পাইকগাছায় বসতবাড়ি যাতায়াতের পথে বেড়া দেওয়ায় ৩ পরিবার অবরুদ্ধ

পাইকগাছায় বসতবাড়ি যাতায়াতের পথে বেড়া দেওয়ায় ৩ পরিবার অবরুদ্ধ

খুলনার পাইকগাছার চককাওয়ালী গ্রামের ৩ পরিবার বসতবাড়ি যাতায়াতের পথে প্রতিপক্ষ শরীকরা ঘেরাবেড়া দিয়ে চলাচলের পথ অবরুদ্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

থানায় জিডি, চাঁদখালী ইউপি চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ করছে প্রতিপক্ষর বিরুদ্ধে অবরুদ্ধ পরিবার । জিডি, ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায় চককাওয়ালী গ্রামের আবু বক্কার গাজীর ছেলে বখতিয়ার গাজী, একই শরীকের মতিয়ার গংদের সাথে দীর্ঘ দিন জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এজমালি সূত্রে একই শরীকদার মৃত গহর গাজীর পুত্র মতিয়ার গাজী, রহিম গাজী, এলাহি গাজী। এস এ ৪৭ খতিয়ানের ২ দাগে ১ একর ০৩ শতক বাস্ত ও ডাঙ্গা জমিতে দীর্ঘ ৪/৫ যুগ ধরে একে অপরের সুবিধা অনুযায়ী বসতবাড়ী নির্মাণ করে বসবাস সহ সুবিধামত বাড়ী থেকে বাহিরে যাতায়াত করে আসতেছেন। উল্লেখিত জমির দাগ পাশাপাশি থাকায় পূর্ব পুরুষ থেকে নির্ধারিত কোন যাতায়াতের পথ নির্ধারণ ছিল না। গত কয়েক বছর আগে বখতিয়ার গাজী গং ও মতিয়ার গাজী গংদের সাথে যাতায়াতের পথ নিয়ে সমস্যা সৃষ্টি হলে, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মুনছুর আলী গাজী, উভয়ের সম্মতির মাধ্যমে স্থানীয় শালিস বসে জমির সীমানা পাশদিয়ে সরকারি রাস্তায় উঠার পথ বের করে দেন। সেই থেকে সেখানে বখতিয়ার গংরা যাতায়াতের পথে ইটের সলিং করে চলাচল করে আসছে।

বখতিয়ার গাজী বসবাসরত স্থানে পাঁকা ঘরবাড়ি নির্মাণের প্রয়োজনীয় মালামাল নিয়ে যাতায়াতের রাস্তা দিয়ে আনতে চাইলে বিবাদী রহিম গাজী গংরা হঠাৎ বাধা দেয় এখান থেকে রাস্তা দেওয়া হবে না বলে কথাকাটির একপর্যায়ে আমাকে মারধর করতে উদ্যত হয় এবং আমার স্ত্রীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় বলে বখতিয়ার গাজী জানান।

কাগজপত্র দৃষ্টিতে দেখা যায়, চককাওয়ালী মৌজার এস এ ৪৭খতিয়ানে ১০৫ দাগে ৪৫শতক ও১০৬দাগে ৫৮শতক মোট ১একর ০৩শতক বাস্ত ওডাঙ্গা জমি কছিমুদ্দীন গাজী,গহর গাজী, ভুদি বিবিও নবীরন্নেছা বিবি নামে রেকর্ড মালিক। ভুদি বিবি ১ পুত্র আবুবক্কর গাজী ২ কন্য সোনাভান ও স্বত্ববান রেখে মৃত্যু বরণ করলে ফারায়েজ অনুযায়ী আবুবকর গংরা ১৫ শতক জমি প্রাপ্ত মালিক হওয়ায়, সোনাভান ও স্বত্ববা ভাইপো বখতিয়ার নিকট প্রাপ্ত জমি কবলা মুলে বিত্রুয় করেন। বিআরএস জরিপে আবুবক্কর গাজী ও ছেলে বখতিয়ার গাজী নামে ডিপি ১০২নং খতিয়ানে সাবেক দাগ ১০৫ হাল ৩৮ দাগে ১৫ শতক জমি রেকর্ড মালিক হইতেছেন। বখতিয়ার বলেন আমি পৈত্রিক ও ত্রুয় সূত্রে এস এ ৪৭ খতিয়ানে ১ একর ৩ শতক ২ দাগের মধ্য ১৫ শতক জমি দাবিদার আমাদের পূর্ব পুরুষরা একই সীমানা ২দাগ জমি পাশাপাশি থাকায় মিলেমিশে এজমালি ভাবে বসবাস করতেন। বিআরএস ১০২খতিয়ানে হাল ৩৮দাগ ১৫শতক জমিতে বিবাদী মতিয়ার ও এলাহি গংরা বসবাস করতেছেন। আমি তাদের জমিতে বসবাস করি এজমালি সূত্রে। কিন্ত বিবাদী গংরা ক্ষমতার দাপটে জোরপূর্বক আমাদের যাতায়াতের পথ ঘেরাবেড়া দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন।

পাইকগাছা থানার উপ- পুলিশ পরিদর্শক মোঃ শাহাদাত হোসেন বলেন, জিডির আলোকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। জমি জায়গার বিষয়টা আদালতের। ঘটনাস্থললে কোন শৃঙ্খলা ভঙ্গ না ঘটে সে জন্য তিনি দু"পক্ষকে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার পরামর্শ দেন।

ইউপি চেয়ারম্যান শাহাজাদা আবু ইলিয়াস দেশের বাইরে থাকায় তার মতামত নেয়া সম্ভব হয়নি।

মতিয়ার গাজী বলেন, বখতিয়ার গাজী আমাদের শরীকের কোন অংশিদার না , আমি কোন কথা বলতে চাই না।

বখতিয়ার গাজী বলেন, আমরা অবরুদ্ধ পরিবার আমাদের যাতয়াতের পথ উন্মুক্ত করার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে