ধর্মপাশায়  দৃষ্টিনন্দন তিনটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র

ধর্মপাশায়  দৃষ্টিনন্দন তিনটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র

ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশাবাসীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায়উন্নয়নের গণতন্ত্র : শেখ হাসিনার মূলমন্ত্রএই স্লোগানের আলোকে ধর্মপাশা উপজেলায় নির্মান করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ৩টি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র উদ্ধোধনের অপেক্ষায়

জানা গেছে, বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের (৩য় পর্যায়) আওতায় ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতর ১১ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ৫৮হাজার ৫শত২২টা ব্যয়ে উপজেলার সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিন ইউনিয়নে আব্দুর রশিদ মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ে টি বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র, মধ্যনগর ইউনিয়নে মধ্যনগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে টি বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র বংশিকুন্ডা দক্ষিন ইউনিয়নে লায়েছ ভূইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ১টি নির্মাণ করা হচ্ছে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র

উপজেলার বন্যাকবলিত মানুষের জীবনযাত্রার মান আলোকিত করতে দুর্যোগ মোকাবেলায় নির্মিত হচ্ছে তিনতলা বিশিষ্ট তিনটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র ধর্মপাশা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) অফিসের সুষ্ঠু তদারকিতে তিনটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রকল্পের নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করছে প্রকল্পটির নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের দিকে

ব্যাপারে ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রোকন জানান, স্থানীয় এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ধর্মপাশা উপজেলাবাসীর উন্নয়নে কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত তিনটি সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিন, মধ্যনগর, বংশিকুন্ডা দক্ষিন ইউনিয়নে প্রাণ কেন্দ্রে বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রটি নির্মাণ করা হচ্ছে গুলি নির্মাণের ফলে বন্যার সময় প্রতিটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে ৪০০জন মানুষ ১০০টি গবাদিপশু এখানে আশ্রয় নিতে পারবে এছাড়াও ধর্মপাশা উপজেলাবাসীর শিক্ষায় আলোকিত করতে ওই ভবনগুলি যুগযুগ ধরে সরকারের আলোর চেরাগ হয়ে উপজেলার ঐতিহ্য বহন করবে প্রতিষ্ঠানটিতে মনোরম পরিবেশে ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষকদের মিলনমেলা পাঠদান কার্যক্রম চলবে, যা ধর্মপাশা উপজেলাবাসী জীবনেও কল্পনা করতে পারেনি

ধর্মপাশা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রজেশ চন্দ্র দাস বলেন, দৃষ্টিনন্দন ওই আশ্রয়কেন্দ্রের প্রতি তলার আয়তন হাজার ২৬২ দশমিক ৭৫ বর্গফুট এবং ভবনটির মোট আয়তন ১২ হাজার ৭৮৮ দশমিক ২৫ বর্গফুট ফলে প্রাকৃতিক দূর্যোগ দেখা দিলে এখানে ৪০০জন মানুষ ১০০টি গবাদিপশু আশ্রয় নিতে পারবে পাশাপাশি অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এখানে পড়া-লেখার সুযোগ পাবে আশ্রয় কেন্দ্রটি নির্মাণে যথাযথভাবে তদারকি করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসন উক্ত আশ্রয়কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ একাধিকবার পরিদর্শন করেন

ব্যাপারে ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মুনতাসির হাসান বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগকালে আক্রান্ত মানুষ, পশু-প্রাণি অন্যান্য সম্পদ রক্ষার পাশাপাশি আশ্রয়কেন্দ্রগুলিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুবিধা বৃদ্ধির মাধ্যমে বহুমুখী ব্যবহারের উপযোগী এবং প্রকল্প এলাকার দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রীরা উন্নত পরিবেশে শিক্ষালাভ করতে পারবে

যাযাদি/এস এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে