এদিকে, সেতু নির্মাণের পাশাপাশি হাটবাজার, রাস্তা-ঘাট, বিদু্যৎ, চিকিৎসা কেন্দ্রসহ অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনের মধ্যদিয়ে এ অঞ্চলে শহরের ছোঁয়া লেগেছে। শিক্ষা, ব্যবসাসহ কৃষি ক্ষেত্রেও উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এ অঞ্চলের মানুষ। কর্মক্ষেত্রে নিত্যনতুন সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য স্থাপন করা হয়েছে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র। এতে কমছে অপরাধ, বদলেছে মানুষের জীবনচিত্র, চরাঞ্চল হয়েছে উপশহর।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে