ডুমুরিয়ায় ঘর পেল ১৪০ পরিবার

ডুমুরিয়ায় ঘর পেল ১৪০ পরিবার

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে খুলনার ডুমুরিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৪০টি ঘরের উদ্বোধন করেছেন। শনিবার সকালে গণভবন থেকে তিনি সরাসরি ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের উদ্বোধনী এ কর্মসূচিতে যোগ দেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি কথা বলেন, সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল ওয়াদুদ। ডুমুরিয়ার কাঁঠালতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পেছনে ভদ্রা নদীর তীরে উৎসবমুখর পরিবেশে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত ভার্চুয়াল ওই সভায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে যেয়ে আনন্দে কেঁদে ফেলেন ঘর পাওয়া পারভীন নামে এক নারী। নিজের স্বামী নিয়মিত কাজ পায় না এবং খেয়ে না খেয়ে জীবন কাটে জানিয়ে পারভীন ভার্চুয়াল সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলেন, আমার স্বামী কাজ পায় না। খেয়ে না খেয়ে দিন যায় আমাদের। কোথাও মাথা গোঁজার ঠাঁই ছিল না। কোনোদিন ভাবিনি আমাদের ঘর হবে। আপনি আমাদের ঘর দিয়েছেন, জমিও দিয়েছেন। আপনি দীর্ঘদিন বেঁচে থাকুন এই বলে উপকারভোগী ওই নারী কৃতজ্ঞতায় কাঁদতে থাকেন। এ সময়ে প্রধানমন্ত্রী তাকে সান্ত্বনা দিয়ে বলেন, আপনি কাঁদবেন না। আমি যেটা করেছি মনে করি এটা আমার কর্তব্য। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এবং জাতির পিতার কন্যা হিসেবে দেশের মানুষের জন্য আমৃত্যু কাজ করে যাব। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে এবং দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে হবে, সেজন্য আমার জীবনকে উৎসর্গ করেছি। প্রধানমন্ত্রী প্রত্যেকটি ঘরের সামনে একটি করে বরই গাছ লাগানোর আহ্বান জানান।

কাঁঠাতলা ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. ইসমাইল হোসেন, খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল খান, পুলিশ সুপার এসএম শফিকুল ইসলাম, ডুমুরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এজাজ আহমেদসহ সরকারি সকল কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও সরকারি দলের নেতারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে