logo
মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল, ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০  

১৪২৬

শুভ নববর্ষ

শুভ নববর্ষ
কাল দিন পর পরশু সূর্যাস্তের মধ্য দিয়েই ইতি টানতে যাচ্ছে আরো একটি কর্মচঞ্চল বছর। উঠবে নতুন সূর্য। হাসবে নতুন সকাল, আসবে নতুন বছর। বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। কিন্তু তার আগেই যেন বৈশাখ নেমে এসেছে চারুকলা, রমনা বটমূল, গোটা রাজধানী এমনকি পুরো দেশজুড়েই। বিপণিগুলোতে চলছে শেষ সময়ের কেনা-কাটা।

সবমিলিয়ে বলা যায়, বৈশাখ আসছে ঢাকঢোল পিটিয়ে। পরিকল্পনার পালা শেষ করে এখন প্রস্তুতির পালা। সব অন্ধকার, অশুভ শক্তির ভয় আর বিধি-নিষেধের বেড়াজাল উপেক্ষা করেই বাঙালি প্রস্তুতি নিচ্ছে বর্ষবরণের। সাদা পাড়ের লাল শাড়ি নাকি সাদা ধুতির সঙ্গে লাল পাঞ্জাবি? লালটিপ নাকি গলায় গামছা? পান্তা কি ঘরে খাওয়া হবে, নাকি বাইরে? এসব নিয়েই চলছে নারী-পুরুষ তথা প্রতিটি বাঙালির শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি।

পিছিয়ে নেই আমাদের সংস্কৃতি অঙ্গনও। যদিও পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে অনেকটাই নীরব বিনোদনের সবচেয়ে বড় মাধ্যম চলচ্চিত্র। প্রতিবার একাধিক ছবি মুক্তি পেলেও এই বৈশাখে কোনো ছবিই মুক্তি পাচ্ছে না। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উৎসবে মুক্তি দেয়ার মতো প্রস্তুত নেই কোনো ছবি। শাকিব খানের 'শাহেন শাহ' ছবিটি মুক্তির কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত ছবিটির মুক্তির তারিখ পিছিয়ে দেন ছবিটির নির্মাতাপক্ষ। কিন্তু চলচ্চিত্র মুক্তি না পেলেও প্রতিবারের মতো এবারও এফডিসিতে বসবে বৈশাখী মেলা। দিনভর এই মেলায় পুতুল নাচ, গানের কনর্সাটের পাশাপাশি চলচ্চিত্রের অনেক সিনিয়র-জুনিয়ররাই উপস্থিত থাকবেন এই মেলায়।

তবে বড়পর্দায় আয়োজন না থাকলেও বৈশাখ নিয়ে বেশ সরব ছোটপর্দা। নাটক টেলিছবির পাশাপাশি রকমারি অনুষ্ঠান প্রচারের আয়োজন করেছে বিটিভিসহ দেশের সবকটি টিভি স্টেশন। কোনো কোনো টিভি চ্যানেল তিন দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে। এরই মধ্যে সেসব অনুষ্ঠানমালার প্রোমোও দেখা যাচ্ছে চ্যানেলগুলোতে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শেষ মুহূর্তের বেশ কিছু নাটক ও অনুষ্ঠানের শুটিং চলছে। বাকিগুলো আছে সম্পাদনার টেবিলে।

বেশ কিছু টেলিভিশন চ্যানেল সরাসরি রমনার বটমূল থেকে অনুষ্ঠান প্রচার করবে। তবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে সুরের ধারার চৈত্রসংক্রান্তি ও বর্ষবরণ দুটি অনুষ্ঠানই প্রচার করবে চ্যানেল আই। একই সঙ্গে দিনভর নানা ধরনের অনুষ্ঠান দেখা যাবে চ্যানেলটিতে। রাতে প্রচারিত হবে সাইদুর রহমানের পরিচালনায় নাটক এসো হে বৈশাখ। অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ ও সারওয়াত আজাদ। এখন চলছে চৈত্রসংক্রান্তি ও বর্ষবরণের অনুষ্ঠানের প্রস্ততি ও শেষ মুহূর্তের মহড়া।

এদিকে পহেলা বৈশাখ নিয়ে জমে উঠেছে দেশের সঙ্গীতাঙ্গনও। প্রতিবারের মতো এবারও জুনিয়র শিল্পীদের পাশাপাশি খ্যাতিমান এবং জনপ্রিয় শিল্পীরাও নতুন নতুন গান নিয়ে হাজির হবেন। পহেলা বৈশাখ নিয়ে নতুন একটি গান গেয়েছেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ। এ ছাড়া বাজারে আসছে কুমার বিশ্বজিৎ, তপন চৌধুরী আসিফ, ন্যান্সি এবং সালমাসহ অনেক আলোচিত তারকাশিল্পীর গান। শুধু গান প্রকাশই নয়, পহেলা বৈশাখের দিন কনসার্টে কনসার্টেই পুরোটা দিন কেটে যাবে দেশের প্রায় সব কণ্ঠশিল্পীদের। অনেক শিল্পীই ঢাকা এবং ঢাকার বাইরের একাধিক কনসার্টে অংশ নিচ্ছেন। এ কারণে পরিবার নিয়ে পহেলা বৈশাখ পালন করা জমে না বেশিরভাগ সংগীত শিল্পীদের।

এর অনেকটাই ব্যতিক্রম চিত্র দেখা যাবে অভিনয় শিল্পীদের। বৈশাখের টিভি নাটকের কাজ শেষ করে পহেলা বৈশাখীর প্রথম কিংবা শেষ প্রহর পরিবারের সঙ্গে কাটানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন অনেকেই। তাদের মধ্যে কোনো কোনো তারকা সপরিবারে গ্রামের বাড়িতেও বেড়াতে যাবে দুয়েকদিনের জন্য। আবার অনেকে জীবনসঙ্গীনিকে নিয়েই হাজির হবেন টিভি চ্যানেলের লাইভ আড্ডায়।

থেমে নেই গণমাধ্যমও। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে দেশের প্রায় সবগুলো দৈনিক, পাক্ষিক এবং মাসিক পত্রিকাগুলোই সেজেছে বিশেষ সাজে। বৈশাখীর সাজ-সজ্জা, পোশাক-আশাক, পান্তা-ইলিশ এবং মেকাপ নিয়েও বিশেষ প্রতিবেদন এমনকি প্রচ্ছদও সাজিয়েছে কোনো কোনো ম্যাগাজিন পত্রিকা। পাশাপাশি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সাপ্তাহিক সাময়িকী পাতাগুলোতেও শোভা পাচ্ছে বিশেষ আয়োজন। সেই ধারবাহিকতায় যাযাদি বৃহস্পতিবারের বিনোদন সাময়িকী 'তারার মেলা'ও সেজেছে বৈশাখী সাজে। সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা। বি.স.
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে