বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

অনার্স’র ছাত্রী এসএসসি পরীক্ষার্থীর শ্রুতি লেখক

পটুয়াখালী প্রতিনিধি
  ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:৪৮

পটুয়াখালীর দশমিনায় জিনাত জেরিন সুলতানা (রোল নম্বর ২২০৩৪৫) নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর শ্রুতি লেখক হিসেবে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন বরিশাল বিএম কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্রী মারুফা আক্তার

 

মঙ্গলবার দুপুরে দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসারও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর কাছে বিষয়টি ধরা পরলে পরীক্ষার্থী জিনাত জেরিন সুলতানাকে বহিস্কার এবং দুই বছরের জন্য পরীক্ষার অযোগ্য ঘোষণার সুপারিশ করা হয় ছাড়া পরিচয় গোপন করে শ্রুতি লেখক হওয়ায় মারুফা আক্তারকে অর্থ দন্ড এবং মিথ্যা তথ্য দিয়ে প্রত্যায়ন করায় দশমিনা সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক কেন্দ্র সচিব সালাউদ্দি সৈকতকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে মঙ্গলবার দশমিনা মডেল সকারী বিদ্যালয়ের আলিপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ঘটনা ঘটে

 

দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মহিউদ্দিন আল হেলাল বলেন, ‘পরীক্ষার নীতিমালা অনুযায়ী এসএসসি পরীক্ষার্থীর শ্রুতি লেখকের প্রয়োজন হলে সেটা অবশ্যই শ্রুতি লেখক সর্বোচ্চ ৮ম শ্রেণীতে অধ্যায়নরত হতে পারবে কিন্তু জিনাত জেরিন সুলতানার শ্রুতি লেখক হিসেবে বোর্ড থেকে যে অনুমতি পত্র দেয়া হয়েছে তাতে মারুফা আক্তারকে নিয়োগদেয়া হয়েছে মারুফা আক্তারকে দশমিনা সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী দাবী করা হয়েচে যেখানে তার রোল নম্বর ২১৫ বলা হলেও প্রকৃত পক্ষে ওই নামে এবং রোলে কোন ছাত্রী নেই মারুফা আক্তার মূলত ২০২২ সালে আলীপুর কলেজ থেকে এইচএসসি সম্পন্ন করেন এবং বর্তমানে বরিশাল ব্রজোমোহন কলেজের ইসলামের ইতিহাস সংস্কৃতি বিভাগের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্রী কিন্তু মারুফা ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী পরিচয়ে জিনাত জেরিন সুলতানার পরীক্ষা দিচ্ছিলেন

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরও বলেন, ‘অধিকতর পর্যালোচনায় দেখা যায়, দশমিনা সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সালাউদ্দিন সৈকত, তিনি একই সাথে কেন্দ্রের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন শ্রুতি লেখক মারুফা আক্তারকে তিনি তার বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী হিসেবে মিথ্যা প্রত্যায়ন দিয়েছেন মিথ্যা তথ্য এবং জাল জালিয়াতির অভিযোগে কেন্দ্র সচিব সালাউদ্দিন সৈকতকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগে সুপারিশ করা হয়েছে পরীক্ষার্থী জিনাত জেরিন সুলতানাকে কেন্দ্র সচিব বহিস্কার করেন এবং দুই বছরের জন্য পরীক্ষার অযোগ্য ঘোষণার সুপারিশ করা হয়

 

ছাড়া শ্রুতি লেখত মারুফা অক্তার দাবী করেন, তাকে ব্লাকমেইল এবং ভয় ভিতি দেখিয়ে এই কাজে বাধ্য করা হয় কারনে মারুফা আক্তারকেও মোবাইল কোর্ট অর্থ দন্ড প্রদান করা হয়

 

যাযাদি/সোহেল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে