বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

খানসামায় মন্ডপে কালো পতাকা উত্তোলন করে শারদীয় দুর্গা পূজা বর্জন

খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
  ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৯:৪১

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় গত ২৯ জুলাই টংগুয়া কুমার পাড়ায় বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়ি যাওয়ার পথে ইপিজেড কর্মী উপোবালা রায়কে গণধর্ষণের পর হত্যা এবং তার ১০ বছরের মেয়ে বিপাশা রায়কে নির্যাতনের প্রতিবাদে মন্ডপে কাল পতাকা উত্তোলন করে দূর্গা পূজা বর্জন করেছে এলাকাবাসী।  

শনিবার (১ অক্টোবর) সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত উপজেলার টংগুয়ার কুমারপাড়া সার্বজনীন পূজা মন্ডপে কালো পতাকা ও ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াও’ শীর্ষক সহিংসতাবিরোধী ব্যানারে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গাপূজার ষষ্ঠীর দিনে পূজা বর্জন করে ২ ঘন্টা ব্যাপী শোক পালন করে মন্ডপের ভক্তবৃন্দ ও এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী জানান, আমাদের মেয়ে উপবালা রায়কে হত্যার ৬২ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো এর কোন সুরহা হয়নি। পুলিশ প্রশাসন নাটকীয় ভাবে এই হত্যাকান্ডকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।। আমরা এই হত্যাকাণ্ডের বিচার না পাওয়া পর্যন্ত কোন ধরনের পূজা করব না এবং প্রতিবাদ চালিয়ে যাব। তারা আরো জানান, জগতের সকল অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভশক্তির বিজয় হবে। এজন্য দেবী দূর্গা তার ভক্তদের কাছে বিভিন্ন নামে পরিচিত। সম্প্রতি সময়ে উপো বালা হত্যাকান্ডের বিচার না পাওয়ার প্রেক্ষাপটে এবারের শারদীয় দূর্গা পূজা বর্জনের ডাক দিয়েছি।

উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ধীমান দাস প্রতিবাদ কর্মসূচির সঙ্গে সংহতি ও একাত্মতা জানিয়ে বলেন, তারা তাদের মেয়েকে হারিয়ে প্রশাসন ও পুলিশের কাছে প্রশাসনের কোন বিচার না পেয়ে নির্বিকার। এখন তারা নিরব প্রতিবাদ করছেন। ওরা ওদের পূজা বন্ধ করে কালো পতাকা উত্তোলন করছেন। এটি আমরা অবগত হয়েছি। তাদের মেয়ের হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ করবে এটাই স্বাভাবিক। তাই দ্রুত সময়ের মধ্যে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের ধরে বিচারের দাবি জানান তিনি।

এ বিষয়ে খানসামা থানার ওসি চিত্তরঞ্জন রায় বলেন, বর্তমানে মামলাটি পিবিআইতে তদন্তাধীন রয়েছে। এছাড়া আমরাও সর্বোচ্চ চেষ্টা করতেছি।

 

যাযাদি/সৌলভ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে