​কিশোরগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালা ভেঙ্গে অফিসের সরঞ্জামাদী চুরি

​কিশোরগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালা  ভেঙ্গে অফিসের সরঞ্জামাদী চুরি

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার চাঁদখানা ইউনিয়নের দক্ষিণ চাঁদখানা বাবুপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালা ভেঙ্গে সরঞ্জামাদী চুরি করে নিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে (১৪ অক্টোবর) বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে।

খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,স্কুলের পিছনে একদল যুবক জুয়া খেলা নিয়ে ব্যস্ত। সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার আগে সংবাদকর্মীর ক্যামেরায় জুয়ারীদের ছবি ধারণ করা হয়। স্কুল চুরির পেছনের কারণ হিসাবে জুয়া খেলাকে দায়ী করছে সমাজসেবক ও এলাকাবাসী।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাহফুজার রহমান জানান,দূর্গা পূজা উপলক্ষে স্কুল বন্ধ আছে। সকালে সহকারী শিক্ষক কাঞ্চনা রানীর মাধ্যমে স্কুল চুরির বিষয়টি জানতে পাই। সংশ্লিষ্ট সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানিয়ে স্কুলে এসে দেখতে পাই স্কুলের অফিস রুমের তালা ভাঙ্গা, ভিতরে থাকা দুটি সেলিং ফ্যান,তিনটি চেয়ার,ক্লাশের ঘন্টা বাজানো ঘন্টি,জাতীয় পতাকা উত্তোলণের ষ্টীল পাইপসহ অফিস রুমের বিভিন্ন কাগজপাতি তছনছ করে নিয়ে গেছে। এ নিয়ে গত দুই বছরে ৩বার এই প্রতিষ্ঠান চুরি হয়। আমার কাছে চুরি বিষয়টি ষড়যন্ত্র বলে মনে হয়। তা না হলে স্কুলের মালামাল বারবার চুরির কারণ তো দেখি না। এর আগেও থানায় চুরির বিষয়ে জিডি করেও কোন প্রতিকার পাইনি। আমি স্কুল চুরির বিষয়টি জানার জন্য আবার থানায় জিডি করবো।

স্কুলের অদূরে ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক কাঞ্চনা রানীর বাড়ী। তিনি স্কুলের চুরির খবর শূনে নিজে স্কুলে না এসে ওই স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রকে দিয়ে আগে তালা দিয়ে রাখতে বলেন। পরে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও পিটিএ কমিটির সদস্যদের উপস্থিতির পর তিনি স্কুলে আসেন। জুয়া খেলার বিষয় নিয়ে সহকারী শিক্ষিকা বলেন, জুয়া খেলা হয়। এ ব্যাপারে থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,এটা আমার দায়িত্ব না।

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লাল চাঁন মিয়া বলেন,জুয়া খেলা নিয়ে আমি ওসি সাহেবকে ফোন করেছিলাম। ওসিকে ভাই বলার কারণে আমাকে বেয়াদব বলে ফোন কেটে দেন। পরে থানার এ এস আই শাফিউলকে জানালে তিনি আমাকে বলেন,জুয়ারীরা রাতে জুয়া খেললে আমাকে জানাবেন তাহলে জুয়ারীদের ধরতে পারবো। দিনের বেলা জুয়ারীদের ধরা সম্ভব নয়। তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন,৪ নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ এনামুল হক জুয়ার আসর থেকে প্রতিদিন টাকা নিয়ে যায়। সে জুয়া খেলা বন্ধ করার পরিবর্তে জুয়ারীদের কাছ থেকে টাকা নিতে আসে।

কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল বলেন,জুয়ারীদের ছবি দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে। স্কুল চুরির বিষয়ে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শরিফা আখতার বলেন,বিষয়টি শূনেছি। থানায় অভিযোগ দিতে বলেছি।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে