আনোয়ারায় নিহত মসজিদের ইমামের ভিডিও ফাঁস, ৪ জনকে আসামী করে মামলা

আনোয়ারায় নিহত মসজিদের ইমামের ভিডিও ফাঁস, ৪ জনকে আসামী করে মামলা

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের গহিরায় পরকীয়ার জেরে নিহত মসজিদের ইমাম মো. ইলিয়াছের (৩২) একটি ভিডিও ফাঁ হয়েছে। ভিডিওতে ওই নারী তাকে কখনো ফোন করেনি বলে জানায়।

অপর দিকে এ ঘটনায় ৪ জনকে আসামী করে আনোয়ারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার(২২ সেপ্টেম্বর) রাতে নিহত ইলিয়াছের ভাই মো ইদ্রীস বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হল নিহত ইমামের পরকীয়ায় অভিযুক্ত জান্নাতুল মাওয়া নিফা, তার পিতা আহমেদুর রহমান ও দুই ভাই মো. খোরশেদ ও আবুল কালাম। এদের মধ্যে নিফা ও খোরশেদকে ঘটনার পর গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আনোয়ারা থানায় মামলার এজাহারে বাদী দাবী করেন বাঁশখালীর গন্ডামারা এলাকার মো. ইলিয়াছকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে আসামীরা পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেন।

তবে ঘটনার কিছু দিন আগে নিহত ইলিয়াছ ওই নারীর শহরের বাসায় গিয়ে ধরা পড়লে সেখানে এক ভিডিও স্বীকারোক্তি দেয়।

ভিডিওতে ইলিয়াছকে ওই নারী কখনো ফোন করেনি বলে দাবী করে এবং আর কখনো ওই নারীকে বিরক্ত করবেনা বলে জানায়।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মির্জা মোহাম্মদ হাসান বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে ৪ জনকে আসামী করে নিহতের ভাই বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর ২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাকীদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্ঠা চলছে।

উল্লেখ্য গত বৃহস্পতিবার সকালে আনোয়ারা রায়পুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড গহিরা থেকে মূমূর্ষ অবস্থায় মো. ইলিয়াছ নামে মসজিদের এক সাবেক ইমামকে স্থানীয়রা মূমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। পরকীয়ার জেরে এ এঘটনা ঘটেছে বলে জানায় পুলিশ।

জাহাঙ্গীর আলম ২৩-০৯-২০২২ ইং রহস্যজনক মৃত্যু ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড গহিরা থেকে মূমূর্ষ অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। এঘটনায় এক মহিলাসহ ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত ইলিয়াছ বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা এলাকার আব্দুল আলিমের পুত্র। পুলিশের ধারণা পরকীয়া জনিত কারনে তার মৃত্যু ঘটেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

আনোয়ারা থানা সূত্রে জানা যায়, ইলিয়াছ গহিরা বাইরে বাড়ী জামে মসজিদে ইমামতি করতেন এবং পাশাপাশি একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতেন। এসময় স্থানীয় দুই সন্তানের এক জননীর সাথে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে উঠে।

বিষয়টি সমাজে প্রচার হলে ওই মহিলার স্বামী তাকে তালাক দেয় এবং ইমাম সাহেবকে গত এক বছর বছর পূর্বে বিদায় করে দেয়। গত ২১ সেপ্টেম্বর বুধবার ইলিয়াছ ও ওই মহিলা ফোনালাপের মাধ্যমে বাঁশখালী থেকে গহিরায় চলে আসে। আর বৃহস্পতিবার সকালে ইলিয়াছের মৃত দেহ পাওয়া যায়।

তবে স্থানীয়রা জানায়, ইলিয়াছ ওই মহিলার সাথে রাগারাগী করে রাতে বিষপান করেছে। পরে পূর্ব গহিরা ফকির হাট বাজারের পাশে সকালে মুমুর্ষ অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

যাযাদি ডেস্ক

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে