বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯
walton1

উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে বাংলাদেশের মানুষ আগামীতে আ‘লীগকেই ভোট দিবে: শাজাহান খান

স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর
  ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৯:১২

মাদারীপুরে দুইদিন ব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী, আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য শাজাহান খান এমপি বলেন, বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমাদের সব অর্জন ধ্বংস করে দিল এই সরকার। কি অর্জন করেছিল বিএনপি? অর্জন করেছিল হাওয়া ভবন, অর্জন করেছিলেন দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন, সন্ত্রাসসহ ইত্যাদি আপনারা অর্জন করেছিলেন। সেই অর্জন তো ধ্বংস করবে এই সরকার। কারন আমরা দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ চাই, একটি গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ চাই, বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ সুখে থাকবে, শান্তিতে থাকবে সেটা চাই। আগামীতে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে, সেই নির্বাচনে জনগন ভোট দিবে। জনগন যাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে তারাই আগামীতে সরকার পরিচালনা করবে। সেই ক্ষেত্রে জনগণ যদি আওয়ামীলীগের পক্ষে ভোট না দেয় তা হলে তো শেখ হাসিনা জোর করে ক্ষমতায় থাকবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তো কখনো বলেন নাই আমি জোর করে ক্ষমতায় থাকব। বাংলাদেশে যে উন্নয়নের ধারা সৃস্টি হয়েছে তা অব্যহত রাখতে বাংলাদেশের মানুষ আগামীতে আওয়ামীলীগকেই ভোট দিবে।

তিনি আরো বলেন, এক সময় জমিজমি নিয়ে কি অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল। আজকে কিন্তু ডিজিটাল পদ্ধতিতে আমাদের জমির তথ্য পাচ্ছি। সব কিছুই এখন ডিজিটাল পদ্ধতিতে হচ্ছে।

মাদারীপুরে দুইদিন ব্যাপী শুরু হয়েছে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা। রবিবার সকালে শহরের লেকেরপাড় স্বাধীনতা অঙ্গনে ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিক ভাবে এই মেলার শুভ উদ্বোধন করেন সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী, আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য শাজাহান খান এমপি।

‘উদ্ভাবনী জয়োল্লাসে স্মার্ট বাংলাদেশ’ এই স্লোগানে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা উদ্বোধন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন এর সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সভিল সার্জন ডা. মুনীর আহমেদ খান, পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) পল্লব কুমার হাজরা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শিমুল কুমার সাহা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মো: মনিরুজ্জামান ফকির। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, সরকারি দপ্তরের দপ্তর প্রধানগণ সহ অনেকেই।

মেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, সরকারি অফিস সমূহ এবং তরুণ উদ্ভাবকদের  স্টলসহ মোট ১৯টি স্টল স্থাপিত হয়েছে। মেলা চলবে ২৭ ও ২৮ নভেম্বর সকাল ৯ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। মেলায় ডিজিটাল কৃষি সম্প্রসারণ নামে একটি সেবা বুথ রয়েছে। এছাড়াও মেলা উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।
যাযাদি/মনিরুল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে