logo
  • Tue, 13 Nov, 2018

  নাসিম সাহনিক   ২৭ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

সায়েন্স ফিকশন

নিউরোট্রনিক রিন

নিউরোট্রনিক রিন
মিউট্যান্টরা নিউ বাংলাদেশ ফোসের্ক আক্রমণ করার সুযোগই দিল না। অসাধারণ রণকৌশলে ওদের পরাস্ত করতে লাগল।

মিউট্যান্টরা নিউ বাংলাদেশ ফোসের্ক কাবু করার পর রোবটদের সঙ্গে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ল।

রোবটদের এ অঞ্চলের নেতা রোরোক। মহাকাশব্যাপী যে রোবটীয় সভ্যতা সে সম্পকের্ অগাধ জ্ঞান রোরোকের। রোরোক প্রায়ই যে কথাটা বলে তা হলো, রোবটরা আজ নিজেদের নিজেরাই সৃষ্টি করতে শিখেছে। আজ রোবটরা স্বাধীন। মহাবিশ্বের যে কোনো জাতিগোষ্ঠীর মতো তারাও স্বাধীনতা ভোগ করার অধিকার রাখে।

রোরোক রোবট রেনেটিক কোড আর নিউরোট্রন দিয়ে গঠিত রোবট। পৃথিবীসহ মহাবিশ্বের অনেক অঞ্চলেই এ ধরনের রোবট ছিল। আগে কপোট্রন, পজিট্রন প্রভৃতি দিয়ে যে রোবটগুলো তৈরি হতো, সেগুলো এখন খুব একটা দেখা যায় না। মঙ্গলসহ কিছু গ্রহে এই রোবটগুলো অল্প পরিসরে আছে। রোবটরা বেশকিছু যুদ্ধের পর এখন নিজেদের নিজেরাই তৈরি করে। মানুষ এখন আর রোবট তৈরি করতে পারে না। রোবটকে নিয়ন্ত্রণ করার যেসব নিয়মকানুন মানুষ তৈরি করেছিল সেগুলো এখন আর কাযর্কর নেই। আন্তজাির্তক রাষ্ট্রপরিষদ সবসময় বলেÑ সাইবগর্, মিউট্যান্ট, মানুষ, রোবট মিলেমিশে থাকবে। তার পরও স্থানীয় পযাের্য় কিছু নিয়ন্ত্রণ সব গোষ্ঠীই প্রত্যাশা করে। এ প্রত্যাশার দিকে আন্তজাির্তক রাষ্ট্রপরিষদ উদার দৃষ্টি দেয়ার চেষ্টা করেছে। ফলে পৃথিবীতে কিছু স্থানীয় পরিষদ আছে যেখানে শুধু রোবট বসবাস করে। কিছু পরিষদ আছে যেখানে শুধু সাইবগর্। পৃথিবীতে মানুষের সংখ্যা এবং স্থানীয় নিয়ন্ত্রণই বেশি। তবে মহাবিশ্বে এমন অনেক জায়গা রয়েছে যেখানে রোবটের নিয়ন্ত্রণ বেশি অথবা সাইবগের্র নিয়ন্ত্রণ বেশি অথবা মিউট্যান্টের নিয়ন্ত্রণ বেশি। ফলে সেসব স্থানে তুলনামূলকভাবে মানুষের নিয়ন্ত্রণ কম। কিছু কিছু গ্রহ আছে যেখানে পুরোপুরিই রোবট অথবা মিউট্যান্ট অথবা সাইবগর্ বসবাস করে।

যা হোক, রোবট বলতে এখন রেনেটিক্যাল কোড এবং নিউরোট্রনিক সাকির্টবিশিষ্ট রোবটকেই বোঝায়। মানুষের জিন কোড ও নিউরনের গঠন আর কাযর্ক্রমকে মাথায় রেখে প্রথম রিন কোড ও নিউরোট্রনিক সাকির্টবিশিষ্ট রোবট তৈরি করে মানুষই। পরে রোবটদের স্বাধীনতা নিয়ে আন্দোলন যখন জোরালো হয়, তখন মানুষ রোবট নিয়ে গবেষণা করার সুযোগ কম পায়। বিশেষ করে কোনো মানুষ বা প্রতিষ্ঠান রোবট নিয়ে গবেষণা করলেও নতুন কোনো রোবট তৈরি করতে পারবে না, এরকম নিয়ম থাকে। ফলে রোবটরাই একপযাের্য় রিন কোড আর নিউরোট্রনিক সাকির্ট নিয়ে কাজ করতে থাকে।

রোবটবিজ্ঞানী আন্দ্রেউরোরো রোবটদের মাঝে স্মরণীয় হয়ে আছেন রিন কোড আর নিউরোট্রন সাকিের্টর মধ্যে সম্পকর্ স্থাপনের জন্য। রোবটদের বুদ্ধিবৃত্তিক অগ্রগতিতে আন্দ্রেউরোরোর অবদান বেশ গুুুরুত্বপূণর্।

নিউ বাংলাদেশে স্থানীয় পরিষদ মানুষের নিয়ন্ত্রণে। বাংলাদেশ এবং নিউ বাংলাদেশ একই স্থানীয় পরিষদের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। এখানে বাঙালিরা নেতৃস্থানীয় পযাের্য় রয়েছে। বামির্জরা একবার নিউ বাংলাদেশের দখল নিয়ে নেতৃস্থানীয় পযাের্য় পেঁৗছাতে চেয়েছিল। কিন্তু পারেনি।

নিউ বাংলাদেশ ফোসর্ শক্ত হাতে ওদের দমন করেছিল। সাইবগর্, মিউট্যান্ট, রোবটরা যারা নিউ বাংলাদেশে বসবাস করে তাদের মধ্যে দুই ধরনের চেতনা। এক ধরনের গোষ্ঠী মনে করে বাঙালিরা ওদের যে স্বাধীনতা ও সুবিধা প্রদান করেছে তা অবশ্যই উল্লেখ করার মতো। তাই শান্তিতে নিউ বাংলাদেশে বসবাস করাই ভালো। আরেকটি গোষ্ঠী মনে করে নিয়ন্ত্রণ নিতে হবে। এখনো এই চেতনাধারীরা সরাসরি আক্রমণ করেনি। তবে এবার রোবটরা সরাসরি আক্রমণ করে বসল।

রোরোক আর ওর সঙ্গীরা আক্রমণের সিদ্ধান্ত নিল। তবে রোরোকদের মানুষের বিপক্ষে আক্রমণ করা লাগল না। কারণ নতুন দ্বীপ আর এলিয়েন জটিলতা নিয়ে যে দ্ব›দ্ব তার পরিপ্রেক্ষিতে মিউট্যান্ট আর বাঙালি নিয়ন্ত্রিত নিউ বাংলাদেশ ফোসের্র মধ্যে তুমুল যুদ্ধ হলো। সেই যুদ্ধে মিউট্যান্টরা জিতে গেল। পুরো নিউ বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিল। নিউ বাংলাদেশ ফোসের্র অনেক সদস্য মারা গেল। গ্রেপ্তার হলো।

ইবনে ফরিদ কক্সবাজার থেকে ঢাকায় এবং ঢাকা থেকে দিল্লিতে আন্তজাির্তক রাষ্ট্রপরিষদের ভবনে যাতায়াত করতে লাগল। আন্তজাির্তক রাষ্ট্রপরিষদ ইবনে ফরিদকে আশ্বস্ত করল, বাংলাদেশ নিয়ন্ত্রণে নেয়ার কোনো সম্ভাবনা মিউট্যান্টদের নেই। আর নিউ বাংলাদেশ রক্ষায় সবোর্চ্চ সহযোগিতা প্রদান করা হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে