logo
রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৫ আশ্বিন ১৪২৭

  যাযাদি রিপোর্ট   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

তৃতীয় এইচআরসি গলফ কাপ টুর্নামেন্ট সমাপ্ত

তৃতীয় এইচআরসি গলফ কাপ টুর্নামেন্ট সমাপ্ত
চট্টগ্রামের ভাটিয়ারী গলফ অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাব (বিজিসিসি) চত্বরে শনিবার তৃতীয় এইচআরসি গলফ কাপ টুর্নামেন্টের সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথিদের সঙ্গে ট্রফি হাতে বিজয়ীরা -যাযাদি

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামের ভাটিয়ারী গলফ অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাব (বিজিসিসি) চত্বরে তৃতীয় এইচআরসি গলফ কাপ টুর্নামেন্ট শনিবার সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে আয়োজিত দুই দিনব্যাপী এই টুর্নামেন্টে উইনার মীর্জা সালমান ইস্পাহানী। রানারআপ হয়েছেন মেজর মো. ফারুকুজ্জামান ফকির ও সেকেন্ড রানারআপ মমতাজউদ্দিন আহম্মেদ। বেস্ট গ্রস আরাফাতুল ইসলাম ফাহিম, সেকেন্ড বেস্ট গ্রস হোসাইন মোহাম্মদ সোয়াইব, (২২-২৪ হ্যান্ডিকাপ) বেস্ট নেট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আমিরুল ইসলাম সিকদার, (২২-২৪ হ্যান্ডিকাপ) সেকেন্ড বেস্ট গ্রস রুবায়েত তানভির। লেডিস উইনার মিসেস কামরুন্নেসা এহসান, রানারআপ মিসেস ওবাইদা সাঈদ। নাইন হোল উইনার ইয়াসরিব ইয়াসির ফারুক, রানারআপ মোহাম্মদ আব্দুস সালাম। সিনিয়র উইনার জে কে ক্যাং, জুনিয়র উইনার মাস্টার মাবরুর মোহাম্মদ মাফি ও জুনিয়র রানারআপ মাস্টার তাসনিম কারার। বেস্ট ফ্রন্ট নাইন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম সামসুল সালেকিন, বেস্ট বেক নাইন মেজর এ কে এম মোবাশ্বের আলী, লঙ্গেস্ট ড্রাইভ যাহিন আহম্মেদ ও নেয়ারেস্ট টু পিন মোহাম্মদ আব্দুল কাইয়ুম। টুর্নামেন্টে সিনিয়র গ্রুপে ৯ জন, জুনিয়র গ্রুপে ২১ জন ও মহিলা গ্রুপে ১৫ জনসহ মোট ১৯৮ জন গলফার অংশগ্রহণ করেন। টুর্নামেন্ট শেষে রাতে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন ভাটিয়ারী গলফ অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট (গলফ) ও ইস্পাহানী গ্রুপের  ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর্জা সালমান ইস্পাহানী। স্পন্সর এইচআরসি শিল্প পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র ডাইরেক্টর ও দৈনিক যায়যায়দিনের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কাজী রুকুনউদ্দীন আহমেদ। পুরস্কার বিতরণীয় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি মীর্জা সালমান ইস্পাহানী আগত অতিথিদের স্বাগত জানান। তিনি এই টুর্নামেন্টে সার্বিক সহযোগিতার জন্য এইচআরসি গ্রুপকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, প্রতিযোগিতামূলক চায়ের বাজারে এইচআরসি অত্যন্ত সফলভাবে নিজের অবস্থান শীর্ষ কাতারে এনে দাঁড় করিয়েছে। আমাদের পুরানো সর্বোত্তম বন্ধু সাঈদ হোসেন চৌধুরীর দক্ষ নেতৃত্বে এইচআরসি গ্রুপ সফলতার সঙ্গে সামনের দিকে এগিয়ে চলছে। এ ধরনের টুর্নামেন্টে এইচআরসি শিল্প পরিবার সবসময় পাশে থাকবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের এইচআরসি শিল্প পরিবারের পক্ষ থেকে স্বাগত জানান এইচআরসি গ্রুপের সিনিয়র ডাইরেক্টর এবং দৈনিক যায়যায়দিনের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কাজী রুকুনউদ্দীন আহমেদ। তিনি জানান, ১৯৯১ সালে যাত্রা শুরু করা এইচআরসি আজ নানা 'ডাইভাসির্ভায়েড' ব্যবসায় জড়িত। বিদেশে চা রপ্তানি, দেশি বাজারে চা ডিস্ট্রিবিউশন, শিপিং, রিয়েল এস্টেট, ফরেন রিপ্রেজেন্টেশন, লাইটিং, বাল্ব ম্যানুফ্যাকচারিং, রিটেল ও মার্চেন্ট ব্যাংকিং এবং মিডিয়া বিজনেস সবক্ষেত্রেই এইচআরসি সুনামের সঙ্গে অভিজ্ঞতা অর্জন করে চলেছে। কাজী রুকুনউদ্দীন আহমেদ তার বক্তব্যে বিশেষভাবে উল্লেখ করে বলেন, এ বন্দর নগরীতেই ১৯৯১-এর মার্চ মাসে এইচআরসি গ্রুপ তার যাত্রা শুরু করে। আর সেখানেই তিন বছর ধরে এইচআরসি কাপ গলফ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যা সত্যিই আনন্দের। এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করার জন্য তিনি ভাটিয়ারি গলফ অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাব (বিজিসিসি) কর্তৃপক্ষকে এইচআরসি গ্রুপের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পাশাপাশি টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারীদেরও তিনি আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ভাটিয়ারী গলফ অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট (কান্ট্রি) মিয়া মোহাম্মদ আব্দুর রহিম, বিজিসিসির সিইও লে. কর্নেল মো. তৌফিকুল ইসলাম। টুর্নামেন্ট পরিচালনায় ছিলেন টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান ফরিদউদ্দিন। এছাড়াও এইচআরসি গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্টর (টি) মো. ইদ্রিস উপস্থিত ছিলেন। স্পন্সরের পক্ষে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন এইচআরসি গ্রুপের  জেনারেল ম্যানেজার (লাইটিং) রেদুয়ানূল আজিজ। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ শেষে দেশবরেণ্য সংগীতশিল্পীরা বাংলা গানের সুরে উপস্থিত শ্রোতাদের মন মাতিয়ে রাখেন। নৈশভোজের পর র‌্যাফেল ড্র-র মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। পুরস্কার বিতরণী শেষে অতিথিদের মধ্যে ১০টি এবং গলফারদের মধ্যে ১০টি করে র‌্যাফেল ড্র পুরস্কার রাখা হয়। অতিথিদের ১ম পুরস্কার ছিল রেডিসন ব্লু হোটেল চট্টগ্রামে দুজনের এক রাত বুফে ডিনার ও ব্রেকফাস্ট। এছাড়া স্যামসাং গ্যালাক্সি এ২০ মোবাইল, স্যামসাং মাইক্রো ওভেন, মিয়াকো ফিস গ্রিল ইলেকট্রিক ওভেন, মিয়াকো এসপ্রেসো কফি মেকার, মিয়াকো মিক্সার গ্রাইন্ডার, পিওরইট ওয়াটার ফিল্টার, মিয়াকো ব্লেন্ডার, প্রেসার কুকার ও টোস্টার পুরস্কার দেওয়া হয়। আর খেলোয়াড়দের মধ্যে প্রথম পুরস্কার ছিল কেপিজি গলফ ব্যাগ। এছাড়া গলফ শু, স্ট্যান্ড গলফ ব্যাগ, গলফ লফট, গলফ ট্রলি, গলফ চিপার, গলফ গিফট হ্যাম্পার পুরস্কার দেওয়া হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে