logo
সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  এম আব্দুল মোমিন   ০৪ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

লাল চালের চমৎকার গুণ

লাল চালের চমৎকার গুণ
চালের বাজারে গিয়ে যারা সাদা চাল খেঁাজেন, তাদের জন্য চমকপ্রদ খবর হতে পারে লাল চাল। সাদা চালে শুধু ক্যালোরি এবং কাবোর্হাইড্রেটের পরিমাণই বেশি থাকে। অন্যান্য পুষ্টি উপাদান কম থাকে। ফলে তা ডায়াবেটিস ও স্থুলতাসহ নানা রোগের কারণ হয়ে ওঠে। এসব বিষয় মাথায় রেখেই খাদ্য তালিকা থেকে চালকে পুরোপুরি বাদ না দিয়ে বরং লাল চালকে যুক্ত করাটাই বেশি স্বাস্থ্যকর হবে। এখানে লাল চালের অজানা স্বাস্থ্যগত উপকারিতাগুলো তুলে ধরা হলো।

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ

লাল চালে রয়েছে ফাইটিক এসিড, ফাইবার এবং এসেনশিয়াল পলিফেনলস। এটি হলো এমন একটি জটিল কাবোর্হাইড্রেট যা আমাদের দেহে সুগারের নিঃসরণ কমিয়ে দেয়। এবং আমাদেরকে ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত রাখে। লাল চাল লো গি সেমিক ইনডেক্স ফুড। তার মানে হলো হজমের পর লাল চাল থেকে সুগার কমহারে নিঃসরিত হয়। ফলে হুট করেই রক্তে সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে দেয় না এবং ভালোভাবে দেহে শোষিত ও অপসারিত হয়। অন্যদিকে সাদা চাল হলো হাই গি সেমিক ইনডেক্স ফুড যা সহজেই চবির্ জমায়।

হাড়ের স্বাস্থ্য

লাল চাল আমাদের হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়ক। এটি ম্যাগনেশিয়াম ও ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ। যা আমাদের হাড়কে শক্ত এবং স্বাস্থ্যকর রাখতে সহায়ক।

হৃদরোগ প্রতিরোধ

লাল চাল রক্তের শিরা-উপশিরাগুলোতে কোনো ধরনের বøক তৈরি হতে দেয় না। এতে আরও আছে সেলেনিয়াম নামের একটি উপাদান যা হাটের্র স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এটি হাইপারটনেশন এবং অন্যান্য হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

হজমের জন্য ভালো

উচ্চ হারে অঁাশ থাকায় এটি হজমে সহায়ক এবং গ্যাস শোষণ প্রতিরোধ করে। ফলে হজম প্রক্রিয়াকে আরও শক্তিশালি করে তোলে।

ওজন নিয়ন্ত্রণ

এতে আছে ম্যাঙ্গানিজ ও ফসফরাস। যা দেহের চবির্ সংশ্লেন এবং স্থুলতা নিয়ন্ত্রণে সহায়ক। এর উচ্চ অঁাশযুক্ত উপাদান আপানার পেট দীঘর্ক্ষণ ভরিয়ে রাখে এবং অতিরিক্ত খাবার গ্রহণে বিরত রাখে।

মেটাবোলিক সিন্ড্রোমের ঝুঁকি কমায়

সা¤প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, উচ্চ অঁাশযুক্ত এবং কম গি সেমিক উপাদনযুক্ত খাদ্য শস্য যেমন লাল চাল খেলে মেটাবোলিক সিন্ড্রোম সৃষ্টির ঝুঁকি কমে।

কোলোস্টেরল কমায়

লাল চালে যে তেল আছে তা এলডিএল কোলোস্টেরল ব্যাপকভাবে কমিয়ে আনে বলে কথিত আছে। আর এ কারণেই লাল চাল আমাদের খাদ্য তালিকার সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর একটি শস্য। লাল চালে থাকা অঁাশ হজম পক্রিয়ায় কোলোস্টেরলকে বেঁধে ফেলে এবং তা নিঃসরণে সহায়তা করে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে