নীলফামারীতে অবাধে এনালগ পদ্ধতিতে বক শিকার

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী
নীলফামারীতে অবাধে এনালগ পদ্ধতিতে বক শিকার

নীলফামারীতে অবাধে এনালগ পদ্ধতিতে বক শিকার থেমে নেই। স্থানীয় শিকারীদের ফাঁদে প্রতিদিন অর্ধশত বক ধরা পড়ছে। এতে ছানা বকগুলো অকালে প্রাণ হারাচ্ছে। পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় পাখি শিকার নিষিদ্ধ হলেও তা মানছে না শিকারীরা।

বুধবার (১৫ আগস্ট) ভোরের দিকে নীলফামারী জেলা শহরের নিউবাবুপাড়ার মিলন পল্লী মহল্লায় দেখা যায়, কয়েকজন মিলে ধানের ক্ষেতে ফাঁদ পেতে বক শিকার করছে।

ভাদ্র, আশ্বিন ও কার্তিক মাসে আমন ধানে জমে থাকা পানিতে ছোট মাছসহ পোকাগমাকড় খেতে আসে বিভিন্ন প্রজাতির ফড়িং ও দেশি পাখি। এসব পাখি শিকারে মেতে উঠেছে স্থানীয় শিকারীরা। তারা ফাঁদ পেতে পাখি ধরছে। বিশেষ করে বকের প্রজননকাল হওয়ায় ধরা পড়ছে ছানা বকগুলো। এলাকাবাসীর অভিযোগ, সঠিক নজরদারি ও জনসচেতনতার অভাবে পাখি শিকার বেড়েছে।

বন বিভাগ সূত্র জানায়, বর্ষার পর নদী-নালা ও খাল-বিলের পানি কমতে থাকে। এ সময় আমন ধানের জমিতে ছোট মাছ ও পোকা-মাকড় খেতে আসে বিভিন্ন প্রজাতির বক। এই সুযোগে শিকারীরা বক শিকার করে স্থানীয় হাটবাজারে ও পাড়া মহল্লায় বিক্রি করছে।

স্থানীয় শিকারী সুজন মিয়া জানান, কলা গাছের পাতা দিয়ে ঝুপড়ির মতো ঘর বানিয়ে সেই ঘরে দীর্ঘক্ষন অবস্থান করতে হয়। এবং ঘরের বাহিরে নিজের হাত যতদুর যায় ততদুরে কয়েকটি বাশঁ দার করে পুতে রাখতে হয়। বাশঁগুলোর অপর প্রান্তে একটি করে মেয়ে বক পা বেধে দার করে রাখতে হয়। পুরুষ বক তার ডাকে সাড়া দিয়ে তার সংস্পর্ষে আসা মাত্র শিকারী বকটিকে ধরে ফেলে। এই পদ্ধতিকে দেশীয় এনালগ পদ্ধতি বলা হয়। আর এ পদ্ধতিকে কাজে লাগিয়ে এবার করোনা মহামারি ও ভাদ্র-আশ্বিন মাসে হাতে কাজ না থাকায় বক ধরে বিক্রি করছি।’

এক প্রশ্নের জবাবে আরিফ নামে এক শিকারী বলেন, ‘বাড়িতে বসে না থেকে ভাইয়ার সঙ্গে বক ধরতে এসেছি। দুই ভাই পাখি শিকার করে সংসার চালাই।’

নীলফামারী বন বিভাগ কর্মকর্তা মাহবুবার রহমান জানান, এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে মাইকিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে। মানুষ সচেতন হলে এ ধরনের পাখি শিকার বাড়তো না। সব সময় আইন দিয়ে সবকিছু করা যায় না।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন নাহার জানান, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী, পাখি শিকার ও নিধন দন্ডনীয় অপরাধ। সচেতনতার অভাবে খাল-বিলে ছুটে আসা নানা প্রজাতির বক ধরা পড়ছে। এতে নষ্ট হচ্ছে জীববৈচিত্র্য। আমরা দ্রুত মাইকিংসহ হাট-বাজারে অভিযানে নামবো।

যাযাদি/এসআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে