logo
সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ০৯ মে ২০১৯, ০০:০০  

আরাধ্যই আমার পৃথিবী : ঐশ্বর্য

যেখানেই যান, সেখানেই মেয়েকে নিয়ে যান ঐশ্বর্য। শুধু তাই নয়, মা-মেয়েকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই একই পোশাকে দেখা যায়। এই তো গত ২০ এপ্রিল ঐশ্বরিয়া রাই ও অভিষেক বচ্চনের যুগল জীবনের এক যুগ পূর্ণ হলো। যুগপূর্তিকে স্মরণীয় করে রাখতে মালদ্বীপে মধুচন্দ্রিমায় যান এ যুগল। বিশেষ মুহূর্তগুলো ভাগাভাগি করছেন অনুরাগীদের সঙ্গে। সেখানেও একই পোশাকে দেখা গেছে আরাধ্য ও এবং অ্যাশকে...

আরাধ্যই আমার পৃথিবী : ঐশ্বর্য
তারার মেলা ডেস্ক

বলিউডের তারকাদের মধ্যে সুখী দাম্পত্যের উদাহরণ কমই আছে। পরকীয়া, মনের অমিল কিংবা আরো নানান তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে প্রায়ই বিচ্ছেদের ঘটনা নতুন নয়।

কিন্তু এ ক্ষেত্রে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন অভিষেক-ঐশ্বরিয়া জুটি। বলিউডের অন্যতম সুখী দম্পতি হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করেছেন। পারস্পরিক সম্মানবোধ, বিশ্বাস এবং ভালোবাসায় এগিয়ে চলছে তাদের সুখী দাম্পত্য জীবন। আর এর জন্য বেশি কৃতিত্ব ঐশ্বর্যর। সংসারের বউ হিসেবে যেমন সফল, আবার অভিষেকের স্ত্রী হিসেবেও সফল তিনি। তবে সবচেয়ে বেশি সফল তিনি। ২০১১ সালে মেয়ে আরাধ্যের জন্মের পর অভিনয় থেকে অনেকটাই গুটিয়ে নেন তিনি। তখন থেকেই মেয়েকে নিয়ে সব চিন্তাচেতনা আর ধ্যানজ্ঞান তার। তার অস্তিত্ব জুড়ে কেবল মেয়ে আরাধ্য।

যেখানেই যান, সেখানেই মেয়েকে নিয়ে যান অ্যাশ। শুধু তাই নয়, মা-মেয়েকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই একই পোশাকে দেখা যায়। এই তো গত ২০ এপ্রিল ঐশ্বরিয়া রাই ও অভিষেক বচ্চনের যুগল জীবনের এক যুগ পূর্ণ হলো। যুগপূর্তিকে স্মরণীয় করে রাখতে মালদ্বীপে মধুচন্দ্রিমায় গেছেন এ যুগল। বিশেষ মুহূর্তগুলো ভাগাভাগি করছেন অনুরাগীদের সঙ্গে। সেখানেও একই পোশাকে দেখা গেছে আরাধ্য ও এবং অ্যাশকে।

অ্যাশ বলেন, 'আরাধ্যর জন্মের পর থেকেই আমরা তাকে নিয়ে ঘুরেছি। অভিষেক ও আমি প্রথমে গোয়া নিয়ে গিয়েছিলাম আমাদের মেয়েকে। ওর বয়স যখন মাত্র চার মাস, তাকে নিয়ে লঙ্গিনেসের (সুইস ঘড়ির ব্র্যান্ড) একটা কাজে দুবাই যাই। তখন সবে পাসপোর্ট পেয়েছিল সে! ও সঙ্গে থাকলে ভ্রমণ বরাবরই আনন্দময় মনে হয়েছে আমার। আরাধ্যও উপভোগ করে আমার সঙ্গে বেড়াতে। আমাদের মতোই যেখানেই যে পরিবেশেই যাক না কেন, আরাধ্য মানিয়ে নিতে পারে। ছোট থেকেই তাকে সবকিছুর বর্ণনা দিয়েছি। আমার সব কথা মন দিয়ে শোনে সে। তখন পরিষ্কার দেখতে পাই, কথাগুলো তাকে প্রভাবিত করছে।'

\হমেয়েকে সর্বক্ষণ আগলে রাখেন ঐশ্বরিয়া। অন্যান্য মায়ের মতো আট বছর বয়সী মেয়ের হাত ছাড়তে কখনো দেখা যায়নি এই বলিউড অভিনেত্রীকে। আর এই স্বাভাবিক বিষয়টিকে নিয়ে নেটিজেনদের ট্রোলের শিকার হচ্ছেন ঐশ্বরিয়া। সম্প্রতি এপ্রিলে মুম্বাইয়ের একটি রেস্টুরেন্টে সপরিবারে নৈশ ভোজনে বেরিয়েছিল বচ্চন পরিবার। ঐশ্বরিয়ার পরনে ধূসর রঙের শ্রাগ, গোড়ালির ওপর পর্যন্ত লম্বা জিনস, সাদা টি-শার্ট, মেয়ে আরাধ্যর পরনে সাদা হলুদ ফুল করা হাতাকাটা জামা, মাথায় হেয়ার ব্যান্ড। সেখানে আরাধ্যর হাত ধরে চলতে দেখা গেছে ঐশ্বরিয়াকে। তারপরেই ট্রোল হলেন তারা নেট দুনিয়ায়।

আরাধ্যর হাত ধরে হাঁটা কিংবা আরাধ্যকে ঐশ্বরিয়ার কোলে দেখা মানেই সমালোচনার বিষয়বস্ত। একাধিক বার এ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন এ তারকা। মেয়ের স্বাধীনতা আছে, তাকেও তো একা চলতে শিখতে হবে, সবসময় মায়ের হাত ধরে থাকলে হবে কীভাবে- এটাই নিন্দুকদের প্রশ্ন। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছবি পোস্ট করেও সমালোচনা করা হচ্ছে মা-মেয়ের।

এবারই প্রথম নয়, সবসময় মেয়ের হাত ধরে থাকতে দেখা যায় ঐশ্বরিয়াকে। শুধু হাত ধরা নয়, এখনো মেয়েকে কোলে নিয়েও ঘুরে বেড়ান তিনি। এদিকে ছবিগুলো দেখে কেউ বলেছেন, আরাধ্যর বিষয়ে বেশি মাত্রায় সচেতন ঐশ্বরিয়া। অনেকে নিজেদের মত প্রকাশ করেছেন মা-মেয়ের এই হাত ধরে চলার বিষয়টির পরিপ্রেক্ষিতে। কেউ বলেছেন, 'আরাধ্যকে স্বাধীনভাবে বাঁচতে দাও'। কেউ বলেছেন, ' বেশি বাড়াবাড়ি রকমের আগলে রাখার প্রবণতা রয়েছে ঐশ্বরিয়ার।'

আবার কারো মতে, সারাক্ষণ আড়াল করে রেখে আরাধ্যর আত্মবিশ্বাস একেবারে শেষ করে দিচ্ছেন ঐশ্বরিয়া। মা হিসেবে সন্তানকে কোথাও বাকি দুনিয়ার সঙ্গে লড়াই থেকে পিছিয়ে দিচ্ছেন। আবার কারো মতে, ঐশ্বরিয়া এমনভাবে সবসময় আরাধ্যর হাত ধরে থাকেন, যা দেখে মনে হয় আরাধ্য নিজে চলাফেরা করতে পারে না। তবে এসব নিয়ে মোটেও ভাবছেন না মা ঐশ্বরিয়া। তার পৃথিবী যে কেবল এখন মেয়েটাই।

কেবল মা হিসেবেই নয়, মেয়ে হিসেবেও কম আলোচিত নন ঐশ্বরিয়া। সম্প্রতি ভালোবাসা নিয়ে ভালোবাসা নিয়ে মনের কথা খোলাখুলি প্রকাশ করলেন তিনি। তবে স্বামী অভিষেককে নিয়ে নয়, সম্প্রতি মা বৃন্দা রায় এবং মেয়ে আরাধ্য বচ্চনের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করে নিজের মনের কথা প্রকাশ করলেন অভিনেত্রী। ওই ছবিতে মা-মেয়েকে একে অপরের হাতে রাখি পরিয়ে দিতে দেখা যায়। শুধু তাই নয়, এই ভালোবাসার বন্ধন চিরন্তন বলেও নিজের সোশ্যাল সাইটে শেয়ার করেন ঐশ্বরিয়া।

যদিও এটি প্রথম নয়, এর আগেও বহুবার মা বৃন্দা রায় এবং মেয়ে আরাধ্য বচ্চনের সঙ্গে ছবি শেয়ার করেছেন ঐশ্বরিয়া। কখনও প্যারিসে গিয়ে মেয়ের সঙ্গে ছবি শেয়ার করেছেন রাই, আবার কখনও প্রয়াত বাবার জন্মদিনে মা বৃন্দা রায় এবং মেয়ে আরাধ্যের সঙ্গে একযোগে ছবি শেয়ার করেছেন ঐশ্বরিয়া।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে