logo
শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৫

  সুস্বাস্থ্য ডেস্ক   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

ধূমপান ত্যাগের উপকারিতা

মনে রাখবেন ধূমপায়ীর শরীরের তাপমাত্রা অধূমপায়ীদের চেয়ে একটু বেশি থাকে এবং ধূমপান ত্যাগের ২০ মিনিটের মধ্যেই আপনি লক্ষ্য করবেন আপনার তাপমাত্রা স্বাভাবিক পর্যায়ে নেমে আসা শুরু করেছে, ২০ মিনিটের মধ্যে আপনার রক্তের কার্বন মনোক্সাইড (পধৎনড়হ সড়হড় ড়ীরফব) নামক বিষাক্ত রাসায়নিকের মাত্রা অর্ধেকে নেমে আসে, ২৪ ঘণ্টা ধূমপান থেকে বিরত থাকলে আপনার হৃদরোগ (যবধৎঃ ধঃঃধপশ) হওয়ার ঝুঁকি ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে। ধূমপান ত্যাগের ১৫ দিন থেকে তিন মাসের মধ্যে আপনার ফুসফুসের কার্যক্ষমতা ৩০ শতাংশ বেড়ে যাবে এবং শরীরের সর্বত্র রক্তপ্রবাহ বৃদ্ধি পাবে, ধূমপান ত্যাগের ১ বছরের মধ্যে আপনার হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অর্ধেকে নেমে আসবে। কেউ যদি পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে ধূমপান ত্যাগ করে তবে তার মস্তিষ্কে স্ট্রোক (নৎধরহ ংঃৎড়শব) হওয়ার ঝুঁকি অধূমপায়ীদের পর্যায়ে নেমে আসবে। ধূমপান ত্যাগের ১০ বছর পর মূত্রথলি, কিডনি এবং অন্ত্র, অগ্নাশয়ে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি স্বাভাবিক পর্যায়ে নেমে আসে। ধূমপান ত্যাগের ১৫ বছর পর ফুসফুসের ক্যান্সার বা হৃদরোগ হওয়ার কি অধূমপায়ীদের সমপর্যায়ে নেমে আসে। তাই আপনি যদি এখনো ব্যাপক ধূমপায়ী (সধংংরাব ংসড়শবৎ) হয়ে থাকুন তবে তা থেকে সরে আসুন এবং পুরোপুরি ঝুঁকিহীন স্বাভাবিক জীবনে চলে আসুন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে