নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প, নিরাপদে টাইগাররা

সবাই সুস্থ আছে। লজিস্টিকস ম্যানেজার সাব্বির খানের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনিই জানিয়েছেন, কারও কোনো সমস্যা হয়নি। গভীর রাতে ভূমিকম্প হয়েছে। দলের সবাই তখন ঘুমিয়ে ছিল। কেউই আসলে টের পায়নি। আকরাম খান
নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প, নিরাপদে টাইগাররা
শুক্রবার ভোররাতে নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প হলেও ঘুমের মধ্যে থাকায় বুঝতে পারেননি টাইগার ক্রিকেটাররা। শুক্রবার জিম অনুশীলনে সৌম্য সরকার, মুস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। অনুশীলনের এক পর্যায়ে সেলফিতে হাস্যোজ্জ্বল বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা -ওয়েবসাইট

বাংলাদেশ দল যখন নিউজিল্যান্ডে, তখন অবশ্য ঘরপোড়া গরুর মতো একটু কিছুতেই শঙ্কা জাগে। আগের সফরে ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে বন্দুকধারীর হামলার মাঝে পড়া থেকে একটুর জন্য বেঁচে গেছেন তামিম-মুশফিকরা। এবার ভূমিকম্পে কেঁপেছে গোটা নিউজিল্যান্ড। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ৭.৩ বলে জানিয়েছে দেশটির জাতীয় জরুরি ব্যবস্থাপনা সংস্থা (এনইএমএ)। শুরুতে সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও কয়েক ঘণ্টা পর তা উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। নিউজিল্যান্ডে অবস্থানরত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়, কর্মকর্তাসহ সবাই নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছে বিসিবি।

স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ২টা ২৭ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৯টা ২৭ মিনিটে) ভূমিকম্প আঘাত হানে নিউজিল্যান্ডে। এটির উৎপত্তিস্থল দেশটির উত্তর-পূর্ব উপকূলবর্তী অঞ্চলের শহর গিসবর্ন থেকে ১৮০ কিলোমিটার দূরে। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতত্ত্ব সমীক্ষা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটি সৃষ্টি হয়েছিল।

বিসিবির পরিচালক ও ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান গণমাধ্যমকে জানান, 'সবাই সুস্থ আছে। লজিস্টিকস ম্যানেজার সাব্বির খানের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনিই জানিয়েছেন, কারও কোনো সমস্যা হয়নি। গভীর রাতে ভূমিকম্প হয়েছে। দলের সবাই তখন ঘুমিয়ে ছিল। কেউই আসলে টের পায়নি।'

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস নিউজিল্যান্ডে আছেন বাংলাদেশ দলের সঙ্গে। বিসিবির মিডিয়া বিভাগের মাধ্যমে তার বার্তা এসেছে। জানিয়েছেন, টিম টাইগার্স যে অঞ্চলে আছে সেটি সুনামি সতর্কতা অংশের মধ্যে পড়ে না।

লিংকন গ্রিন মাঠে তামিম-সৌম্য যথারীতি অন্য একটি স্বাভাবিক দিনের মতোই তাদের নির্ধারিত অনুশীলন পর্বে অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন জালাল ইউনুস।

তিনটি করে ওয়ানডে ও টি২০ সিরিজ খেলতে বর্তমানে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্ট চার্চে রয়েছে বাংলাদেশ দল। সেখানে ভূমিকম্প ততটা অনুভূত হয়নি। তাই তামিম ইকবাল-মুশফিকুর রহিমদের নিয়ে শঙ্কার কোনো কারণ নেই। বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন গণমাধ্যমকে বলেছেন, '(নিউজিল্যান্ডে অবস্থানরত) টিম ম্যানেজমেন্টের দু'জনের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। গভীর রাতে খেলোয়াড়রা সবাই ঘুমিয়ে ছিল। কেউ টেরই পায়নি। সবাই ভালো আছে।'

ইউএসজিএস প্রথমে ভূমিকম্পের মাত্রা ৭.৩ বলে উলেস্নখ করেছিল। পরবর্তীতে তারা জানিয়েছে, এটির মাত্রা ছিল ৬.৯। ভূমিকম্পের পর সুনামির আশঙ্কায় চলাচলের ক্ষেত্রে সতর্কতা জারি করা হয়েছিল। নিউজিল্যান্ডের গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ইতোমধ্যে সতর্কতা তুলে নিয়ে উপকূলবর্তী জনগণকে বাড়িতে ফিরতে বলা হয়েছে।

এর আগে ২০১১ সালে ৬.৩ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত করেছিল নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে। ভয়াবহ ওই প্রাকৃতিক দুর্যোগে ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল শহরটি। নিহত হয়েছিলেন ১৮৫ জন। সেই শহরেই বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা অবস্থান করছেন।

ডানেডিনে দু'দলের ওয়ানডে সিরিজ শুরু হবে আগামী ২০ মার্চ। ২৩ মার্চ দ্বিতীয় ওয়ানডের ভেনু্য ক্রাইস্টচার্চ। ওয়েলিংটনে শেষ ওয়ানডে হবে ২৬ মার্চ। এরপর হ্যামিল্টনে ২৮ মার্চ মাঠে গড়াবে টি২০ সিরিজ। ৩০ মার্চ দ্বিতীয় টি২০ হবে নেপিয়ারে। অকল্যান্ডে শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ১ এপ্রিল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে