মোদিকে প্রতিরোধের আহ্বান প্রগতিশীল ছাত্রজোটের

মোদিকে প্রতিরোধের আহ্বান প্রগতিশীল ছাত্রজোটের

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমন প্রতিরোধ করার আহ্বান জানিয়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট। বৃহস্পতিবার মধুর ক্যানটিনের সামনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী, শুক্রবার বিকাল ৩টায় রাজু ভাস্কর্যে মোদি বিরোধী সমাবেশ ও মিছিল এবং আগামী ২৫ মার্চ সন্ধ্যায় মশাল মিছিল করবে সংগঠনটি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফয়েজ উলস্নাহ।

তিনি বলেন, জনগণের ম্যান্ডেট ছাড়া ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত শাসকগোষ্ঠী জনগণকে বিচ্ছিন্ন রেখে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালনের ডাক দিচ্ছে। এমতাবস্থায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিবশতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার আগমনের প্রতিবাদ জানাচ্ছে বিবেকবান মানুষ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।

মোদিকে সুবর্ণজয়ন্তীতে আমন্ত্রণ জানানো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থি উলেস্নখ করে ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি ফয়েজ উলস্নাহ বলেন, আমরা দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই- মোদির আগমনের প্রতিবাদ জানানো ন্যায়সঙ্গত অধিকার। বরং ভারতের দাঙ্গাবাজ, সাম্প্রদায়িক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সুবর্ণজয়ন্তীতে আমন্ত্রণ জানানো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থি। এই মোদির হাতে এখনও গুজরাটের হাজার হাজার মানুষের রক্তের দাগ লেগে আছে। মানবতাবিরোধী নাগরিকত্ব আইন করে আসাম ও পশ্চিম বাংলা থেকে কয়েক লাখ বাঙালিকে বাংলাদেশে ঠেলে দেওয়ার আয়োজন করেছে মোদি সরকার। প্রবলভাবে সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দিচ্ছে। ভারতের জনগণের ন্যায়সঙ্গত সব আন্দোলনকে কঠোরভাবে দমন করছে। কৃষক আন্দোলনে আমরা মোদি সরকারের ফ্যাসিস্ট রূপ দেখেছি।

তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধে গণমানুষের যে আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে দাঙ্গাবাজ ও সাম্প্রদায়িক উসকানিদাতা মোদির অংশগ্রহণ ইতিহাসের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। আমরা তা হতে দিতে পারি না। বাংলাদেশের সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে ভারতীয় আগ্রাসন ও সাম্প্রদায়িক মোদির আগমনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানাই। একইসঙ্গে জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নেওয়ায় আওয়ামী সরকারের বিরুদ্ধেও আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানাই।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিপস্নবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবির, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি মাসুদ রানা, ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি জাহিদ সুজন, বিপস্নবী ছাত্র-যুব আন্দোলনের সভাপতি আতিক অনিক, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয়, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিপুল চাকমা প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে