​বোয়ালমারীতে ইউএনও-র প্রেস ব্রিফিং

​বোয়ালমারীতে ইউএনও-র প্রেস ব্রিফিং

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন 'ক' শ্রেণির উপকারভোগীদের জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন বিষয়ক প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে শুক্রবার (১৮ জুন) উপজেলার গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে ব্রিফিং করেন বোয়ালমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঝোটন চন্দ।

এ সময় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার স্বরূপ ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মুজিববর্ষ উপলক্ষে দু্ই পর্বে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মোট ৩শ ২২টি টিনসেড পাকা ঘর। ১ম পর্বে প্রাপ্ত ১শ ৯২টি ঘরের মধ্যে ৯২টি ঘর ইতোমধ্যে ঘরগ্রহীতাদের মধ্যে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি ১শ ঘর হস্তান্তরের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। ২য় পর্বে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘর উপহার হিসেবে পাচ্ছেন আরও ১শ ৩০ ভূমিহীন পরিবার। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও ভূমি অফিসের সহযোগিতায় প্রকৃত ভূমিহীনদের চিহ্নিত করে কাজের মান ঠিক রেখে এসব ঘর নির্মিত হচ্ছে।

এ সময় ইউএনও আরো বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে বোয়ালমারী উপজেলার সদর ইউনিয়নসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে উপহার হিসেবে দ্বিতীয় দফায় প্রাপ্ত ১শ ৩০টি ঘর আগামী ২০ জুন উপকারভোগীদের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে।

জানা যায়, উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সরকারি খাসজমিতে হতদরিদ্র পরিবারের জন্য নির্মাণ করা হচ্ছে এসব সরকারি ঘর। যাদের থাকার জমি ও ঘর নেই তাদের পুনর্বাসনের জন্য এসব ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রায় ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে দুই কক্ষ বিশিষ্ট বারান্দাসহ সেমিপাকা ঘর, রান্নাঘর ও বসত ঘরের সঙ্গে থাকছে টয়লেটও। ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হলে গৃহহীনদের মধ্যে এগুলো হস্তান্তর করা হবে। ঘরের নির্মাণ কাজের সার্বিক তদারিক করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঝোটন চন্দ। এ কাজে তাকে সহযোগিতা করছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মারিয়া হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এবং সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ।

২য় পর্যায়ের ১৩০টি ঘরের মধ্যে সাতৈর ইউনিয়নে ৩৬টি, চতুল ইউনিয়নে ৮টি, পরমেশ্বরদী ইউনিয়নে ৬টি, রূপাপাত ইউনিয়নে ১৬ টি, শেখর ইউনিয়নে ১১টি, দাদপুর ইউনিয়নে ২৪টি, বোয়ালমারী ইউনিয়নে ১১টি, ময়না ইউনিয়নে ১৮ টি ঘর নির্মিত হচ্ছে। উল্লেখ্য, ২০ জুন সারাদেশের ৫৩ হাজার ৩৪০ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ ঘর প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

‘মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ ঘোষণা বাস্তবায়নে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর দেওয়ার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ২০ জুন ২য় পর্যায়ে এ গৃহ প্রদান কর্মসূচির উদ্বোধন করা হবে। প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের মার্চ থেকেই সারাদেশে এ কর্মসূচি চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে ২০ জুন সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে জমি ও গৃহপ্রদান কর্মসূচির ২য় পর্যায়ের উদ্বোধন করবেন।

যাযাদি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে