logo
সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

  তারার মেলা রিপোর্ট   ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০  

অপুর চলমান সময়...

কেন যেন মনে হচ্ছে, চলচ্চিত্রের সামনের সময়টা আবার ভালো হবে। এখন অনেক ভালো সিনেমা নির্মাণ হচ্ছে। আবারও দর্শক সিনেমা হলে যাওয়া শুরু করেছেন। তবে এখন সিনেমা হলের পরিবেশ উন্নত করাসহ সিনেপেস্নক্সের মতো নতুন সিনেমা হল প্রয়োজন। এগুলো হলে সবকিছু মিলে ভালো মানের সিনেমা দেখা যখন দর্শকরা আবার শুরু করবে তখন চলচ্চিত্রের সুদিন অবশ্যই ফিরে আসবে।

অপুর চলমান সময়...
অপু বিশ্বাস
ঢালিউডের বিউটি কুইনখ্যাত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে আজ অবধি সাফল্যের সঙ্গে পাড়ি দিয়ে এসেছেন। রূপ গুণ আর অভিনয়ের মাধুর্য দিয়ে সমানতালে মুগ্ধতা ছড়িয়ে যাচ্ছেন। এখনও শীর্ষ চাহিদাসম্পন্ন নায়িকার আসনটিই দখল করে রেখেছেন তিনি। তবে বিয়ের পর অপু নানান ব্যস্ততায় ব্যস্ত থাকলেও চলচ্চিত্রে অপেক্ষাকৃত কম কাজ করছেন। স্টেজ শো, বিজ্ঞাপনে কাজ করার পাশাপাশি একমাত্র পুত্র জয়কে নিয়েই এখনকার ব্যস্ততা তার। ছেলেকে গত বছর ভর্তিও করিয়েছেন স্কুলে। এর পাশাপাশি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করছেন অপু। দেবাশীষ বিশ্বাসের পরিচালনায় 'শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২' শিরোনামের একটি চলচ্চিত্রে কাজ করছেন। ইতোমধ্যে ছবিটির কাজ অনেকটাই শেষ করেছেন তিনি। বাপ্পী চৌধুরী এই ছবিতে সহ-অভিনেতা হিসেবে কাজ করছেন। ছবিটি নিয়ে বছরেরর শুরুতে খানিকটা তোড়জোড় হলেও এখন কাজ হচ্ছে ধীরগতিতে।

অপু বিশ্বাস বলেন, 'এখন বেশি কাজ করতে চাই না। কম কাজ করব, সেগুলো অবশ্যই মানসম্মত হবে। 'শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২' সিনেমার কাজ এখনো কিছুটা বাকি। আশা করছি, কম সময়ের মধ্যেই এটা শেষ করতে পারব।'

দেশি চলচ্চিত্রের বাইরে কলকাতার একটি সিনেমাতেও কাজ করেছেন অপু বিশ্বাস। 'শর্টকাট' শিরোনামের এ চলচ্চিত্রটিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা পরমব্রত ও গৌরব চক্রবর্তী। ছবিটি এখন মুক্তির অপেক্ষায়। ছবিটি নিয়ে অপু বিশ্বাস বলেন, 'কাজটি বেশ ভালোই হয়েছে। আমি সবসময় এমন কাজের অপেক্ষাতেই থাকি। এই ছবির গল্পটাও দারুণ। এই সময়ের প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে দুটো আলাদা আর্থ-সামাজিক অবস্থার দুই যুবকের গল্প নিয়ে নির্মিত এটি। বিত্তবান পরিবারের একটি ছেলে আর ঠিক পাশের বস্তিতে থাকা আরেকটি ছেলে। আপাতদৃষ্টিতে দু'জনের অবস্থান আলাদা হলেও তাদের দু'জনের জীবনেই ব্যর্থতার গস্নানি রয়েছে। কোথাও গিয়ে তারা মিলে যায়। তারা পরিস্থিতি থেকে বের হতে পারে কি-না, তা নিয়েই ছবির গল্প।'

এক সময় চলচ্চিত্রে তার দারুণ ব্যস্ততা গেলেও এখন নেই। 'শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২' ও 'শর্টকাট' এ দুটি ছবির বাইরে নতুন কোনো চলচ্চিত্রের খবরে নেই এ অভিনেত্রী। অনেকটাই বেকার হয়ে আছেন এক সময়ের চাহিদার শীর্ষে থাকা এ নায়িকা। এ কারণে অভিযোগ উঠেছে, কদরহীন অপু ক্রমেই আগ্রহ হারাচ্ছেন নির্মাতাদের। এমনকি ক্যারিয়ার গুটিয়ে নিচ্ছেন অপু বিশ্বাস- এমন গুজবও চলছে সিনেমাপাড়ায়। তবে এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছেন অপু। তিনি আরও জানান, এসব গুজব নিয়ে তার কোনো আক্ষেপ নেই। তার যুক্তি, এখন সিনেমা নির্মাণ কমে গেছে। তা ছাড়া মানসম্মত সিনেমাও তেমন একটা নির্মাণ হয় না। ভালো গল্প না পেলে কাজ করে অর্জিত সুনাম ক্ষুণ্ন করা উচিত নয়। অপু বলেন, 'একটা কাজ শেষ করে অন্য একটা কাজে হাত দিতে চাই। তাড়াহুড়ো নেই আমার। কারণ একটা সময় দিনরাত কাজ করেছি। এখন আমার ছেলে আব্রাম খান জয় স্কুলে যাচ্ছে নিয়মিত। তাকেও সময় দিতে হচ্ছে।'

সর্বশেষ গত বছর অপু বিশ্বাস অভিনীত পরিচালক আবদুল মান্নানের 'পাঙ্কু জামাই' ছবিটি মুক্তি পায়। এ ছবিতে অপু বিশ্বাসের বিপরীতে ছিলেন শাকিব খান। এ বছরটা তিনি শুরু করেছিলেন নতুন উদ্যোমে। চলচ্চিত্রে শুটিংয়ের পাশাপাশি নতুন বিজ্ঞাপনেও কাজ করেন। আকাশ আমিনের নির্দেশনায় 'সুন্দরী নারিকেল তেল'-এর বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হন অপু বিশ্বাস।

ক্যামেরার বাইরে অপু নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন মঞ্চেও। প্রচুর অনুষ্ঠান করছেন মঞ্চে। ছুটে চলছেন দেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। সম্প্রতি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির ৫০ বছরে পূর্তি অনুষ্ঠানে দর্শকদের মুগ্ধ করে অপুর নাচ। স্টেজ শো নিয়ে তিনি বলেন, 'সামনে দেশ ও দেশের বাইরের বেশকিছু স্টেজ শো নিয়ে কথা চলছে। সব ঠিক থাকলে সেই কাজগুলোও করতে চাই।'

বর্তমানে চলচ্চিত্রের অনেক তারকাকে ওয়েব সিরিজে নিয়মিত অভিনয় করতে দেখা গেলেও কেবল ব্যতিক্রম অপু বিশ্বাস। ওয়েব সিরিজের কাজের প্রস্তাব পেয়েও এই মাধ্যমে নিজেকে মেলে ধরতে চান না। এ প্রসঙ্গে অপু বিশ্বাস বলেন, 'আমি জোয়ারে গা ভাসাতে চাই না। তাই ওয়েব সিরিজে কাজের প্রস্তাব পেলেও আপাতত করতে চাই না। কারণ চলচ্চিত্রই আমার ক্ষেত্র। আমি চলচ্চিত্র নিয়েই আপাতত ব্যস্ত থাকতে চাই।'

চলচ্চিত্রের চলমান অবস্থা ভালো নয়। হিসেব কষলে দেখা যাবে ঢালিউডের অবস্থা ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছে। বিশেষ দিবসেও এখন খরা চলছে সিনেমা হলে। চলচ্চিত্রের এমন পরিবেশ নিয়ে অপু বলেন, 'কেন যেন মনে হচ্ছে, চলচ্চিত্রের সামনের সময়টা আবার ভালো হবে। এখন অনেক ভালো সিনেমা নির্মাণ হচ্ছে। আবারও দর্শক সিনেমা হলে যাওয়া শুরু করেছেন। তবে এখন সিনেমা হলের পরিবেশ উন্নত করাসহ সিনেপেস্নক্সের মতো নতুন সিনেমা হল প্রয়োজন। এগুলো হলে সবকিছু মিলে ভালো মানের সিনেমা দেখা যখন দর্শকরা আবার শুরু করবে তখন চলচ্চিত্রের সুদিন অবশ্যই ফিরে আসবে।'

অপু বিশ্বাসকে নিয়ে আরও একটি অভিযোগ হচ্ছে, এপার বাংলা ছেড়ে ওপার বাংলার চলচ্চিত্রে স্থায়ী হচ্ছেন তিনি। এ বিষয়ে অপু বিশ্বাস জানান, এটাও ভিত্তিহীন অভিযোগ। তিনি মনে করেন, বর্তমানে অনেক বাংলাদেশি অভিনেত্রী কলকাতায় অভিনয় করতে এসে ভারতীয় হয়ে গেছেন। তিনি তা হবেন না। তিনি বাংলাদেশি নায়িকা হিসেবেই জনপ্রিয়তা অর্জন করতে চান। তিনি বাংলাদেশে যেভাবে দর্শকদের জনপ্রিয়তা পেয়েছেন, কলকাতার ক্ষেত্রেও ঠিক তাই হবেন। তিনি বিশ্বাস করেন, কলকাতাতেও সেরা হবেন তিনি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে