সোনাইমুড়ীতে পিআইওসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

সোনাইমুড়ীতে পিআইওসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে গাছ কাটা ও মারধরের অভিযোগে উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা (পিআইও)সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার বজরা ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামের মৃত মোহাম্মদ হোসেন ভূঁইয়ার ছেলে ব্যবসায়ী আবদুল জাহের ভূঁইয়া বাদী হয়ে নোয়াখালী আদালতে মামলাটি করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৮৩নং বদরপুর মৌজার ২৬২, ২৬১ ও ২৫৭নং দাগের পাশে উপজেলা প্রশাসন ১নং খাঁস খতিয়ান সম্পত্তিতে বঙ্গবন্ধু ভিলেজ করতে উদ্যোগ নেয়। গত ২২ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে ঐ প্রকল্প এলাকায় গিয়ে উপজেলা পিআইও আহামেদ উল্যা সবুজ ঐ মালিকানা দাগের সম্পত্তি থেকে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কাটতে এলাকার লোকজনদের নির্দেশ দেন। ৩ টি তাল গাছ ও ১টি নারিকের গাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে ফেলে। গাছের প্রকৃত মালিক আবদুর জাহের (৫৭) বাঁধা প্রদান করিলে পার্শ্ববর্তী হাসানপুর গ্রামের আবদুল রহিম ওরপে শামীম, কিরণ, রাজু, ইউসুপ ও ফারুক দেশী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে তাকে দাওয়া করে এলোপাতাড়ি পিটাতে থাকলে সে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তার চাচাতো ভাই শারীরিক প্রতিবন্ধী তোফাজ্জল হোসেন (৫০), তার সহোদর মোঃ ইসমাইল ভূঁইয়া (৬৫), তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৫০) তার ভাইয়ের স্ত্রী নুরনাহার (৫০) ও ভাতিজা রাতুল (১২)কে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে।

পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। বৃহস্পতিবার নোয়াখালীর সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৬নং আমলী আদালতে পিটিশন মামলা নং-২৭/২০২১ইং দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত নোয়াখালী গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)কে মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

সোনাইমুড়ী উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা (পিআইও) আহামেদ উল্যা সবুজ জানান, তিনি উক্ত ঘটনা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। তবুও তাকে মামলায় জড়িয়েছেন।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে